ব্রেকিং নিউজ
Home | আন্তর্জাতিক | হৃদরোগে মৃত্যুর পর ফাঁসিতে ঝোলানো হলো নারীকে!

হৃদরোগে মৃত্যুর পর ফাঁসিতে ঝোলানো হলো নারীকে!

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক : ফাঁসিতে ঝোলানোর আগেই হৃদরোগে মৃত্যু হয় স্বামীকে হত্যার দায়ে অভিযুক্ত এক নারীর। কিন্তু তারপরও সেই নিথর দেহকেই ফাঁসিতে ঝোলানো হয়। এমনই অমানবিক ঘটনা ঘটেছে ইরানের রাজাই শাহর জেলে। খবর : নিউইয়র্ক পোস্ট।

ওই নারীর নাম জাহরা ইসমাইলি। তার স্বামী আলীরেজা জামানি পেশায় একজন গোয়েন্দা কর্মকর্তা ছিলেন। আলীরেজা তার স্ত্রী ও দুই মেয়েকে নির্যাতন করতেন। আর এই নির্যাতনের হাত থেকে মেয়েদের বাঁচাতেই জাহরা স্বামীকে খুন করতে বাধ্য হন বলে তার আইনজীবীর দাবি। পরে স্বামীকে হত্যার দায়ে জাহরার মৃত্যুদণ্ডের সাজা হয়।

এদিকে, যে জেলে জাহরাকে ফাঁসি দেয়ার কথা ছিল, সেই রাজাই শাহর জেল বন্দিদের ওপরে অত্যাচারের জন্য কুখ্যাত।

জাহরার আইনজীবী ওমিদ মোরাদির অভিযোগ, ফাঁসির আগে আরও ১৬ জন সাজাপ্রাপ্তের পেছনে লাইনে দাঁড় করানো হয়েছিল দুই সন্তানের মা জাহরাকে। চোখের সামনে একের পর একজনকে ফাঁসিতে ঝুলতে দেখে সেই মানসিক ধাক্কা সামলাতে পারেননি তিনি। লাইনে দাঁড়িয়েই হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয় তার। কিন্তু তারপরেও তাকে ছাড় দেয়া হয়নি।

মৃত্যুর পরেও জাহরার দেহটি ফাঁসির মঞ্চে নিয়ে গিয়ে দড়িতে বেঁধে ঝোলানো হয়। যাতে ফাঁসিতে ঝোলানোর পর তার শাশুড়ি লাথি মেরে জাহরার পায়ের নিচ থেকে চেয়ারটি সরিয়ে দিতে পারেন।

মোরাদি আরও দাবি করেন, ডেথ সার্টিফিকেটে জাহরার মৃত্যুর কারণ হিসেবে হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার কথাই উল্লেখ করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

তালায় জাতীয় পার্টি ও আ.লীগের কর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষ, আহত-৮

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি : সাতক্ষীরার তালায় ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণাকে কেন্দ্র করে জাতীয় ...

অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্ত রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে নেয়া হবে না : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

কক্সবাজার প্রতিনিধি : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, রোহিঙ্গাদের যারা আগুনে ঘর-বাড়ি হারিয়েছেন ...