Home | আন্তর্জাতিক | রাষ্ট্রপতির মৃত্যুতে ফরিদপুরে আওয়ামী লীগের পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি পালন।

রাষ্ট্রপতির মৃত্যুতে ফরিদপুরে আওয়ামী লীগের পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি পালন।

ইকবাল মাহমুদ (হিরু), ফরিদপুর প্রতিনিধি, ২৫ মার্চ, বিডিটুডে ২৪ডটকম : ফরিদপুর ফরিদপুরের দ্বিধা-বিভক্ত আওয়ামী লীগ রাষ্ট্রপতির মৃত্যুর শোক অনুষ্ঠানও এক সাথে পালন করতে পারেনি। উভয় গ্রুপই পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি পালন করেছে। পাল্টাপাল্টি এ কর্মসূচি পালনের কারনে দলের তৃনমূল নেতা-কর্মীদের মাঝে ব্যাপক ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। একই অফিসে একই দলের নাম দিয়ে দু পক্ষ অনুষ্ঠান করায় জনমনে ব্যাপক কৌতুহলের সৃষ্টি হয়। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, মহামান্য রাষ্ট্রপতি মো. জিল্লুর রহমানের মৃত্যুতে শনিবার জেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে থানা রোডস্থ পার্টি অফিসে দিনব্যাপী খতমে কোরআন, মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। পরে একটি শোকর‌্যালী বের করা হয়। এ অনুষ্ঠানে প্রবাসী কল্যান মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন গ্রুপ হিসাবে পরিচিত ‘মন্ত্রী গ্রুপের’ নেতা জেলা পরিষদের প্রশাসক, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি কাজী জায়নুল আবেদীন, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের উপদেষ্ট মন্ডলীর সদস্য এস এম নুরুন্নবী, মন্ত্রীর ভাই মোহতেশাম হোসেন বাবর, আওয়ামী লীগ নেতা মোকাররম মিয়া বাবু, অ্যাডভোকেট বাবু মিরধা, যুবলীগের নাম নাজমুল হাসান লেভি, স্বেচ্ছাসেবক লীগের শওকত আলী জাহিদসহ দলের অংগ-সংগঠনের নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। অপরদিকে ‘মন্ত্রী বিরোধী গ্রুপ’ হিসাবে বিবেচিত দলের নেতারা আজ রবিবার পার্টি অফিসে জেলা আওয়ামী লীগ ও অংগ-সংগঠনের উদ্যোগে কোরআন খানী, মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে। এ অনুষ্ঠানে ‘মন্ত্রী বিরোধী গ্রুপ’ হিসাবে বিবেচিত সদর উপজেলা চেয়ারম্যান ভোলা মাষ্টার, ভাইস চেয়ারম্যান ঝর্না হাসান, আওয়ামী লীগ নেতা সমির বোস, খন্দকার মঞ্জুর আলী, আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক সৈয়দ মাসুদ হোসেন, যুবলীগ নেতা আবু নাঈম, মহিলা আওয়ামী লীগের আহবায়ক নাজনিন হায়দার, সদস্য সচিব আইভি মাসুদ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা সোহেল রেজা বিপ্লব, ছাত্রলীগের সভাপতি মনির হোসেনসহ দলের নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। গত শনিবারের অনুষ্ঠান প্রসঙ্গে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) সৈয়দ মাসুদ হোসেন বলেন, জেলা আওয়ামী লীগের ব্যানারে যারা অনুষ্ঠান করেছে তারা এ অনুষ্ঠান করতে পারেন না। যে অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে সে আওয়ামী লীগের কোন পদে নেই এমনকি কর্মীও নন। আমরা দলের নিয়মতান্ত্রিত ভাবে সভা করে অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছি। আমরাই মূল আওয়ামী লীগ। তাদের সাথে গুটি কয়েক আওয়ামী লীগের নেতা থাকলেও তারা মন্ত্রীকে খুশি করতেই এমনটি করেছে। আমরা কাউকে খুশি করতে এ অনুষ্ঠান করছিনা। আমাদের অনুষ্ঠানে জেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, মহিলা আওয়ামী লীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, ছাত্রলীগসহ অংগ-সংগঠনের নেতা-কর্মীরা রয়েছে। অপরদিকে, ফরিদপুর জেলা আওয়ামী লীগের ‘মন্ত্রী গ্রুপের’ এক নেতা নামপ্রকাশ না করার শর্তে বলেন, প্রবাসী কল্যান মন্ত্রীর বিরুদ্ধে গিয়ে দলের গুটিকয় ব্যক্তি দলের নাম ভাঙ্গিয়ে অপরাজনীতি করছে। তাদের এ রাজনীতি বেশীদিন থাকবেনা। শনিবার রাষ্ট্রপতির মৃত্যুতে জেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগেই অনুষ্ঠান হয়েছে।

x

Check Also

বাংলাদেশের পতাকার রঙে আলোকিত হলো অস্ট্রেলিয়ার ব্রিসবেন

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক : অস্ট্রেলিয়ার কুইন্সল্যান্ডের রাজধানী ব্রিসবেনের দুটি মূল স্থাপনা স্টোরি ব্রিজ এবং ...

অবশেষে বৈঠকে বসছে ভারত ও পাকিস্তান

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক : দুই বছর পর সিন্ধুর জল বণ্টন নিয়ে মঙ্গলবার (২৩ মার্চ) ভারতের সঙ্গে ...