Home | ফটো সংবাদ | মিশ্র টিকা করোনা ঠেকাতে বেশি কার্যকর

মিশ্র টিকা করোনা ঠেকাতে বেশি কার্যকর

স্বাস্থ্য ডেস্ক: প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস ঠেকাতে টিকার মিশ্র ডোজের ওপর বেশি গুরুত্ব দিচ্ছে জার্মানি। দেশটির দাবি, একই ধরনের দুই ডোজ টিকা গ্রহণের চেয়ে ভিন্ন দুই ডোজ গহণ বেশি কার্যকর। জার্মানি বলছে, ফাইজার ও মডার্নার প্রথম ডোজ টিকা নেয়ার পর শেষ ডোজ অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার নিলে শরীরে প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় বহুগুণ।

জার্মানির স্ট্যান্ডিং কমিটি অন ভ্যাকসিন বলছে, যারা প্রথম ডোজ কোভিশিল্ড নিয়েছেন তারা চাইলে শেষ ডোজ ফাইজার বা মডার্না নিতে পারেন। মিশ্র টিকা শরীরের জন্য বেশি কার্যকর। তবে তা নিতে হবে এক মাসের মধ্যে।

বিশ্বে মিশ্র ডোজ টিকা প্রয়োগকারী দেশগুলোর অন্যতম হলো জার্মানি। গত মাসে দেশটির চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মেরকেলও মিশ্র ডোজ নিয়েছেন। তিনি প্রথম ডোজ অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকা নেয়ার পর দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন মডার্নার টিকা।

জার্মান গণমাধ্যমগুলো বলছে, ৬৬ বছর বয়সী মেরকেল এপ্রিল মাসে অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকার প্রথম ডোজ নিয়েছিলেন। এপ্রিলে মেরকেলের মুখপাত্র তার টিকা নেয়ার একটি ছবি টুইট করেছিলেন। কিন্তু শেষ ডোজ তিনি নিয়েছিলেন মডার্নার টিকা।

বিশেষজ্ঞরা মনে করেন, করোনার টিকাগুলোর মিশ্র ডোজ একটি ভাল ধারণা হতে পারে তবে এ ব্যাপারে এখনি নিশ্চিত করে কিছু বলা যাচ্ছে না। এছাড়া প্রাণঘাতী করোনা ঠেকাতে মিশ্র টিকার ওপর জোর দিচ্ছে জার্মানি ছাড়াও একাধিক দেশ।

অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা নেয়ার পর শরীরে রক্তজমাট বাধার বিষয়টি সামনে আসার পর মার্চে জার্মানি ও ইউরোপের কয়েকটি দেশে এই টিকাদান স্থগিত করা হয়েছিল।

ডয়চে ভেলের প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে বিবিসি জানায়, জার্মানি এর আগে ৬০ বছরের বেশি বয়সীদের মধ্যে এই টিকাদানে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছিল, তবে বর্তমানে প্রাপ্তবয়স্ক সবাইকে এই টিকা দেয়ার কথা বলা হয়েছে। জার্মানির অর্ধেকের বেশি নাগরিক করোনা টিকার প্রথম ডোজ গ্রহণ করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

মন্ত্রিসভায় বৈষম্যবিরোধী আইনের খসড়ার অনুমোদন

স্টাফ রিপোর্টার: মানবাধিকার লঙ্ঘন প্রতিরোধে বৈষম্যবিরোধী আইন, ২০২২-এর খসড়ার নীতিগত ও চূড়ান্ত ...

চট্টগ্রামে ৩ ছিনতাইকারি গ্রেফতার

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি: ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে গন্তব্যে পৌঁছে দেওয়ার কথা বলে মাইক্রোবাসে তুলে জিম্মি ...