Home | আন্তর্জাতিক | বিশ্ব শিশুনাট্য দিবস খুলনার দাকোপের কামারখোলা ও সুতারখালি ইউনিয়নে ব্যাপক কর্মসূচী

বিশ্ব শিশুনাট্য দিবস খুলনার দাকোপের কামারখোলা ও সুতারখালি ইউনিয়নে ব্যাপক কর্মসূচী

এম শিমুল খান, খুলনা প্রতিনিধি,২০ মার্চ,বিডি টুডে ২৪ ডটকম : বিশ্ব শিশু নাট্য দিবস উপলে সমাজভিত্তিক শিশুবান্ধব কর্মসূচী (সিএফএসএমপি) প্রকল্পের প থেকে ব্যাপক কর্মসূচী গ্রহণ করা হয়েছে। কর্মসূচীর মধ্যে থাকছে শোভাযাত্রা, আলোচনা সভা, চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা ও  শিশু নাট্য দলের নাট্য প্রদর্শনী। খুলনার দাকোপ উপজেলার কামারখোলা ও সুতারখালী ইউনিয়নের ১৮টি শিশুবান্ধব কেন্দ্রে এ কর্মসূচী পালন করা হয়। এই দিবস পালনে  আনুমানিক ৪৫০০ জন শিশু ও ২০০০ সাধারন মানুষ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করে। বুধবার বিশ্ব শিশুনাট্য দিবস। আন্তর্জাতিক সংগঠন “ইন্টারন্যাশনাল এ্যাসোসিয়েশন ফর চিলড্রেন এন্ড ইয়থ পিপল (এসিটেজ)” এর উদ্যোগে ২০০১ সাল থেকে বিভিন্ন দেশ ২০ মার্চ বিশ্ব শিশুনাট্য দিবস পালন করে আসছে। বাংলাদেশের দণি-পশ্চিমাঞ্চলে রূপান্তর ২০০২ সাল থেকে নিজস্ব উদ্যোগে স্কুল পর্যায়ে শিশু নাট্যদল ও অধিকার বঞ্চিত শিশুদের নিয়ে বিশ্ব শিশুনাট্য দিবস পালন করে আসছে। আমাদের দেশের শিশুরা যে শিা ব্যবস্থার মধ্য দিয়ে বড় হয়ে ওঠে তার সাথে জীবনের ঘনিষ্ঠতা খুবই কম। এজন্য মানসম্মত শিা, মানবিক বিকাশ জাতির অগ্রগতিতে অপরিহার্য উপাদান। এই সত্যকে মেনে নিয়ে বলতে হয়, প্রতিটি মানব সন্তানের দেহ, মন ও সৃজনীশক্তির বিকাশই মানব সম্পদের বিকাশ। তাই দৈহিক, মানসিক, সৃজনশীল ও মননশীল বিকাশম শিা সমান্তরাল ভাবে চালু করা জাতিসত্ত্বার অগ্রগতির প্রশ্নে অপরিহার্য। উল্লিখিত কারণগুলোর সত্যতা অনুধাবন করে নাট্যকলা বিষয়টি শিায় যুক্ত করে শিশুদের সার্বিক অংশগ্রহণের মাধ্যমে ২০ মার্চ বিশ্ব শিশু নাট্য দিবস গুরুত্বের সাথে পালন করা উচিৎ। সামাজিক পরিবেশকে সুন্দর রাখতে ও শিশুর সুকুমার মানসিকতা গড়ে তোলা, সৌন্দর্যবোধ জাগ্রত করা ও নির্মল আনন্দদানের সাথে সাথে দেশীয় সংস্কৃতি সম্পর্কে জানা ও দেশপ্রেমবোধ জাগ্রত করার অপার সম্ভবনাময় দিকটির গুরুত্ব অনুধাবন করে শিশুদের জন্য নাট্য চর্চা একান্ত প্রয়োজন। আমরা জানি যে প্রতিটি শিশুর ১৮ বৎসর পর্যন্ত বয়সটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ সময়। কারণ এ সময়েই শিশু যে যোগ্যতা, দতা ও জ্ঞান অর্জন করে সেই সবের উপর ভিত্তি করে গড়ে উঠবে তার ভবিষ্যৎ। বর্তমান প্রাথমিক শিা ব্যবস্থায় যে কারিকুলাম আছে, সেখানে বলা হয়েছে একটি শিশু যখন ৫ম শ্রেণী উত্তীর্ণ হবে তখন সে ৫০টি প্রান্তিক যোগ্যতা অর্জন করবে। কিন্তু এ ব্যপারে এখনও পর্যন্ত চোখে পড়ার মতো তেমন কোন পদপে নেয়া হয়নি। থিয়েটার বিষয়টি বহুমূখী বিকাশধর্মী একটি তাত্ত্বিক ও ব্যবহারিক বিষয়, যা সম্পূরক শিা হিসাবে বিবেচ্য। সুস্থ্য জাতি গঠনে সুস্থ্য নাগরিক প্রয়োজন। সুস্থ্য নাগরিক অর্থে সুস্থদেহী ও সুস্থ্য মনের অধিকারী মানুষ। সুস্থ্য দেহের জন্য মুখ্য শর্ত সার্বিক ব্যায়াম। থিয়েটার শিণ পদ্ধতির মাধ্যমে দেহের ভাষা প্রয়োগ তথা শরীরচর্চা, কণ্ঠচর্চা, পর্যবেণ মতা, তাৎণিক উপস্থাপন এবং নান্দনিকতা ও সৃজনশীলতার চর্চার ভেতর থেকে শিশু যোগ্য নাগরিক হিসেবে নিজেকে গড়ে তুলতে সম হয়।

x

Check Also

বাংলাদেশের পতাকার রঙে আলোকিত হলো অস্ট্রেলিয়ার ব্রিসবেন

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক : অস্ট্রেলিয়ার কুইন্সল্যান্ডের রাজধানী ব্রিসবেনের দুটি মূল স্থাপনা স্টোরি ব্রিজ এবং ...

অবশেষে বৈঠকে বসছে ভারত ও পাকিস্তান

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক : দুই বছর পর সিন্ধুর জল বণ্টন নিয়ে মঙ্গলবার (২৩ মার্চ) ভারতের সঙ্গে ...