Home | জাতীয় | বাংলাদেশের উন্নয়নে ভরতের যথেষ্ট ভূমিকা রয়েছে : তথ্যমন্ত্রী

বাংলাদেশের উন্নয়নে ভরতের যথেষ্ট ভূমিকা রয়েছে : তথ্যমন্ত্রী

নওগাঁ প্রতিনিধি : স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে ২৬ মার্চ ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আগমন ঘিরে যে বিক্ষোভ হচ্ছে তার পেছনে বিএনপির ইন্ধন রয়েছে বলে জানিয়েছেন তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ও দলটির যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ এমপি। বিএনপির মহাসচিব মীর্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সেই গুমরটিই ফাঁস করে দিয়েছেন। মোদি বাংলাদেশে আসা নিয়ে মীর্জা ফখরুল প্রমাণ করেছেন তারা ভারত বিরোধী এবং বাংলাদেশের উন্নয়ন চায় না। বিএনপি ভারত বিরোধী রাজনীতি থেকে ফিরে আসতে পারেনি।

বুধবার দুপুরে নওগাঁর সাপাহার উপজেলার পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় স্কুল মাঠে উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে ভার্চয়ালি যুক্ত হয়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের তিন দিকে ভারত বিস্তৃত। দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হলে প্রতিবেশি দেশ ভারতের সাথে সুসম্পর্ক রাখতে হবে। মহান স্বাধীনতা যুদ্ধ থেকে শুরু করে এখন পর্যন্ত বাংলাদেশের উন্নয়নে তাদের যথেষ্ট ভূমিকা রয়েছে। ভারতের সাথে সুসম্পর্ক না রেখে আমাদের দেশের উন্নয়ন অগ্রগতি সম্ভব নয়। ভারত বিরোধী যে রাজনীতি দীর্ঘ দিন ধরে অনুসরণ করা হচ্ছে সেটি বাংলাদেশের উন্নয়নের জন্য সহায়ক নয়। বিএনপিকে সঠিক পথে ফিরে আসার আহবান তিনি।

তিনি বলেন, ভারত আমাদের পার্শ্ববর্তী দেশ হিসেবে মহান স্বাধীনতা যুদ্ধ থেকে শুরু করে এখন পর্যন্ত বাংলাদেশের উন্নয়নে তাদের যথেষ্ট ভূমিকা রয়েছে। কিন্তু বিএনপি বাংলাদেশের ভালো চায় না, উন্নয়ন চায় না বলেই ভারতবিরোধী ভূমিকা রেখে চলেছেন। ভারতের প্রধানমন্ত্রীর আগমন নিয়ে প্রশ্ন তোলার মধ্য দিয়ে বিএনপি প্রমাণ করেছে তারা ভারত বিরোধী বৈরতা ভুলতে পারেনি। আমাদের দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হলে প্রতিবেশি সাথের সুসম্পক রাখতে হবে। যে দেশ আমাদেও তিন দিকের সাথে বিস্তৃত সে দেশের সাথে সুসম্পক না রেখে আমাদের দেশের উন্নয়ন অগ্রগতি সম্ভব নয়। তাই বিএনপিকে আহবান জানানো এসব প্রশ্ন না তুলে সঠিত রাজনীতিতে ফিরে আসুন এবং ভারত বিরোধী যে রাজনীতি দীঘ দিন ধরে অনুসরন করে আসছেন সেটি বাংলাদেশের উন্নয়নের জন্য সহায়ক নয়।

এসময় খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেন, ‘আওয়ামী লীগ যেহেতু ক্ষমতায় রয়েছে সেজন্য আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের বিনয়ী হতে হবে। এমনভাবে জনগণের সঙ্গে মিশতে হবে যাতে তারা মনে কষ্ট না পান। আচার-আচারণে বিনয়ী হতে হবে। মানুষের সুখ-দুঃখে সব সময় পাশে থাকতে হবে।

সাপাহার উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শামসুল আলম শাহ্ চৌধুরীর সভাপতিত্বে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম কামাল হোসেন, স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যাবিষয়ক সম্পাদক ডা. রোকেয়া সুলতানা, নওগাঁ-২ আসনের সাংসদ শহিদুজ্জামান সরকার, নওগাঁ-৩ আসনের সাংসদ ছলিম উদ্দিন তরফদার, নওগাঁ-৫ আসনের সাংসদ ব্যারিস্টার নিজাম উদ্দিন জলিল, নওগাঁ-৬ আসনের সাংসদ আনোয়ার হোসেন হেলাল প্রমুখ। পরে শামসুল আলম শাহ্ চৌধুরীকে সভাপতি এবং মাসুদ রেজা সারোয়ারকে সাধারণ সম্পাদক করে তিন বছর মেয়াদী আংশিক কমিটি ঘোষনা করা হয়। সর্বশেষ ২০১৪ সালে সাপাহার উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

কঠোর লকডাউন এক সপ্তাহ বাড়ানোর পরামর্শ

স্টাফ রিপোর্টার: দেশে করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে কঠোর লকডাউন আরও এক সপ্তাহ বাড়ানোর ...

রামেকে করোনায় একদিনে ১৮ জনের মৃত্যু

রাজশাহী প্রতিনিধি: রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের করোনা ইউনিটে গত ২৪ ঘণ্টায় ...