ব্রেকিং নিউজ
Home | ব্রেকিং নিউজ | বাঁশদহ ইউনিয়নের ভূমি সহকারী কে জীবননাশের হুমকি ইউপি চেয়ারম্যানের

বাঁশদহ ইউনিয়নের ভূমি সহকারী কে জীবননাশের হুমকি ইউপি চেয়ারম্যানের

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি : সাতক্ষীরা সদরের বাঁশদহ ইউনিয়নের ভূমি সহকারী কর্মকর্তাকে জীবননাশের হুমকি দিলেন স্থানীয় চেয়ারম্যান।

ভূক্তভোগীর অভিযোগ ও এলাকাবাসীর সূত্রে জানা যায় অত্র ইউনিয়নের রেউই গ্রামের মাওলা বক্সের পুত্রের মনতাজউদ্দিন মির্জানগর মৌজার ১২৭০ নং হোল্ডিং এর ৭৮৬/১/১ নং খতিয়ানের খাজনা পরিশোধের দাখিলা কাটতে ২৭.০৯.২০২০ তারিখ সকালে সাতক্ষীরা সদর উপজেলা ১নং বাঁশদহ ইউনিয়ন ভূমি অফিসে যায় তখন ঐ অফিসে কর্মরত ভূমি সহকারী কর্মকর্তা শেখ আনিছুর রহমান ঐ ব্যক্তিকে তার ব্যবহার ভিত্তিক জমির খাজনা পরিশোধের কথা বলে এবং পূর্বের খাজনার রশিদ ও জমির নামপত্তনজারীর কাগজপত্র দেখাতে বলে, তখন মনতাজউদ্দিন কাগজ দেখাতে ব্যর্থ হয়ে ফিরে গিয়ে স্থানীয় বাঁশদহ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এস এম মোশারাফ হোসেন কে বিষয়টি জানান।

তখন চেয়ারম্যান মোশারাফ বেলা ১১টার দিকে ভূমি সহকারী কর্মকর্তার মোবাইলে ঐ কর্মকর্তাকে কাগজ ছাড়াই অত্র জমির খাজনা দাখিলার রশিদ কেটে দিতে বলে। তখন ঐ কর্মকর্তা চেয়ারম্যানকে জানায় আইন অনুযায়ী এবং পূর্বের কাগজপত্র দেখে তার সমস্যা সমাধান করে দিব। এক পর্যায়ে চেয়ারম্যান মোশারাফ ক্ষিপ্ত হয়ে বলেন এই অফিসে চাকরি করতে হলে কাগজপত্রের ন্যায় অন্যায় কিছু দেখা যাবে না, আইন বে-আইন দেখা যাবে না, আমি যেভাবেই বলবো সেভাবেই কাজ করে দিতে হবে, না করে দিলে তোমার এখানে চাকরি করা হবে না এবং তোমাকে আমি দেখে নেব।

এ ব্যাপারে উক্ত ভূমি অফিসের কর্মকর্তা শেখ আনিছুর রহমান জানায় আমি গত ২৮.০৯.২০২০ তারিখের ৩১.৪৪.৮৭৮২.০০০.১৯.০৫১.২০ নং স্মারকে আইনগত সুবিচার পাওয়ার জন্য সাতক্ষীরা সদর সহকারী কমিশনার (ভূমি) কে লিখিতভাবে জানিয়েছেন এবং বর্তমানে আমি নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। যে কোন মুহুর্তে সে আমাকে জীবনের চরম ক্ষয়ক্ষতি করতে পারে।

উল্লেখ্য ১নং বাঁশদহ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোশারাফ বহু অপকর্মের হোতা সরকারি অর্থ আত্মসাৎ সহ সরকারি কাজ না করে অর্থ আত্মসাৎ এর অভিযোগে অত্র ইউনিয়নে একাধিক ইউপি সদস্য সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসকসহ বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ করেন বিচারের দাবিতে। আরও জানা যায়, আরসিসি প্রজেক্টের চার লক্ষ টাকা কাজ না করে সম্পূর্ণ টাকাটাই পকেটে ভরেছে।

সম্প্রতি তার এহেন কর্মকাণ্ডের জন্য ইউনিয়নবাসী বিচারের দাবিতে সাতক্ষীরায় মানববন্ধন ও আলোচনা সভা করেন। আলোচনা সভায় এলাকাবাসী অভিযোগ করে বলেন, বিধবা ভাতা কার্ড প্রদানে ৩ হাজার টাকা, বয়স্ক ভাতা প্রদানে ২ হাজার টাকা এবং কর্মসূচির কাজ দেওয়ার নামে বেনিফিসারীর নিকট থেকে ১ হাজার টাকা নেওয়া সহ প্রতিবাদীদের হুমকি-ধামকিসহ গালিগালাজ করার অভিযোগ আছে।

এলাকাবাসী আরও বলেন, সম্প্রতি মির্জানগর দাখিল মাদ্রাসার সুপারকেও প্রকাশ্যে জীবননাশের হুমকিসহ নানা অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করেছে। শুধু তাই নয় ইউনিয়নবাসীকে ঐ দুর্নীতিবাজ ইউপি চেয়ারম্যান মোশারাফ যেমন খুশি তেমন ব্যবহার করে। আর যদি কেউ অন্যায়ের প্রতিবাদ করে তার বিরুদ্ধে নেমে আসে মোশারাফের পালিত গুণ্ডাবাহিনীর নির্যাতন।

ভূক্তভোগীরা আরও বলে সে আওয়ামী লীগ নেতা হওয়ায় যখন ইচ্ছা তাই করে। আমরা মোশারাফের এহেন কর্মকাণ্ডের জন্য দলীয় শাস্তিসহ সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসকের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

দেশের তথ্য দেশে রাখতে ডাটা প্রটেকশন আইন করার কথা ভাবছে সরকার : প্রতিমন্ত্রী পলক

বেনাপোল প্রতিনিধি : দেশের তথ্য দেশে রাখতে ডাটা প্রাইভেসি প্রটেকশন আইন করার কথা ...

রাজবাড়ী কোর্ট হাজতে আসামীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার

রাজবাড়ী প্রতিনিধি : রাজবাড়ী কোর্ট হাজত থেকে বৃহস্পতিবার (২৯ অক্টোবর) বিকেলে অস্ত্র ও ...