Home | ফটো সংবাদ | খালেদা জিয়াকে জামিন না দেওয়া অমানবিক :মির্জা ফখরুল

খালেদা জিয়াকে জামিন না দেওয়া অমানবিক :মির্জা ফখরুল

স্টাফ রির্পোটার : সরকারের হস্তক্ষেপে জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় খালেদা জিয়ার জামিন পিছিয়ে গেছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এছাড়া বিচারচলাকালীন মামলা ও বিবাদীর বিষয়ে বক্তব্য দিয়ে প্রধানমন্ত্রী আদালত অবমাননা করেছেন বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন তিনি।দুর্নীতির দুই মামলায় কারাবন্দি রয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। এর মধ্যে জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় আজ বৃহস্পতিবার খালেদা জিয়ার জামিন শুনানি হওয়ার পর পরবর্তী শুনানির জন্য দিন ধার্য করেছেন আদালত। খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য পরীক্ষার রিপোর্ট আদালতে পেশ করার কথা থাকলেও রিপোর্ট দিতে ব্যর্থ হয় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। এ নিয়ে আদালতে হট্টগোল করেন বিএনপিপন্থি আইনজীবী।

মির্জা ফখরুলের দাবি, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য পরীক্ষা সংক্রান্ত প্রতিবেদন গত রাতেই তৈরি হয়েছিল। কিন্তু সরকারের চাপের কারণে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তা আদলতে জমা দেয়নি।

সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগে খালেদা জিয়ার আপিল শুনানি সাত দিন পিছিয়ে দেওয়া এবং তার আইনজীবীদের মৌখিক আবেদন গ্রহণ না করায় সমগ্র জাতি শুধু হতাশই নয়, বিক্ষুব্ধও হয়েছে বলে মন্তব্য করেন মির্জা ফখরুল।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘অত্যন্ত বিস্ময় ও উদ্বেগের সঙ্গে লক্ষ্য করছি যে, ‘খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মামলার শুরু থেকেই সাধারণ মানুষ যে সুযোগ-সুবিধা পান তাকে সে সুযোগ দেওয়া হয়নি। এ ধরনের মামলায় সাত দিনের মধ্যে সাধারণত জামিন হয়। কিন্তু তার ক্ষেত্রে এটা হয়নি। তার জামিন পদে-পদে বাধা দেওয়া হচ্ছে। খালেদা জিয়াকে জামিন না দেওয়া প্রচলিত রীতিনীতির বিরুদ্ধই শুধু নয়, অমানবিকও বটে।’

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য প্রতিবেদন উপস্থাপন না করে আদালত অবমাননা করেছেন এমন দাবি করে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘বিএসএমএমইউ স্বাস্থ্য প্রতিবেদন উপস্থাপনের ব্যর্থ হওয়ায় আদালত অবমাননা করেছেন বলে আমরা মনে করি।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গতকাল (বুধবার) খালেদা জিয়াকে নিয়ে যে বক্তব্য দিয়েছেন সে বিষয়েও কথা বলেন বিএনপি মহাসচিব। বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য সরাসরি আদালতের ওপর হস্তক্ষেপের শামিল। প্রধানমন্ত্রী ও তার সরকার চান না খালেদা জিয়ার জামিন হোক। তিনি তাকে গডফাদার বলেছেন, বলেছেন রাজার হালে আছেন। এর মাধ্যমে তিনি বিএসএমএমইউ’কে ভয় দেখিয়েছেন।’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘খালেদা জিয়ার পরবর্তী চিকিৎসা না হলে তার মৃত্যুর আশঙ্কা রয়েছে। তার চিকিৎসার ক্রমাবনতি ও চিকিৎসা না হওয়ার দায়-দায়িত্ব সরকার প্রধানকে বহন করতে হবে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

টাঙ্গাইলে ফেন্সিডিল সহ দুই মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি : টাঙ্গাইলে ফেন্সিডিলসহ দুই মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১২ এর সদস্যরা। ...

কোটালীপাড়ায় মিথ্যা মামলার প্রতিবাদে ছাত্রলীগের সংবাদ সম্মেলন

কোটালীপাড়া (গোপালগঞ্জ) প্রতিনিধি : গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় মিথ্যা মামলার প্রতিবাদে ছাত্রলীগের সংবাদসম্মেল মঙ্গলবার ...