ব্রেকিং নিউজ
Home | আন্তর্জাতিক | অস্ট্রেলিয়ার সমুদ্র সৈকতে কবর দেয়া একটি তিমিকে কবর থেকে উত্তোলন

অস্ট্রেলিয়ার সমুদ্র সৈকতে কবর দেয়া একটি তিমিকে কবর থেকে উত্তোলন

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক : অস্ট্রেলিয়ার সমুদ্র সৈকতে কবর দেয়া ৪০ ফুট দীর্ঘ একটি তিমিকে কবর থেকে তোলা হয়েছে। গত সপ্তাহে নিউ সাউথ ওয়েলসে জেলেদের জালে আটকে আহত অবস্থায় ধরা পড়ে তিমিটি।

সমুদ্রে আহত ও বিপন্ন প্রাণী উদ্ধারকারী একটি সংগঠন বলছে, তিমিটি হয়ত ১৩ শত কিলোমিটার দূরে তাসমানিয়ায় জালে আটকা পড়েছিল। মারা যাবার পর তিমি মাছটির আকৃতির কারণে এটিকে সৈকতেই কবর দেয়া হয়।

কিন্তু বিপত্তি বাধে, তিমিটির লাশ অন্য কোথাও সরিয়ে নিতে হবে, এই দাবি নিয়ে স্থানীয় বাসিন্দারা হঠাৎই বিক্ষোভ শুরু করেন। তাদের আশংকা তিমির এই কবরের কারণে বছরের পর বছর ধরে ওই সৈকতে হাঙ্গর হানা দেবে। তাতে বিপন্ন হবে সমুদ্রের তীর ঘিরে স্থানীয়দের দৈনন্দিন কর্মকাণ্ড।

তবে, কর্তৃপক্ষ এ আশংকা উড়িয়ে দিয়ে বলেছে, এমন আশংকার কোন বৈজ্ঞানিক ভিত্তি নেই। কিন্তু তা সত্ত্বেও যেহেতু অনেক মানুষ এর বিপক্ষে, সে কারণে কর্তৃপক্ষ তিমিটিকে সরিয়ে নেবার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

নোবি সৈকত সংলগ্ন তিন হাজারের বেশি বাসিন্দার দায়ের করা এক পিটিশনের প্রেক্ষাপটে শেষ পর্যন্ত সোমবার কর্তৃপক্ষ তিমিটির লাশ কবর থেকে উত্তোলন করতে বাধ্য হয়েছে। পুরাকীর্তি স্থাপনায় মাটি খোঁড়ার কাজে যেসব বিশাল যন্ত্র ব্যবহার করা হয়, তেমন যন্ত্র কাজে লাগানো হয়েছে।

বিশাল তিমিটিকে কয়েক টুকরো করে কেটে সরিয়ে নেয়া হয়েছে মরদেহ। আর এ কাজে খরচ হয়েছে ৪০ হাজার মার্কিন ডলার। তিমিটি ছিল হাম্পব্যাক জাতের। এই জাতের তিমি প্রতি বছর অ্যান্টার্কটিকা থেকে অস্ট্রেলিয়া পর্যন্ত প্রায় ১০ হাজার কিলোমিটার পর্যন্ত পরিভ্রমণ করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর সাথে পর্তুগাল আওয়ামী লীগের মতবিনিময় সভা

আনোয়ার এইচ খান ফাহিম ইউরোপীয় ব্যুরো প্রধান, পর্তুগালঃ পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মোঃ শাহরিয়ার ...

বাংলাদেশ ও পর্তুগাল বর্ধিত আন্তঃ-সংসদীয় সহযোগিতায় সম্মত

আনোয়ার এইচ খান ফাহিম, ইউরোপীয় ব্যুরো প্রধান, পর্তুগাল: বাংলাদেশের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী জনাব ...