Home | জাতীয় | ৩৮তম ও ৩৯তম বিসিএসের পরীক্ষার তারিখ নির্ধারণ

৩৮তম ও ৩৯তম বিসিএসের পরীক্ষার তারিখ নির্ধারণ

স্টাফ রিপোর্টার : ৩৮তম ও ৩৯তম বিসিএসের পরীক্ষার তারিখ নির্ধারণ করেছে বাংলাদেশ সরকারি কর্মকমিশন (পিএসসি)।

মঙ্গলবার সকালে পিএসসির বিশেষ বৈঠকে ৩ আগস্ট ৩৯তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা ও ৮ আগস্ট ৩৮তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষা শুরু হবে বলে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

পিএসসির চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সাদিক গণমাধ্যমকে জানান, ‘৩৮তম ও ৩৯তম বিসিএসের পরীক্ষার দিন ধার্য করা হয়েছে। ৩ আগস্ট ৩৯তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা নেব ও ৮ আগস্ট ৩৮তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষা শুরু হবে। ৮ থেকে ১৩ আগস্ট এই বিসিএসের কম্পোলসারি বিষয়ের পরীক্ষা হবে। এ ছাড়া সেপ্টেম্বরের প্রথম সপ্তাহে ঐচ্ছিক বিষয়ের পরীক্ষা হবে। পাশাপাশি ৩৭তম বিসিএসের চূড়ান্ত ফল প্রকাশের জন্য কাজ চলছে।’

তবে কবে এই ফল প্রকাশ করা হবে, সে বিষয়ে নির্দিষ্ট করে কিছু বলেননি পিএসসি চেয়ারম্যান।

পিএসসি সূত্র জানায়, ৩৯তম বিসিএস হবে চিকিৎসক নিয়োগের জন্য বিশেষ বিসিএস। ৩৯তম বিশেষ বিসিএসের আবেদন কার্যক্রম শুরু হয় গত ১০ এপ্রিল, শেষ হয় ৩০ এপ্রিল। মোট ৩৯ হাজার ৯৫৪ জন প্রার্থী এ বিশেষ বিসিএসে আবেদন করেছেন।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সূত্র মতে, ৩৯তম বিসিএসে ৪ হাজার ৫৪২ জন সহকারী সার্জন আর ২৫০ জন সহকারী ডেন্টাল সার্জন নেওয়া হবে। সব মিলে প্রায় পাঁচ হাজার চিকিৎসক নেওয়া হবে এই বিসিএসে। তবে এই সংখ্যা আরও বাড়তেও পারে।

এর আগে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে প্রকাশিত প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, ৩৯তম বিশেষ বিসিএসের প্রিলিমিনারিতে এক কথায় লিখে পরীক্ষা হবে। এতে ২০০ নম্বরের প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে। এ ছাড়া ১০০ নম্বরের মৌখিক পরীক্ষা হবে।

মেডিকেল সায়েন্স বা ডেন্টাল সায়েন্স বিষয়ে ১০০ নম্বরের পরীক্ষা হবে। এ ছাড়া বাংলা, ইংরেজি, বাংলাদেশ বিষয়াবলি ও আন্তর্জাতিক বিষয়াবলিতে ২০ নম্বর করে এবং মানসিক দক্ষতা ও গাণিতিক যুক্তিতে ১০ নম্বর করে মোট ২০০ নম্বরের দুই ঘণ্টার লিখিত পরীক্ষা হবে।

প্রতিটি প্রশ্নের সঠিক উত্তরের জন্য ১ নম্বর দেওয়া হবে। তবে প্রতিটি ভুল উত্তরের জন্য কাটা হবে শূন্য দশমিক ৫০ নম্বর। লিখিত পরীক্ষায় পাস নম্বর পিএসসি নির্ধারণ করবে। মৌখিক পরীক্ষার পাস নম্বর ধরা হয়েছে ৫০। লিখিত পরীক্ষা শুধু ঢাকায় হবে।

এদিকে গত বছরের ২৯ ডিসেম্বর ৩৮তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়, যার ফল প্রকাশ হয় ২৮ ফেব্রুয়ারি। এতে ১৬ হাজার ২৮৬ জন উত্তীর্ণ হন। উত্তীর্ণরা এখন লিখিত পরীক্ষায় অংশ নেবেন। বিসিএসের আবেদনের ক্ষেত্রে ৩৮তম বিসিএসে রেকর্ড সৃষ্টি হয়। এতে ৩ লাখ ৮৯ হাজার ৪৬৮ জন প্রার্থী আবেদন করেন। এর আগে ৩৭তম বিসিএসে অংশ নেন ২ লাখ ৪৩ হাজার ৪৭৬ জন পরীক্ষার্থী।

পিএসসি সূত্র জানায়, ৩৮তম বিসিএসের মাধ্যমে জনপ্রশাসনে ২ হাজার ২৪ জন ক্যাডার কর্মকর্তা নিয়োগ করা হবে। এর মধ্যে প্রশাসন ক্যাডারের ৩০০, পুলিশ ক্যাডারের ১০০টি পদসহ ৩৮তম বিসিএসে সাধারণ ক্যাডারে মোট ৫২০টি, কারিগরি ও পেশাগত ক্যাডারে ৫৪৯টি এবং শিক্ষা ক্যাডারে ৯৫৫টি পদ থাকছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

জীবননগর পৌর মেয়রের পূজামন্ডপ পরিদর্শন ও মতবিনিময়

মামুন মোল্লা, চুয়াডাঙ্গা : চুয়াডাঙ্গার জীবননগর পৌর এলাকায় সনাতন হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের  শারদীয় দূর্গা ...

বাড়ির ছাদে সবজি চাষ

লালমনিরহাট প্রতিনিধি : লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলায় শখের বসে বাড়ির ছাদে সবজি চাষ করেছেন ...