ব্রেকিং নিউজ
Home | আন্তর্জাতিক | ২০ কেজি স্বর্ণ দিয়ে ৫০ জন শিল্পী দুইমাসে তৈরি করেছেন দুর্গা প্রতিমার শাড়ি

২০ কেজি স্বর্ণ দিয়ে ৫০ জন শিল্পী দুইমাসে তৈরি করেছেন দুর্গা প্রতিমার শাড়ি

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক : ভারতীয় ডিজাইনার অগ্নিমিত্রা পলের নকশায় ২০ কেজি স্বর্ণ দিয়ে ৫০ জন শিল্পী দুইমাসে তৈরি করেছেন দুর্গা প্রতিমার শাড়ি।

এই শাড়ির আগা-পাশ-তলা সোনায় মোড়ানো। পশ্চিমবঙ্গের লেবুতলার সন্তোষ মিত্র স্কয়ার সার্বজনীন পূজা উৎসবের মণ্ডবে এবছর দুর্গাকে দেখা যাবে ছয় কোটি রুপি মূল্যের এই শাড়ি গায়ে জড়াতে।

লেবুতলার সন্তোষ মিত্র স্কয়ার সার্বজনীন পূজার ঐতিহ্য প্রায় ৮২ বছর ধরে চলে আসছে। পূজার উদ্যোক্তা সজল ঘোষ বলেন, ‘প্রায় আট ফুট লম্বা এই শাড়ি তৈরিতে ২০ কেজি স্বর্ণ ব্যবহার করা হয়েছে। যার বাজার মূল্য প্রায় ছয় কোটি রুপি।’

পোশাক ডিজাইনার অগ্নিমিত্রা বলেন, ‘শুধু দুর্গা প্রতিমার শাড়িই হচ্ছে সোনায়৷ এমনকী কোনও সোনার গয়নাও নয়৷ এই শাড়ির নকশাই হয়ে উঠবে অলঙ্কার৷ সেইমতো শাড়িতে ফুল -পাতা -কল্কা -ময়ূর -প্রজাপতি দিয়ে ডিজাইন করেছি৷ গোটা শাড়িতে থাকছে ছিলে-কাটার কাজ।’

অন্যান্য প্রতিমার পোশাকে স্বর্ণের ব্যবহার না হলেও, সামঞ্জস্য রাখতে সকলের পোশাকেই সাদা রঙের ব্যবহার রয়েছে। র -সিল্কের সাদা শাড়ির সঙ্গে দুর্গার শকিং পিঙ্ক রঙের পাড়ে দেয়া হয়েছে গোল্ডেন জারদৌসির কাজ৷ লক্ষ্মী পরছেন সাদা ঢাকাই৷ তার সবুজ পাড়ে সিলভার জারদৌসি৷ সরস্বতীর পাড় সবুজ –ম্যাজেন্টা, তাতে গোল্ডেন জারদৌসি৷ কার্তিক পরছেন ইলেকট্রিক ব্লু কাঁথা স্টিচের পাড়, তাতে সিলভার জারদৌসি৷ গণেশ পরছেন লাল পাড়ের বালুচরী, তাতে থাকছে গোল্ডেন জারদৌসি৷ আর অসুরের সাদা ইক্কত, অরেঞ্জ পাড় ও গোল্ডেন জারদৌসির কাজ৷

ছয় কোটি রুপি মূল্যের শাড়ি পরিহিতা প্রতিমার নিরাপত্তায় থাকছে বিশেষ অটোম্যাটিক ইন্ট্যালিজেন্স সিকিউরিটি৷ চারদিক থেকে সিসিটিভি ঘিরে রাখবে মণ্ডপ৷ একটা নির্দিষ্ট দূরত্বের সামনে কেউ গেলেই, তাকে স্ক্যান করে ফেলবে এই টিভি৷লাল আলো জ্বলে উঠে, জানান দেবে অ্যালার্ম৷ যা বেজে উঠবে মণ্ডপে এবং থানায়।

আর বিসজর্নের সময়ে সোনার শাড়িটি খুলে নিয়ে প্রতিমা বিসর্জন করা হবে বলে জানালেন উদ্যোক্তা। তিনি বলেন, আসলে সোনার যে শাড়ি, সেটা কিন্তু একটা আলাদা সোনার পাত৷ যেটা প্রতিমার গায়ে চাদরের মতো পরত হিসেবে থাকবে। প্রতিমার শরীরে থাকবে মাটির রঙিন, কারুকাজের শাড়ি৷ সেই শাড়ির উপরই কাগজের ফর্মা বানিয়ে, হুবহু তৈরি হয়েছে এই শাড়ির পাত৷ যা স্পনসর করেছে কলকাতার সোনার গয়না প্রস্তুতকারক এক সংস্থা। প্রতিমা যখন গঙ্গার ঘাটে পৌঁছবেন, তখন তারা পরনের শাড়ি খুলে নেবেন এবং মাটির শাড়ি পড়েই কৈলাস ফিরে যাবেন দুর্গা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

সৌদি যুবরাজকে ইসরায়েল সফরের আমন্ত্রণ

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক:  সৌদি যুবরাজ মোহাম্মাদ বিন সালমানকে ইহুদিবাদী ইসরায়েল সফরের আমন্ত্রণ জানানো ...

কুড়িগ্রাম-৪ আসনে মনোনয়ন-প্রত্যাশীদের তৎপরতা

স্টাফ রিপোর্টার : রৌমারী ও রাজীবপুর উপজেলা এবং চিলমারীর তিনটি ইউনিয়ন নিয়ে ...