Home | ব্রেকিং নিউজ | ১৩ বছর পর ধানমন্ডি থানা আওয়ামী লীগের সম্মেলন

১৩ বছর পর ধানমন্ডি থানা আওয়ামী লীগের সম্মেলন

স্টাফ রিপোর্টার : southপ্রায় ১৩ বছর পর রাজধানীর ধানমন্ডি থানা আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতাদের উপস্থিতিতে এক জাকজমকপূর্ণ সম্মেলনের মধ্য দিয়ে সাবেক ধানমন্ডির সঙ্গে বর্তমানে ধানমন্ডি, কলাবাগান, হাজারীবাগ এবং নিউমার্কেট থানা আওয়ামী লীগের সম্মেলনের মধ্য দিয়ে নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়। এছাড়া একই মঞ্চে ঢাকা-১২ আসনের অন্তর্গত ৬টি ওয়ার্ড আওয়ামী লীগেরও নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়।

 

সদ্য ঘোষিত কমিটিতে ধানমণ্ডি থানার সভাপতি হয়েছেন কামাল আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম বাবলা। হাজারীবাগ থানার সভাপতি ইলিয়াছুর রহমান বাবু, সহসভাপতি সেলিম আহমেদ ও সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন সাদেক হামিদ সাজু। কলাবাগান থানায় নাজমুল করিম টিংকু ও নজরুল ইসলাম বাবুল সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন। নিউমার্কেট থানায় জসিম উদ্দিন সভাপতি ও হানিফ মিয়া সাধারণ সম্পাদক।

 

এছাড়া ১৪নং ওয়ার্ডে দিল জাহান ভূইয়া ও জাকির হোসেন খোকন সভাপতি-সম্পাদক, ১৫ নং ওয়ার্ডে সভাপতি- জাকির হোসেন স্বপন, সিনিয়র সহ সভাপতি খায়রুল কবির মুজিব ও সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন ফারুক হোসেন খান। ১৬ নং ওয়ার্ডে জমিল হোসেন পলাশ ও মো. আনোয়ার, ১৭ নং ওয়ার্ডে সালাউদ্দীন আহমেদ বারী ও মাহবুবুর রহমান যথাক্রমে সভাপতি সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন। ১৮নং ওয়ার্ডে সভাপতি শহীদুল কবির শহীদ, সিনিয়র সহসভাপতি সাত্তার মোল্লা ও সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন বিপ্লব সরকার। ২২নং ওয়ার্ডে শেখ মো. আখতার হোসেন ও আতিকুল ইসলাম সজীব সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন।

 

সম্মেলনের উদ্বোধন করেন ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এম এ আজিজ। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিম। সম্মেলনের সার্বিক আয়োজনে ছিলেন ঢাকা-১২ আসনের এমপি ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস। সম্মেলনের প্রথম অধিবেশন শেষে দ্বিতীয় অধিবেশনে সংশ্লিষ্ট ইউনিটগুলোতে নতুন নেতা নির্বাচিত করা হয়। গঠনতন্ত্র অনুযায়ী ভোটাভুটির মাধ্যমে নতুন নেতা নির্বাচনের কথা থাকলেও এক্ষেত্রে কেবল নাম প্রস্তাব করে উপস্থিত নেতাকর্মীদের মত নিয়েই কমিটি ঘোষণা করা হয়।

 

ধানমন্ডি থানায় সর্বশেষ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয় ১৯৯০ সালে বলে জানিয়েছেন মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ। এরপর ধানমন্ডির একটি থানা ভেঙে চারটি থানা করা হলেও কোনো সম্মেলন যাবত অনুষ্ঠিত হয়নি। ঢাকার অন্যান্য থানায়ও নির্বাচনের আগে এভাবে সম্মেলনের ইচ্ছা রয়েছে বলে জানিয়েছেন মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এম এ আজিজ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

চট্টগ্রামে ৩ ছিনতাইকারি গ্রেফতার

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি: ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে গন্তব্যে পৌঁছে দেওয়ার কথা বলে মাইক্রোবাসে তুলে জিম্মি ...

পার্বত্য অঞ্চল হবে সম্পদ শান্তিতে সমৃদ্ধ: পরিকল্পনামন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার: পার্বত্য চট্টগ্রামের সম্প্রীতি, সম্ভাবনা ও উন্নয়নের বিষয়টি বেশ জটিল, তবে ...