Home | ব্রেকিং নিউজ | হাজী দানেশ বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকদের অনির্দিষ্টকালের আন্দোলন : ক্লাশ ও পরীক্ষা বর্জন

হাজী দানেশ বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকদের অনির্দিষ্টকালের আন্দোলন : ক্লাশ ও পরীক্ষা বর্জন

দিনাজপুর প্রতিনিধি : কর্মরত শিক্ষকদের দাবি-দফা’র আন্দোলনে দিনাজপুর হাজী দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে সব ক’টি ( ১০টি ) অনুষদে ক্লাশ ও পরীক্ষা অনির্র্দিষ্ট কালের জন্য বন্ধ রয়েছে। আন্দোলনরত শিক্ষকদের দাবির প্রতি সমর্থন জানিয়ে শিক্ষার্থীদের একাংশ বিভিন্ন কর্মসূচিতে অংশ নিচ্ছে। এতে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে। শিক্ষক ধর্মঘটে সেশনজোটের আশংঙ্কাসহ সর্বচ্চো এই বিদ্যাপিঠে’র শিক্ষা কার্যক্রম অনিশ্চিত হয়ে পড়ায় উদ্বেগ প্রকাশ করছেন শিক্ষাবিদ ও সচেতন অভিভাবকরা।

শিক্ষকদের আন্দোলনে অনির্দিষ্টকালের কালের জন্য বন্ধ রয়েছে দিনাজপুর হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে সব ক’টি অনুষদে ক্লাশ ও পরীক্ষা । আন্দোলনরত শিক্ষকদের দাবির প্রতি সমর্থন জানিয়ে প্রশাসনিক ভবনের সামনে যৌথভাবে মানবন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে রসায়ন পদার্থ এবং গনিত অনুষদের শিক্ষক শিক্ষার্থীরা। শিক্ষকদের দাবি পুরনসহ লাঞ্ছনাকারিদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহনের দাবিতে ব্যানার ফ্যাস্টুন বহন করেছে তারা। এতে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে। ভেস্তে যাচ্ছে শিক্ষা কার্যক্রম।শিক্ষার্থীরা বলছেন, তাদের অভিভাবকরা শিক্ষা গ্রহণের জন্য পাঠিয়েছে এ বিশ্বদ্যালয়ে। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের অবহেলা,অনিয়ম আর শিক্ষকদের আন্দোলনের তোপের মুখে তাদের শিক্ষা জীবন ভেস্তে যাচ্ছে। এ থেকে তারা মুক্তি চেয়েছেন।

এদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ে বেতন বৈষম্যের অবসান, ইক্রিমেন্টের সুবিধা বহাল এবং একজন নারী শিক্ষিকাসহ সহকর্মী লাঞ্ছনার ঘটনায় জড়িত রেজিষ্টার , প্রক্টর এবং ছাত্র পরামর্শ ভিভাগের পরিচালককে বহিষ্কারের দাবীতে ১৫ নভেম্বর থেকে ক্লাস ও পরীক্ষা বর্জন করে প্রতীকি অনশন কর্মসূচি পালন করছে সদস্য পদোন্নতি পাওয়া ৫৭ জন সহকারি অধ্যাপক পদ মর্যাদার শিক্ষক। প্রশাসনিক ভবনের প্রবেশ পথের সিড়িতে কাফনের সাদা কাপড় মাথায় বেঁধে কর্ম দিবসে অবস্থান নিয়ে প্রতীকি অনশন কর্মসূচি পালন করছেন তারা। এছাড়াও ছাত্রীকে যৌন নির্যাতনে জড়িত সহকারি অধ্যাপক ড. রমজান আলী এবং সহকারি অধ্যাপক দীপক কুমারের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহনসহ ৬দফা দাবিতে ৫ নভেম্বর থেকে প্রগতিশীল শিক্ষক ফোরামের ৮২জন সদস্য শিক্ষক প্রশাসনিক ভবনের সামনে ঘন্টাব্যাপি অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছেন।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক প্রফেসর ড. শরিফুল ইসলাম ও আদিবা মেহজাবিন বিতু বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনের কারণে যেতো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটছে। এ পরিস্থিতি’র অবসান না হলে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা কার্যক্রম অনিশ্চিত হয়ে পড়বে।

লাঞ্ছিত সহকারি শিক্ষকদের দাবির প্রতি সমর্থন জানিয়ে ২০ নভেম্বর থেকে অনিদিষ্টকালের জন্য ক্লাশ পরীক্ষা বর্জন শুরু করেছেন প্রগতিশীল শিক্ষক ফোরামের ৮২জন সদস্য শিক্ষক। এ পরিস্থিতির জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিডি’কে দায়ী করছেন প্রগতিশঅল শিক্ষক ফোরাম-বিশ্ববিদ্যালয়ের শাখার যুগ্ম সম্পাদক প্রফেসর ড.এস.এম.হারুর উর রশিদ।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড, মু আবুল কাসেম এর সঙ্গে যোগাযাগ করা হলে তিনি বলেন, এমন কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেছে,যা আমার জানা নেই। তার পরও তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে । তিনি জানান,সংকট নিরসনে আলোচনার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে ।

শিক্ষকদের আন্দোলনে অচল হয়ে পড়েছে দিনাজপুর হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়। এ অবস্থা অব্যাহত থাকলে এ বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষা কার্যক্রম অনিশ্চিত হয়ে পড়বে এমনটাই আশংকা করছেন শিক্ষাবিদ এবং অভিভাবকরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

ড. কামাল কর ফাঁকি দিয়েছেন কিনা খতিয়ে দেখছে এনবিআর

স্টাফ রির্পোটার : জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ও গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেন ...

মেয়েদের সব ক্ষেত্রে সুযোগ দিতে হবে : প্রধানমন্ত্রী

স্টাফ রির্পোটার : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, মেয়েদের সব ক্ষেত্রে সুযোগ দিতে হবে। ...