Home | বিবিধ | কৃষি | হাওর রক্ষাবাঁধ পিআইসি গঠন হয় নি দুষচিন্তায় কৃষক

হাওর রক্ষাবাঁধ পিআইসি গঠন হয় নি দুষচিন্তায় কৃষক

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি : সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলায় নীতিমালা অনুযায়ী হাওর রক্ষাবাঁধের পিআইসি গঠনের সময় পেরিয়ে গেলেও এখন পর্যন্ত পিআইসিই গঠন হয়নি। ফলে হাওরে এক ফসলী বোরো ধানের ফসলরক্ষা বাঁধ নিয়ে কৃষকসহ সর্বস্থরের জনসাধারনের মাঝে চরম ক্ষোব বিরাজ করছে।

বিশ্বস্থ সুত্রে জানাযায়,তাহিরপুর উপজেলায় পিআইসির কমিটি গঠনের লক্ষ্যে সোমবার(১১,০১,২০২১)সভা আহবান করা হলেও অনেকেই চিঠি বা এই সভার বিষয়ে অবগত নন। ফলে সু-সময়ে কোকিল খ্যাত যাদেরকে এই বাধঁ নির্মানের সময়ই দেখা যায় অন্য সময় দেখা যায় না সেই সুবিধাবাধী একটি শক্তিশালী সিন্ডিকেটের লোকজন পিআইসি নিয়ে ফায়ঁদা নিতে দৌড় ঝাঁপ শুরু করায় প্রকৃত কৃষকদের কমিটিতে অংশ গ্রহন করা ও বাঁধ রক্ষা নিয়ে শংকা প্রকাশ করেছেন কৃষক পরিবার গুলো।

জানাযায়,হাওর এলাকায় বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের ক্ষতিগ্রস্থ বাঁধ মেরামত,নদী ও খাল পুনঃ খননের জন্য স্কীম প্রস্তুত ও বাস্তবায়নের লক্ষ্যে সংশোধিত কাবিটা নীতিমালা অনুযায়ী পিআইসি গঠন প্রক্রিয়া আবশ্যিকভাবে ৩০নভেম্বরের মধ্যে সম্পন্ন করে পিআইসি কমিটি গুলো ১৫ই ডিসেম্ভরের মধ্যে ফসলরক্ষা বাঁধের কাজ শুরু করে ২৮ফেব্রুয়ারির মধ্যে কাজ সমাপ্ত করার নির্দেশনা রয়েছে।

হাওর আন্দোলনের সঙ্গে সংশ্লিষ্টসহ হাওর পাড়ের কৃষক পরিবার গুলো বলেন,যারা কাবিটা মনিটরিং ও বাস্তবায়ন কমিটিতে থাকেন তাদের মধ্যে সমন্বয়হীনতার সঙ্গে কাজের প্রতিও উদাসীন থাকে। ফলে প্রতি বছরের মত এবার আলোচিত বিভিন্ন সংঘটনের পদধারীরা সুবিধা নিতে তদবির করে একটি শক্তিশালী সিন্ডিকেট তৈরী করে এবারও নতুন করে গোপনে পিআইসি নিতে চেষ্টা করছে। তাদের প্রতিহত করে যোগ্য কৃষক পরিবারের সদস্যদের কমিটিতে রাখা ও প্রকল্পে অতিরিক্ত বরাদ্ধ না দিয়ে প্রয়োজনীয় বরাদ্দ দিয়ে দ্রুত কাজ শেষ করার আহ্বান জানিয়েছেন।

এদিকে সদস্য সচিব ও তাহিরপুর উপজেলা পানি উন্নয়ন বোর্ডের উপ-সহকারি প্রকৌশলী রাকিবুল হাসান জানান,আগামীকাল(সোমবার)পিআইসি কমিটি গঠন করা হবে। জরিপ কাজ দেরী হওয়ায় কমিটি গঠনে দেরী হয়েছে। কমিটি গঠন হবে এই বিষয়ে সবাই অবগত না করা ও চিঠি পায় নি অনেকের অভিযোগ রয়েছে-এই বিষয়ে তিনি বলেন,সবাইকেই চিঠি দেয়া হয়েছে। চিঠি পায় নি এটা রাজনৈতিক বিষয়। চিঠি মেইলেও পাঠানো হয়েছে।

এবিষয়ে মনিটরিং কমিটির উপদেষ্ঠা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান করুনা সিন্ধু চৌধুরী বাবুল বলেন,দেরীতে বাঁধ নির্মানে পাহাড়ী ঢলের পানির ক্ষতির আশংকায় কৃষকের মধ্যে আত্নংক বিরাজ করছে। বাধঁ নির্মানে কোন অনিয়ম হলে কোন ছাড় দেওয়া হবে না। অনিয়ম হলেই সাথে সাথেই ব্যবস্থা নেয়া হবে। বাধঁ দ্রুত সময়ের মধ্যে শেষ করার জন্য আমি সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের সাথে কথা বলব।

শনির হাওড়,মাটিয়ান হাওড়সহ ছোট-বড় ২৩টি হাওড় গুরে কৃষকদের সাথে কথা বলে জানাযায়,শুরুতেই বাঁধ নির্মান কাজ বাস্তবায়ন করা গেলে বাঁধের কাজ মজবুত ও টেকসই হয় বলে জানিয়েছেন কৃষকরা। কিন্তু ১মাসের বেশী সময় পেরিয়ে গেলেও এখনও পর্যন্ত তাহিরপুর উপজেলায় ১০জানুয়ারী পর্যন্ত হাওরের ফসলরক্ষা একটি বাঁধের কাজ শুরু হয় নি।

দ্রুত বাঁধের কাজ শুরু করার দাবী জানিয়েছেন উপজেলার মাজিদুল ইসলাম,সাকের আলীসহ অনেকেইে বলেন,বাঁধ নিমার্ন শুরু না হওয়ায় এক ফসলী বোরো জমি রোপন ও বৈশাখ মাসে ধান কাটা নিয়ে সর্বস্থরের জনসাধারণের মাঝে চরম খুব বিরাজ করছে। আর উৎবেগ আর উৎকণ্ঠার সময় পার করছে পাহাড়ী ঢলের চিন্তায়।

উপজেলা কৃষি অফিস সুত্রে জানাযায়, উপজেলায় এবার বোরো ধান আবাদের লক্ষ্যমাত্র ১৭,৫২৭ হেক্টর নির্ধারণ করেছে কৃষি বিভাগ। এবছর সরকারের দেওয়া কৃষকদের বীজ,সারসহ সর্বাত্নক সহযোগীতার পাশাপাশি কৃষকদের বোরো আবাদে সার্বক্ষনিক পরার্মশ ও উৎসাহ দিচ্ছে। এ মৌসুমেও ভালো বোরো ধানের ফলনের আশাবাদী তাহিরপুর উপজেলা কৃষি অফিসার হাসান উদ দোলা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

রাণীনগরে ৩ জুয়ারীসহ আটক ৪

রাণীনগর (নওগাঁ) প্রতিনিধি : নওগাঁর রাণীনগর থানাপুলিশ পৃথক অভিযান চালিয়ে ৩ জুয়ারীসহ ...

হাতিয়ায় গৃহবধূকে বিবস্ত্র করে নির্যাতন, ফেসবুকে ভিডিও ভাইরাল

নোয়াখালী প্রতিনিধি : নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ায় স্বামীর অনুপস্থিতির সুযোগে স্থানীয় সন্ত্রাসীরা ঘরে ...