ব্রেকিং নিউজ
Home | সারা দেশ | হরতালের পক্ষে বিপক্ষে বিক্ষোভ জগন্নাথপুরের রাজনৈতিক অঙ্গন উত্তপ্ত \ পুলিশের বাঁধা

হরতালের পক্ষে বিপক্ষে বিক্ষোভ জগন্নাথপুরের রাজনৈতিক অঙ্গন উত্তপ্ত \ পুলিশের বাঁধা

pic-1মোঃ শাহজাহান মিয়া, জগন্নাথপুর : বিএনপিসহ ১৮ দলের ডাকা ৩ দফা হরতালের দ্বিতীয় দিনে সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার রাজনৈতিক অঙ্গন উত্তপ্ত হয়ে উঠে। হরতালের পক্ষে বিপক্ষে চার মুখি বিক্ষোভ মিছিলকে কেন্দ্র করে সর্বত্র উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। জগন্নাথপুরে দলীয় কোন্দলের কারণে আওয়ামীলীগ দুই ভাগে ও বিএনপি দুই ভাগে বিভক্ত থাকায় তারা পৃথক পৃথক ভাবে রাজনৈতিক মাঠে নামে। চার মুখি কর্মসূচি নিয়ে দলীয় নেতাকর্মীদের মধ্যে টানটান উত্তেজনা বিরাজ করে। রাজনৈতিক মাঠ দখল করতে সকলই মরিয়া হয়ে উঠে। চার মুখি বিক্ষোভকে কেন্দ্র করে রাজনৈতিক সংঘাত, দাঙ্গা, হাঙ্গামার আশঙ্কায় ব্যবসায়ীসহ সর্বস্তরের জনতার মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছিল। অপ্রীতিকর ঘটনা রোধে পুলিশ সর্বশক্তি নিয়ে মাঠে নামে।
গতকাল সোমবার টানটান উত্তেজনার মধ্য দিয়ে হরতালের দ্বিতীয় দিন পালিত হয়েছে। দুপুরের দিকে প্রথমে হরতালের সমর্থনে জগন্নাথপুর উপজেলা বিএনপি ও অঙ্গ-সংগঠনের উদ্যোগে সুনামগঞ্জ জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি সম্ভাব্য এমপি প্রার্থী লেঃ কর্ণেল অবঃ সৈয়দ আলী আহমদ ও আবু হোরায়রা ছাদ মাষ্টারের নেতৃত্বে বিক্ষোভ মিছিল বের হয়। মিছিলটি পৌর শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিন করে পৌর পয়েন্টে এসে পথসভায় মিলিত হয়। কিছুক্ষন পরে যুবলীগের প্রতিষ্টা বার্ষিকী উপলক্ষে সুনামগঞ্জ ৩ আসনের  এমপি এমএ মান্নান সমর্থিত জগন্নাথপুর উপজেলা আওয়ামীলীগ ও অঙ্গ-সংগঠনের উদ্যোগে সুনামগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি সিদ্দিক আহমদ ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আকমল হোসেনের নেতৃত্বে আনন্দ র‌্যালী বের হয়। এটি আনন্দ র‌্যালী হলেও বিভিন্ন ¯েøাগানের মধ্য দিয়ে হরতাল বিরোধী বিক্ষোভ মিছিল হিসেবে চালিয়ে দেয়া হয়। আনন্দ র‌্যালীটি পৌর শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিন করে পৌর পয়েন্ট হয়ে দলীয় কার্যালয়ে যাওয়ার পথে বড় ব্রিজে গেলে অপর দিক থেকে জগন্নাথপুর উপজেলা বিএনপি ও অঙ্গ-সংগঠনের যৌথ উদ্যোগে জাতীয়তাবাদী মুক্তিযোদ্ধা দলের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি সম্ভাব্য সুনামগঞ্জ ৩ আসনের এমপি প্রার্থী এমএ মালেক খাঁন, সুনামগঞ্জ জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি জসিম উদ্দিন শামীম ও জগন্নাথপুর পৌরসভার মেয়র উপজেলা বিএনপির সভাপতি আক্তার হোসেনের নেতৃত্বে হরতালের সমর্থনে সি/এ মার্কেট এলাকা থেকে পৃথক বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে বড় ব্রিজের সামনে আসলে উভয় দলীয় নেতাকর্মীদের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। উভয় মিছিল মুখোমুখি হলে রাজনৈতিক সংঘাত, দাঙ্গা, হাঙ্গামার আশঙ্কায় সর্বস্তরের জনতার মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছিল। এ সময় থানা পুলিশ তাদের সর্বশক্তি প্রয়োগ করে দুই মিছিলের মধ্যস্থানে অবস্থান নিয়ে  উদ্ভট পরিস্থিতি মোকালোয় ঝাঁপিয়ে পড়ে। পুলিশকে মধ্যস্থানে রেখে দুই দিক থেকে বারবার উভয় দলীয় বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা মিছিল নিয়ে যেতে চেষ্টা করলে উত্তেজনা আরো বেড়ে যায়। এ সময় পুলিশের সাথে বিএনপির নেতাকর্মীরা তর্কবিতর্কে জড়িয়ে পড়েন। এক পর্যায়ে উভয় পক্ষের নেতাদের সাথে তাৎক্ষনিক আলোচনা করে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। অবশেষে পুলিশের বাঁধার মুখে বিএনপির মিছিল পিছু হঠলে পরিস্থিতি শান্ত হয়। পরে বিএনপির নেতাকর্মীরা ফিরে আবার সি/এ মার্কেট এলাকায় গিয়ে পথসভায় মিলিত হন।
বেলা ২টার দিকে সুনামগঞ্জ ৩ আসনের সম্ভাব্য এমপি প্রার্থী সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী প্রয়াত  আলহাজ আব্দুস সামাদ আজাদের তনয় আজিজুস সামাদ ডন সমর্থিত জগন্নাথপুর পৌর আওয়ামীলীগের  উদ্যোগে পৌর আওয়ামীলীগের যুগ্ম-আহবায়ক হাজী শফিক আলী ভ‚ঁইয়া ও সদস্য সচিব জগন্নাথপুর পৌরসভার প্যানেল মেয়র আবাব মিয়ার নেতৃত্বে মোটরসাইকেল যোগে হরতাল বিরোধী বিক্ষোভ মিছিল বের হয়। মিছিলটি পৌর শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিন শেষে পৌর পয়েন্টে এসে পথসভায় মিলিত হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

কালিগঞ্জে মামলাবাজ তালেবের বিরুদ্ধে মানববন্ধন

আবু সাঈদঃ কালিগঞ্জের কুখ্যাত মামলাবাজ, পরসম্পদলোভী, চাঁদাবাজ আবু তালেবের গ্রেপ্তারের দাবীতে মানববন্ধন ...

মোল্লার চরে শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরণ

গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ গাইবান্ধা সদর উপজেলার মোল্লারচরে শীতার্ত মানুষের মাঝে গতকাল বিসিএস ক্যাডার ...