ব্রেকিং নিউজ
Home | ব্রেকিং নিউজ | সেই মাদ্রাসা ছাত্রের হত্যাকারী অধ্যক্ষ আটক

সেই মাদ্রাসা ছাত্রের হত্যাকারী অধ্যক্ষ আটক

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি : চুয়াডাঙ্গা জেলা পুলিশের তদন্তের জোরালো ভুমিকায় বেরিয়ে এসেছে একের পর এক  চাঞ্চল্যকর তথ্য। সকল গুজবের অবসান হয়েছে। আবারও চুয়াডাঙ্গা জেলা বাসীকে পুলিশ তাদের দক্ষতা ও যোগ্যতার প্রমান দিলেন । সত্য উৎঘাটনের জন্য পুলিশশ সুপার মাহবুবুর রহমান পিপিএম (বার)  কে সচেতন অভিভাবক মহল আন্তরিকভাবে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছেন।
সারাদেশে গলা কাটা বা মাথা কাটার গুজব  বাতাসের বেগে ছড়িয়ে পড়লেও বিষয়টি চুয়াডাঙ্গাতে প্রাথমিক ভাবে তেমনটা ছড়ায়নি । আর সেই সুযোগকে কাজে লাগিয়ে ঝোপ বুঝে মাদ্রাসার ১০ বছরের  শিশু ছাত্র আবির হোসাইন কে গলায় কোপ মারলেন স্বয়ং মাদ্রাসার অধ্যক্ষ আবু হানিফ। বলৎকারের বিষয়টি গোপন রাখতে এই হত্যাকান্ড ঘটিয়েছেন।
প্রায়ই তিনি কোমলমতী বিভিন্ন শিশু ছাত্রকে বলাৎকার করতেন। কয়েকমাস আগে আবিরের মা চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলার কয়রাডাঙ্গা গ্রামের নুরানী হাফিজিয়া মাদ্রাসায় ভর্তি করে। এর মধ্যে মাদ্রাসার অধ্যক্ষ আবু হানিফ তাকে বিভিন্ন সময়ে হুমকী ধামকী দিয়ে বলাৎকার করতো। বিষয়টি আবির অন্য ছাত্রদের কাছে জানিয়ে দেওয়ার কথা বলে। এরপর এ ঘটনা ধামাচাপা দিতে আবিরকে সন্ধ্যার পর পাশ্ববর্তী একটি আম বাগনে নিয়ে যায়। এবং সেখানে গলা টিপে শ্বাসরোধ করে আবিরকে হত্যা করে। এবং ধারালো ছুড়ি দিয়ে শরীর থেকে মাথা   বিচ্ছিন্ন করে বাগানে দেহ ফেলে মাথাটি মাদ্রার নিকটস্থ একটি পুকুরে ফেলে দেয়। এবং সে  মনে করেছিল যে  ছেলে ধরার গুজবের মধ্যে তার এ বিষয়টি কখনো কেউ বুঝতে পারবে না।  গত মঙ্গলবার বিষয়টি সংগঠিত হয়। সন্ধ্যার পর নিখোঁজ হয় আবির তারপর দিন বুুধবার সকালে আম বাগানে মস্তকহীন দেহ খুঁজে পাই এলাকাবাসী।  পরবর্তীতে চুয়াডাঙ্গার প্রতিটি অবিভাবক মহলে গুজবের  বিষয়টি  নিয়ে ভাবিয়ে তোলে।
তারা তাদের  সন্তানদেরকে গুজবের ভয়ে নিরাপত্তার সহিত স্কুলে পাঠায়। চুয়াডাঙ্গা জেলার পুলিশ সুপার মাহবুবুর রহমান পিপিএম( বার)    জেলার চারটি থানা এলাকায় প্রচারমাইকের মাধ্যমে জনগনকে আশস্ত করেন কোন গুজবে বিশ্বাস করবেন না। কাউকে সন্দেহজনক হলে তাকে পুলিশে সোপর্দ করুন। আইন হাতে তুলে নিবেন না। এরই মধ্যে ঘটে গেল মাথা কাটার ঘটনা। জেলাবাসী এক প্রকারে বিশ্বাস করেই নিয়েছিল ছেলেধরার  গুজবের বিষয়টি। মাদ্রাসা ছাত্র হোসাইনের মাথা কাটা লাশের খবর পেয়ে অভিভাবক মহল বাচ্চাদের স্কুলে যাওয়া বন্ধ করে দেয়।
মস্তকহীন মাদ্রাসা ছাত্র আবির হোসাইনের (১০)  শরীর থেকে মাথা বিচ্ছিন্ন লাশ উদ্ধারের ২৪ ঘন্টা পর পাশ্ববর্তী একশ গজ দুরের একটি পুকুর থেকে মাথা উদ্ধার করা হয়। পুলিশের তৎপরতায় ওই দিন মাদ্রাসার পাঁচজন শিক্ষককে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। সন্দেহভাজনদের নেওয়া হয় তাদের হাতের ছাপ।  প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের পর পুলিশ কিছু তথ্য উদ্ধার করে। এবং তদন্তের স্বার্থে সে তথ্য গোপন রেখে ঘটনার অন্তরালের খবর বের করার  জন্য এগিয়ে চলে পুলিশি তদন্ত। এরই মধ্যে চলে মৃতদেহের সকল ডাক্তারী পরীক্ষা। এবং লাশের শরীর থেকে বিভিন্ন নমুনা সংগ্রহ করা হয়।  ডাক্তারী পরীক্ষায় তার দেহে বলাৎকারের বিষয়টি উঠে আসে। ঘটনা মোড় নেয় অন্যদিকে সেই তথ্যের ভিত্তিতে  বৃহস্পতিবার সকালে মাদ্রাসার পাশ্ববর্তী একটি পুকুর থেকে আবিরের মাথাটি উদ্ধার করতে সক্ষম হয় খুলনা থেকে আগত একটি দক্ষ ডুবুরী দল। মাথা পাওয়ার সাথে সাথে সব গুজবের অবসান হয়। মুখ খুললেন চুয়াডাঙ্গা পুলিশ সুপার মাহবুবুর রহামান সাংবাদিকদের জানান আবির হত্যা  কোন ছেলে ধরার গুজব নয়। এটা অন্যভাবে প্রবাহিত করতে চেয়েছিল হত্যাকারী। আবিরকে বলাৎকার করে হত্যা করা হয়েছে। এবং এঘটনার সাথে স্বয়ং মাদ্রাসার অধ্যক্ষ আবু হানিফ জড়তি। তার বলৎকারের বিষয়টি ধামাচাপা দিতে গিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে মাথা কাটার গুজব বলে চালিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করে। যাতে সবাই বুঝতে পারে ছেলে ধরা তার মাথা কেটে নিয়ে গেছে। এ ঘটনার সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার মাদ্রাসার অধ্যক্ষ আবু হানিফ এবং পুলিশ সুপার সাংবাদিকদের এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
এদিকে এ মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা শেখ মাহবুবুর রহমান জানান আবু হানিফ ২০১৩ সালের দামুড়হুদা থানা পুলিশের ওপর হামলা মামলায় এজহার ভুক্ত আসামী এবং জামাতের একজন সক্রিয় নেতা। সে বলৎকারের ঘটনা ধামাচাপার পাশাপাশি  গুজব ছড়িয়ে দেওয়ার কথাও স্বীকার করে। এ বিষয়গুলো খতিয়ে দেখছে পুলিশ। মাদ্রসা শিক্ষককের এরকম নির্মম হত্যাকান্ড ঘটানো এবং মামলাটিকে অন্যখাতে প্রবাহিত করে নিজেকে আড়াল করতে চেয়েছিল। এরকম চাঞ্চল্যকর হত্যাকান্ডের সুষ্ঠ বিচারের দাবী জানান সন্তান হারা পরিবার সহ চুয়াডাঙ্গা জেলা বাসী। চুয়াডাঙ্গা জেলায় এই অপরাধের শাস্তি হোক চুয়াডাঙ্গার ইতিহাসে এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

মদনে ক্ষুদ্র নৃ—গোষ্ঠীর মধ্যে ভেড়া ও অন্যান্য উপকরণ বিতরণ

সুদর্শন আচার্য্য, মদন, নেত্রকোণা ঃ সমতল ভূমিতে বসবাসরত অনগ্রসর ক্ষুদ্র নৃ—গোষ্ঠীর মাঝে ...

What Is Cmmi? A Model For Optimizing Development Processes

Содержание Managed Processes Maturity Model Structure Do You Want To Implement The ...