Home | ফটো সংবাদ | সুপ্রিম কোর্টই ইমম্যাচিউর : তোফায়েল

সুপ্রিম কোর্টই ইমম্যাচিউর : তোফায়েল

স্টাফ রিপোর্টার :  সুপ্রিম কোর্টই ইমম্যাচিউর বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ও বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। তিনি বলেছেন, এই পার্লামেন্টকে ইমম্যাচিউর বলে আদালত যে মন্তব্য করেছেন, তা তার (আদালতের) এখতিয়ার নেই।

তিনি আরও বলেন, জিয়াউর রহমান এবং এইচএম এরশাদের আমলে মার্শাল ল’তে সুপ্রিম কোর্ট হাত মিলিয়েছিল। সামরিক সরকার আমলের সময় প্রধান বিচারপতিরাই রাষ্ট্রপতি হয়েছিলেন। বুধবার এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তোফায়েল আহমেদ ষোড়শ সংশোধনীর প্রসঙ্গ টেনে এসব কথা বলেন।

১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে বুধবার বিকেলে রাজধানীর বিএমএ মিলনায়তনে ওই আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। বিএমএ সভাপতি মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিনের সভাপতিত্বে এতে প্রধান বক্তা ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহম্মদ নাসিম।

ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায়ে আদালত যে পর্যবেক্ষণ দিয়েছে তাতে বিস্ময় প্রকাশ করেন তোফায়েল আহমেদ। তিনি বলেন, স্বাধীনতাযুদ্ধে বঙ্গবন্ধুর একক নেতৃত্ব নিয়ে আদালত যে প্রশ্ন তুলেছেন, তাতে অবাক হয়েছি। এতে মুক্তিযুদ্ধের মহান নেতা বঙ্গবন্ধুকে হেয় করা হয়েছে।

তিনি বলেন, সুপ্রিম কোর্ট তার পর্যবেক্ষণে এই সংসদকে অপরিপক্ক বলেছে। এটি বলার কোনো এখতিয়ার নেই আদালতের। এই সংসদই রাষ্ট্রপতি নিয়োগ দিয়েছে এবং রাষ্ট্রপতিই বিচারকদের নিয়োগ দিয়ে থাকেন। সংসদ সদস্যরা বিশ্ব পার্লামেন্টেও নেতৃত্ব দিচ্ছে। সুতরাং এমন মন্তব্য যারা করেন, তারাই অপরিপক্ক বলে আমি মনে করি।

তিনি পাকিস্তানের আদালতের প্রসঙ্গ টেনে বলেন, পাকিস্তানের আদালত রাজনীতিকদের বিরুদ্ধে বারবার অবস্থান নেয়, অথচ সামরিক সরকারের বিরুদ্ধে তারা কোনো ব্যবস্থা নিতে পারে না। এ কারণেই দেশটিতে আজও গণতন্ত্র প্রকাশ পায়নি। বাংলাদেশেও সামরিক শাসনের সঙ্গে হাত মিলিয়েছিল আদালত।

এ সময় তিনি ড. কামাল হোসেন এবং ব্যারিস্টার আমিরুল ইসলামের সমালোচনা করে বলেন, এই আইনজীবীরা জিয়াউর রহমানের সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিলের পক্ষে অবস্থান নিয়েছে। অথচ বঙ্গবন্ধু নিজের আসন ছেড়ে দিয়ে ড. কামালকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সংসদ সদস্য করেছিলেন। তখন তিনি প্রশ্ন তোলেননি। এখন সংসদের সমালোচনা করা হয়। তিনি বলেন, অনেক বিচারক আছেন যারা বিশ্ববিদ্যালয়ে আমার অনুজ। আজ তারাই বিদ্বান হয়ে গেছেন আর আমরা অশিক্ষিত, অপরিপক্ক হয়ে গেছি। কষ্ট লাগে।

দীর্ঘ আলোচনায় ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের প্রেক্ষিতে তিনি সুপ্রিম কোর্টের কড়া সমালোচনা করেন। বঙ্গবন্ধু, বঙ্গবন্ধু পরিবার এবং ১৫ আগস্টের স্মৃতিচারণ করে সবাইকে সতর্ক থাকারও আহ্বান জানান তোফায়েল আহমেদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

ষোড়শ সংশোধনী বাতিল: রায়ের সত্যায়িত কপি চেয়ে রাষ্ট্রপক্ষের আবেদন

স্টাফ রিপোর্টার :  সংবিধানের সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী অবৈধ ঘোষণা করে আপিল বিভাগের ...

তসলিমার ‘পর্ন’ প্রকাশ করায় ওলামা লীগ নেতার লিগ্যাল নোটিশ

স্টাফ রিপোর্টার :  নির্বাসিত লেখিকা তসলিমা নাসরিনের ‘পর্ন’ শিরোনামে একটি নিবন্ধ প্রকাশ ...