ব্রেকিং নিউজ
Home | ফটো সংবাদ | সহায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন চাই না: বিএনএফ

সহায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন চাই না: বিএনএফ

স্টাফ রিপোর্টার : প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনার অধীনেই একাদশ সংসদ নির্বাচন করার সুপারিশ করেছে বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট ফ্রন্ট (বিএনএফ)। মঙ্গলবার সকালে নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে সংলাপে অংশ নিয়ে সেনা মোতায়েনের বিপক্ষে মতসহ পাঁচ দফা প্রস্তাব দিয়েছে দলটি।

রাজধানীর আগারগাঁওয়ের নির্বাচন কমিশন ভবনে এই সংলাপ অনুষ্ঠিত হয়। প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদার সভাপতিত্বে সংলাপে অন্যান্য কমিশনাররা ছাড়াও ইসির ভারপ্রাপ্ত সচিব উপস্থিত ছিলেন।

সংলাপে বিএনএফ সভাপতি আবুল কালাম আজাদ এমপির নেতৃত্বে ২৭ সদস্যের প্রতিনিধি দল উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠক শেষে বিএনএফ সভাপতি সাংবাদিকদের বলেন, ‘নির্বাচনকালীন একটি সরকার থাকবে সেটা হবে সংবিধানের পঞ্চদশ সংশোধনীর আলোকে। পঞ্চদশ সংশোধনী অনুযায়ী সংসদ বহাল রেখে দশম সংসদের প্রতিনিধিত্বকারী দলসমূহকে নিয়ে বর্তমান প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে নির্বাচনকালীন সরকার গঠিত হবে। সংবিধানের ৫৬ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী নবম সংসদের সংসদ সদস্যদের মধ্য হতে এক দশমাংশ টেকনোক্রেট মন্ত্রী হিসেবে প্রধা্নমন্ত্রী নিয়োগ দিতে পারবেন। এ বিষয়ে বর্তমান সরকারের সঙ্গে রাজনৈতিক দলগুলো সংলাপের প্রস্তাব করেছি।’

আবুল কালাম আজাদ বলেন, ‘আমরা বিএনপির কথাও বলেছি। সংসদের বাইরে থাকা বিএনপি, এলডিপি, বিজেপি থেকে ইচ্ছা করলে প্রধানমন্ত্রী টেকনোক্রেট মন্ত্রী নিতে পারেন।’ তিনি বলেন, সহায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন চাই না। ইসির অধীনে নির্বাচন হবে। তখনকার সময়ের সরকার নির্বাহী কাজে সহযোগিতা করবে।

নির্বাচনে সেনা মোতায়েনের বিপক্ষে মত দিয়ে বিএনএফ সভাপতি বলেন, সব কাজে সেনাবাহিনী মোতায়েন করা ঠিক হবে না। তিনি বলেন, ‘সিইসি আমাকে প্রস্তাব দিয়েছে সব দলের প্রতিনিধি নিয়ে একটি সভা করার। তিনি বলেছেন এ ব্যাপারে আপনি উদ্যোগী হোন। আগামী দুই-এক মাসের মধ্যে এ সভার আয়োজন করবো বলে আশা করি।’

দলটির প্রস্তাবনাগুলো হলো- নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে প্রতিশোধের রাজনীতির পরিবর্তে সমঝোতার রাজনীতি প্রতিষ্ঠা করা, সকল নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলগুলোকে বাৎসরিক আর্থিক সহযোগিতা (থোক বরাদ্দ) দিতে কমিশনকে উদ্যোগ নেয়া, নির্বাচনে ইসির পক্ষ থেকে অভিন্ন পোস্টার, মঞ্চ ব্যবস্থা ও ভোটারসহ সংশ্লিষ্ট সবার নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা।

আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে ধারাবাহিক সংলাপের অংশ হিসেবে ২৪ আগস্ট থেকে নিবন্ধিত ৪০টি রাজনৈতিক দলের সঙ্গে সংলাপ করেছে ইসি। এরই ধারবাহিকতায় আজ বিএনএফের সঙ্গে বৈঠক করছে নির্বাচন কমিশন। এ নিয়ে ৩৬টি রাজনৈতিক দলের সঙ্গে সংলাপ করল নির্বাচন কমিশন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

রাশিয়া বিশ্বকাপে ৩২টি দলের মধ্যে সাতটি মুসলিম দেশ

স্পোর্টস ডেস্ক : আগামী বছরের জুন-জুলাই রাশিয়ায় বসবে ফিফা বিশ্বকাপের ২১তম আসর। ...

পদ না ছাড়ার ঘোষণা জিম্বাবুয়ের প্রেসিডেন্ট রবার্ট মুগাবের

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক : দলীয় প্রধানের পদ থেকে বহিষ্কারের পর প্রেসিডেন্টের পদ ছেড়ে ...