Home | জাতীয় | সন্ত্রাস, মাদক ও জঙ্গিমুক্ত রাখতে গিয়ে প্রতি বছর পুলিশ সদস্যদের মৃত্যুর সংখ্যা বাড়ছে:আইজিপি

সন্ত্রাস, মাদক ও জঙ্গিমুক্ত রাখতে গিয়ে প্রতি বছর পুলিশ সদস্যদের মৃত্যুর সংখ্যা বাড়ছে:আইজিপি

স্টাফ রির্পোটার : দেশকে সন্ত্রাস, মাদক ও জঙ্গিমুক্ত রাখতে গিয়ে প্রতি বছর পুলিশ সদস্যদের মৃত্যুর সংখ্যা বাড়ছে বলে জানিয়েছেন পুলিশ মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. জাবেদ পাটোয়ারী। গত বছর ৫৫০ সদস্যকে পুলিশ হারিয়েছে বলে জানান বাহিনী প্রধান। রবিবার দুপুরে মিরপুরে পুলিশ স্টাফ কলেজে ‘পুলিশ মেমোরিয়াল ডে-২০২০’ অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন আইজিপি।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিব মোস্তফা কামাল ও র‌্যাবের মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ। পুলিশপ্রধান বলেন, ‘প্রতিবছর আমাদের মধ্য থেকে পুলিশ সদস্যদের মৃত্যুর সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। তাদের ওপর অর্পিত দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে দায়িত্বরত অবস্থায় মৃত্যুবরণ করছেন। গত বছর আমাদের ৫৫০ জন সদস্য হারিয়েছি। যাদের মধ্যে অনেকে স্বাভাবিকভাবে মৃত্যুবরণ করেছেন, কর্তব্যরত অবস্থায় মারা গেছেন ১৭৯ জন। দেশের জন্য তাদের এই সর্বোচ্চ আত্মত্যাগ পুলিশ কৃতজ্ঞচিত্তে স্মরণ করবে।’ জাবেদ পাটোয়ারী বলেন, ‘পুলিশের যে কয়টি অনুষ্ঠান হয়ে থাকে তার মধ্যে এই অনুষ্ঠানটি (পুলিশ মেমোরিয়াল ডে) সবচেয়ে আবেগঘন। এখানে সহকর্মীর বঞ্চনা, আর্থিক অনটন শুনি, যা খুবই মর্মাতি¦ক। গত বছরের মার্চ মাস থেকে এই মার্চ পর্যন্ত আমাদের যেসব সহকর্মী মৃত্যুবরণ করেছে; তাদেরকে আমরা ঢাকাতে স্মরণ করি। এছাড়া নিহতদের পরিবার ও স্বজনদের সঙ্গে কিছুটা সময় অতিবাহিত করি।

দেশকে সন্ত্রাস, মাদক ও জঙ্গিমুক্ত নিরাপদ রাখতে পুলিশ কাজ করছে জানিয়ে বাহিনী প্রধান বলেন, ‘পুলিশের প্রতিটি সদস্য পরম মমতায় তার দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছে। প্রতিটি ক্লান্তিকালে পুলিশ সদস্যরা তাদের জীবন উৎসর্গ করেছেন। আমি তাদের সবাইকে গভীরভাবে স্মরণ করছি।

বঙ্গবন্ধুর ডাকে সাড়া দিয়ে ২৫ মার্চের রাতে পুলিশ সদস্যরা রাজারবাগে পাক হানাদার বাহিনীর আক্রমণ রুখে দিয়েছিল। প্রতিরোধ যুদ্ধে প্রথম বুলেটটি ছুড়েছিল আমাদের সেই পূর্বসূরি পুলিশ সদস্যরা। তাদের অনেকে ২৫ মার্চের কালরাতে জীবন দিয়েছিল। নয় মাসব্যাপী যুদ্ধ করে যেসব অকুতোভয় মুক্তিযোদ্ধা তাদের জীবন উৎসর্গ করেছেন তাদের পরম শ্রদ্ধায় স্মরণ করছি।

ড. জাবেদ পাটোয়ারী বলেন, ‘১৯৭১ সালে নয় মাস যুদ্ধ করে আমাদের প্রায় ১২শ সদস্য জীবন বিসর্জন দিয়েছেন। পরবর্তী সময়ে সন্ত্রাস দমন করতে গিয়ে আমাদের ১৯ জন এবং কয়েকশ সদস্য পঙ্গুত্ববরণ করেছেন। জঙ্গিবাদ রুখে দিতে গিয়ে নয়জন সদস্য জীবন বিসর্জন দিয়েছেন এবং অনেকে আঘাত প্রাপ্ত হয়ে পঙ্গুত্ববরণ করেছেন।যেকোনো দুর্যোগে এই বাহিনীর পেশাদার সদস্যরা ধৈর্য, নিষ্ঠা এবং দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে তাদের অর্পিত দায়িত্ব পালন করছে বলে জানান পুলিশপ্রধান।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

না.গঞ্জে উন্নয়নবিমুখ রাজনীতির ভরাডুবি হয়েছে: কাদের

স্টাফ রিপোর্টার: আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন ...

মন্ত্রিসভায় বৈষম্যবিরোধী আইনের খসড়ার অনুমোদন

স্টাফ রিপোর্টার: মানবাধিকার লঙ্ঘন প্রতিরোধে বৈষম্যবিরোধী আইন, ২০২২-এর খসড়ার নীতিগত ও চূড়ান্ত ...