ব্রেকিং নিউজ
Home | আন্তর্জাতিক | সত্যিকারের একজন অভিভাবক হারালাম: প্রধানমন্ত্রী

সত্যিকারের একজন অভিভাবক হারালাম: প্রধানমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার, ২৩ মার্চ, বিডিটুডে ২৪ডটকম : প্রয়াত রাষ্ট্রপতি মোহাম্মদ জিল্লুর রহমান সম্পর্কে আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘সত্যিকারের একজন অভিভাবক হারালাম। সংকট এলেই তার কাছে গিয়ে পরামর্শ নিয়েছি। পরামর্শ নেয়ার জায়গাটুকুও আমার থাকলনা।’

শনিবার গণভবনে আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সংসদের সভায় সূচনা বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। প্রধানন্ত্রীর সূচনা বক্তব্যের পর মোহাম্মদ জিল্লুর রহমানের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে শোক প্রস্তাব গ্রহণ করে সভা মুলতবি করা হয়।
প্রধানমন্ত্রী এদিনের সভা প্রয়াত রাষ্ট্রপতির স্মৃতির প্রতি উৎসর্গ করেন। পরে দলের দপ্তর সম্পাদক আব্দুল মান্নান শোক প্রস্তাব পাঠ করেন এবং সর্বসম্মতিক্রমে গ্রহণ করেন। এসময় এক মিনিট দাড়িয়ে নিরবতা পালন করা হয়।
সভার শুরুতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘প্রয়াত রাষ্ট্রপতি মোহাম্মদ জিল্লুর রহমান কোনো ঘাত-প্রতিঘাতে কখনো নীতি-আদর্শের বাইরে যাননি। এমন একটি সময়ে তিনি চলে গেলেন যখন তার বড় প্রয়োজন ছিল। আওয়ামী লীগের সব দুরবস্থায় তিনি হাল ধরেছিলেন। তিনি ওয়ান-ইলেভেনের সময় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা না রাখলে দেশে গণতন্ত্র ফিরে আসত না।’
তিনি বলেন, ‘ভাষা আন্দোলন থেকে প্রতিটি গণতান্ত্রিক আন্দোলনে তার ভূমিকা ছিল। প্রতিটি সংকটকালে তিনি শক্ত হাতে হাল ধরেছেন। ২০০৮ সালে রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হওয়ার পর তিনি অনেক দায়িত্ব পালন করেছেন।’
নির্বাচন কমিশন গঠনে রাষ্ট্রপতির জোরালো ভূমিকার কথা উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘এই প্রথম বাংলাদেশে সার্চ কমিটির মাধ্যমে নির্বাচন কমিশনার নিয়োগ দেয়া হয়েছে। এ উদ্যোগ নিয়েছেন রাষ্ট্রপতি। সুশীল সমাজ থেকে ধরে সব রাজনৈতিক দল এমনকি বিরোধী দলও তার আহ্বানে সাড়া দিয়েছিল। যদিও এর কোনো সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতা ছিল না। এটি একটি বিরল ঘটনা।’
তিনি বলেন, ‘একজন ভালো মানুষ বলেই এত সম্মান তিনি পেয়েছেন। দায়িত্ব পালনকালে কোনো রাষ্ট্রপতির এমন স্বাভাবিক মৃত্যু হয়নি। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু ও জিয়াউর রহমানও এমন রাষ্ট্রীয় সন্মান পাননি। তিনি সকল দলমত, নির্বিশেষে সকলের শ্রদ্ধা পেয়েছেন।’
প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘জাতির জনকের সঙ্গে যারা ৪৬ সাল থেকে রাজনীতি শুরু করেছিলেন, তাদের মধ্যে একমাত্র রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমানও ছিলেন। এখন তিনিও আমাদের মাঝে থেকে বিদায় নিলেন।’
সৈয়দ আশরাফ বলেন, ‘আজ আমরা শোকাহত। গোটা জাতি আজ স্তব্ধ। জিল্লুর রহমানের মতো মানুষ দ্বিতীয়টি আর খুঁজে পাওয়া যাবেনা।’
এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী, আব্দুল লতিফ বিশ্বাস, শেখ ফজলুল করিম সেলিম, কাজী জাফরুল্লাহ, বেগম মতিয়া চৌধুরী, মোহাম্মদ নাসিম, সাহারা খাতুন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ, দিপু মনি, জাহাঙ্গীর কবির নানকসহ আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সংসদের প্রায় সকল সদস্য।
x

Check Also

‘গ্রেটার সিলেট এসোসিয়েশন ইন স্পেন’ নির্বাচনে মুজাক্কির – সেলিম প্যানেল বিজয়ী

জিয়াউল হক জুমন, স্পেন প্রতিনিধিঃ সিলেট বিভাগের চারটি জেলা নিয়ে গঠিত গ্রেটার ...

পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর সাথে পর্তুগাল আওয়ামী লীগের মতবিনিময় সভা

আনোয়ার এইচ খান ফাহিম ইউরোপীয় ব্যুরো প্রধান, পর্তুগালঃ পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মোঃ শাহরিয়ার ...