Home | ব্রেকিং নিউজ | শার্শায় ৩১ জন মুক্তিযোদ্ধা শর্ত সাপেক্ষে ভাতা গ্রহণ; সনদ জালের অভিযোগ

শার্শায় ৩১ জন মুক্তিযোদ্ধা শর্ত সাপেক্ষে ভাতা গ্রহণ; সনদ জালের অভিযোগ

বেনাপোল প্রতিনিধি : যশোরের শার্শা উপজেলায় ভূয়া মুিক্ত যোদ্ধা সেজে ভাতা উঠিয়ে নেয়ার অভিযোগ রয়েছে বেশ ক’জনার বিরুদ্ধে।মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় ভারতীয় তালিকায় লাল মুক্তি বার্তায় নাম না থাকায় ৩১ জন মুক্তিযোদ্ধাকে শর্ত সাপেক্ষে নন জুডিশিয়াল ষ্টাম্পে মাধ্যমে ভাতা প্রদানের নির্দ্দেশ দিয়েছে মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রনালয় এ সংক্রাšেত যশোর জেলা প্রশাষকের কার্যালয়ের স্বারক নং- ১৩০(২০), তাং ১৯/২/১৯, ও মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রনালয়ের স্বারক নং- ২০১৭(অংশ-১) ৫৮ তাং- ১১/২/১৯ তারিখের স্বারক পত্রে জানা গেছে

শার্শা উপজেলার ৩১ জন মুক্তিযোদ্ধার ভারতিয় তালিকায় লাল মুক্তি বার্তায় নাম না থাকায় তাদের কে তিন’শ টাকার জুডিশিয়াল ষ্টাম্পে স্বাক্ষর করে মুক্তি যোদ্ধা ভাতা সহ সকল সুযোগ সুবিধা গ্রহণের নির্দ্দেশনা এসেছে।দীর্ঘর্দিন ধরে তারা কোটি কোটি টাকা সরকারী ভাতা গ্রহন করেছে মুক্তি যোদ্ধার কোঠায়।

উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা আব্দুল ওহাব এক স্বাক্ষাতকারে বলেন যাদেরকে নন জুডিশিয়াল ষ্টাম্প এর মাধ্যমে মুক্তিযোদ্ধা ভাতা সহ সকল সুযোগ সুবিধা গ্রহণ করছেন, তারা হলেন ডিহি ইউনিয়নের র”হুল আমিন, আবুল কাসেম, মৃত সামছুল হক, মৃত আবুল খায়ের, লক্ষণপুর ইউনিয়নের নূর ইসলাম, মৃত রওনক আলী, সিরাজুল ইসলাম, বাহাদুরপুর ইউনিয়নের রবিউল ইসলাম, মৃত আয়নাল হক, মৃত মঙ্গল মোড়ল, মৃত মাওলা বক্স, বেনাপোল ইউনিয়নের বাবুল মন্ডল, ছামসুল হুদা, হানিফ কাজী, নুর”ল ইসলাম, মৃত রফিক উদ্দিন, মৃত আনছার মন্ডল, মৃত হাবিলদার নজর”ল ইসলাম, পুটখালি ইউনিয়নের মোজ্জামেল হক, আলতাফ হোসেন, মৃত আব্দুর রহমান, গোগা ইউনিয়নের হাবিবুর রহমান, কায়বা ইউনিয়নের বিরঙ্গনা রহিমা খাতুন, বাগআঁচড় ইউনিয়নের সিরাজুল ইসলাম, বিরঙ্গনা মাজেদা খাতুন, মৃত মোফিজ উদ্দিন, বিরঙ্গনা মৃত মোমেনা খাতুন, শাশা ইউনিয়নের সাবেক সেনা সদস্য নবির হোসেন, সিরাজুল ইসলাম ও মৃত মকছেদ আলী সহ ৩১ জন।

শার্শা উপজেলায় বর্তমানে ২৭৯ জন মুক্তিযোদ্ধা ভাতা সহ সকল সুযোগ সুবিধা নিচ্ছেন। সম্প্রতি গত ২৩ জানুয়ারি মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রি যশোরে মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন উদ্বোধন কালে মুক্তিযোদ্ধাদের উদ্দ্যেশে বলেছেন আগামী ২৬শে মার্চের মধ্যে ১ লক্ষ প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধাদের গেজেট আকারে প্রকাশিত হবে। তিনি আরো বলেন উপজেলা পর্যায়ে মুক্তিযোদ্ধাদের পুনঃরায় যাচাই-বাছাই করা হবে না। মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রালয় প্রয়োজন বোধে সঠিক কাগজপত্র প্রমানাদী দেখিয়ে মুক্তিযোদ্ধা হতে হবে। এ ঘোষণায় পর থেকে বহু মুক্তিযোদ্ধা ভিত সন্ত্রস্ত অবস্থায় রয়েছে। অভিযোগ রয়েছে অনেকেই মুক্তিযোদ্ধা না হয়েও ভুয়া সনদ সগ্রহ করে দীর্ঘ দিন ধরে সরকারের কোটি কোটি টাকা নিজেদের পকেটস্থ করছেন বলে অিভযোগ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

রোববার থেকে সব বেসরকারি টিভি চ্যানেল বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটে

স্টাফ রিপোর্টার : অবশেষে মহাকাশের বুকে মাথা উঁচু করে ঠাঁই নেয়া বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের ...

‘খালেদা জিয়া কিছু খেতে পারছেন না’

স্টাফ রিপোর্টার : বিএনপির কারাবন্দী চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া গত দুই-তিন দিন ধরে ...