ব্রেকিং নিউজ
Home | শিক্ষা | শরীয়তপুরে প্রাইমারী স্কুলের বদলীকৃত শিক্ষক ফিরিয়ে দেয়ার দাবীতে স্কুলে তালা

শরীয়তপুরে প্রাইমারী স্কুলের বদলীকৃত শিক্ষক ফিরিয়ে দেয়ার দাবীতে স্কুলে তালা

shariatpur school pic  (2)আবুল হোসেন সরদার, শরীয়তপুর প্রতিনিধি : শরীয়তপুর সদর উপজেলার পশ্চিম চরোসুন্দি সরকারী প্রাথামিক বিদ্যালয়ের এক শিক্ষককে অন্যত্র ডেপুটেশনে দেয়ার কারনে স্কুলের লেখা পড়ার ব্যাহত হওয়ায় অভিভাবক ও ম্যানেজিং কমিটির সদস্যরা স্কুলে তালা দিয়ে শিক্ষককে ফিরিয়ে দেয়ার জন্য দাবী জানায় অন্যথায় এ স্কুল থেকে তাদের ছেলে মেয়েকে অন্যত্র নিয়ে যাওয়ার হুমকি দেয়।।জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা বলছেন চাপের মুখে রাজনৈতিক প্রভাব খাটিয়ে ডেপুটেশন বাতিলের আদেশ বাতিল করানো হয়েছে।
শরীয়তপুর সদর উপজেলার পশ্চিম চরোসুন্দি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রনজিৎ কুমার সাহা জানান,শরীয়তপুর সদর উপজেলার ২৬ নং পশ্চিম চরোসুন্দি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বরাদ্ধকৃত ৬টি পদের মধ্যে  ২টি পদ ২০১১ সালের আগষ্ট মাসে  কর্তন করা হয়েছে। পরে  ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আঃ মান্নান সরদারের আবেদনের  পরে ও কোন সুরাহা করা হয়নি ।এর পর ৪ জন শিক্ষকের মধ্যে সহকারী শিক্ষক রামকৃষ্ণ সাহা কে ২০১১ সাল থেকে  দীর্ঘ দিন ডেপুটেশনে পৌর এলাকার ৪০ নং কাশাভোগ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে দিয়ে রাখা হয়েছে। গত ১৭ জুলাই ২০১৩ তারিখে স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আঃ মান্নান বন্দুকচির এক আবেদনের প্রেক্ষিতে শরীয়তপুর-১ আসনের  সাংসদ বিএম মোজাম্মেল হক ডেপুটেশন বাতিলের জন্য সুপারিশের প্রেক্ষিতে গত ১ সেপ্টম্বর ডেপুটেশন বাতিল করা হয়। কিন্তু পরবর্তীতে জেলা আওয়ামঅলীগের সাধারন সম্পাদক অনল কুমার দে ও শরীয়তপুর পৌর প্যানেল মেয়র আওয়ামীলীগ নেতা  সঞ্জীব কুমার নাগ এর রাজনৈতিক চাপের মুখে  ১ সপ্তাহের মধ্যে ডেপুটেশন বাতিলের আদেশ বাতিল করা হয়। বর্তমানে উক্ত বিদ্যালয়ে ৩ শ ১১ জন ছাত্র/ছাত্রিদের  জন্য মাত্র ৩ জন শিক্ষক দ্বারা পাঠদান করা কঠিন হয়ে পড়েছে। এতে করে বিদ্যালয়ের লেখা পড়ার  মারাতœক ব্যাহত হয়। তাই রোববার সকালে অভিভাবক ও বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সদস্যরা ডেপুটেশন শিক্ষক রাম কৃষ্ণ সাহা কে অনতি বিলম্বে ফিরিয়ে দিতে এবং কর্তনকৃত পদ ২টি পুর্নবহালের দাবীতে অনিদিষ্টি কালের জন্য স্কুলে শ্রেণী কক্ষে তালা লাগিয়ে দেয়। তাদের দাবী মানা না হলে ছেলে মেয়েদের অন্য বিদ্যালয়ে নিয়ে যাওয়ার হমকি দেয়।
৫ম শ্রেণীর ছাত্র জোবায়ের হোসেন বলেন,আমরা  আমাদের শিক্ষক চাই। আমাদের বাবা মা এ স্কুলে পড়াবেনা। এ স্কুলে শিক্ষক না থাকায় লেখা পড়া ভাল হয়না।
অভিভাবক কমলা বেগম বলেন, এ বিদ্যালয়ে শিক্ষক কম, এত অল্প শিক্ষকরা  এত বেশী ছাত্র ছাত্রীদের লেখা পড়া করাতে পারেনা। তাই আমাদের ক্ষিক আমাদের স্কুলে ফিরিয়ে দিতে হবে । নচেৎ এ স্কুল থেকে আমাদের বাচ্চা নিয়ে যাব্
পশ্চিম চরোসুন্দি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রনজিৎ কুমার সাহা বলেন, আমি স্কুলে আসার পর ম্যানেজিং কমিটির সদস্য ও অভিভাবকরা জোর করে চাবি নিয়ে স্কুলের শ্রেণী কক্ষে তালা লাগিয়ে দেয়। এবং  বলে ডেপুটেশনের শিক্ষক ফিরিয়ে দিতে হবে এবং কর্তন কৃত ২টি পদ পুর্নবহাল না করা পর্যন্ত স্কুল খুলতে দেবেনা।
বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সহ সভাপতি  আঃ মালেক সরদার বলেন, আমরা আমাদের ক্ষিক চাই। শিক্ষক না দেয়া পর্যন্ত স্কুল খুলতে দেয়া হবেনা। প্রয়োজনে ছেলে মেয়েদের অন্যত্র নিয়ে যাব।
জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকত আলেয়া ফেরদৌস শিখা বলেন, স্থানীয় এমি মহোদয়ের সুপারিশে ডেপুডেশন বাতিল করেছি। পরবর্তীতে জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক অনল কুমার দে সহ শরীয়তপুর পৌর কাউন্সিলর সঞ্জীব কুমার নাগ এস আমাকেচাপ প্রয়োগ করে । চাপের মুখে আমি পুনরায় ডেপুটেশন আদেশ বাতিল করে দেই। তবে ঐ বিদ্যালয়ে শিক্ষকের স্বল্পতা রয়েছে।  আমি বিদ্যালয় পরিদর্শন করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেব।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

স্কুলের মালামাল বিক্রির টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

মদন (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি : নেত্রকোনার মদন উপজেলার বনতিয়শ্রী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মালামাল বিক্রি ...

চুয়েটে তিনদিনব্যাপী পুরকৌশল বিষয়ক আন্তর্জাতিক কনফারেন্স সম্পন্ন

মোঃ সিরাজুল মনির, চট্টগ্রাম ব্যুরো : বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের মাননীয় সদস্য অধ্যাপক ...