ব্রেকিং নিউজ
Home | সারা দেশ | রামগঞ্জে ফেমাস হাসপাতালে অপারেশনের পর প্রসুতির মৃত্যু

রামগঞ্জে ফেমাস হাসপাতালে অপারেশনের পর প্রসুতির মৃত্যু

মোঃ মাকছুদুর রহমান জিসান, লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি ঃ রামগঞ্জ পৌর শহরের নবাগত ফেমাস হাসপাতালে সিজার অপারেশনের পর বীনা রানী সরকার (২৬) নামের এক প্রসুতি মায়ের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে।
জানা যায়, চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ উপজেলার গুপটি গ্রামের চিন্তা হরণ সরকার বাড়ীর স্বপন কুমার সরকারের স্ত্রীর প্রসব বেদনা দেখা দিলে তার স্বজনেরা সোমবার ৯ সেপ্টেম্বর সকালে লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ পৌর পরিষদ ভবন সংলগ্ন বাইপাস সড়কের পাশে নবাগত ফেমাস হাসপাতালে ভর্তি করে। দুপুর ২টার দিকে রামগঞ্জ সরকারী হাসপাতালের ডাক্তার ও ফেমাস হাসপাতাল (প্রাঃ) এর অদক্ষ ২/৩ জন ডাক্তার প্রসুতি বীনা রানী সরকারকে সিজার অপারেশন থিয়েটার রুমে নিয়ে যায়। পরে ডাক্তারা প্রসুতি বীনা রানী সরকারের পেট কেটে দুইটি জীবিত পুত্র সন্তান বাহির করে। এ সিজার অপারেশনে সময় প্রসুতির প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়। এতে অবস্থা বেগতিক দেখে কর্তব্যরত ডাক্তাররা উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকা অথবা কুমিল্লা হাসপাতালে নেওয়ার পরামর্শ দেয়। পরে ফেমাস হাসপাতালের গাড়ী দিয়ে তাকে কুমিল্লা মুন হাসপাতালে ভর্তির পর সে রাতে মারা যায়। এ সংবাদ রামগঞ্জে জানাজানি হলে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়।
এছাড়াও পাশ্ববর্তী উপশম জেনারেল হাসপাতালে বিগত ২০১২ সালের ২২ ফেব্রুয়ারী বুধবার রামগঞ্জ সরকারী হাসপাতালের একই ডাক্তারের ভুল সিজার অপারেশনে সালমা আক্তার রুমানা (২২) নামের এক প্রসুতি মায়ের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। জানা গেছে, রামগঞ্জ পৌরসভার জগৎপুর গ্রামের ছলেমান মাস্টার বাড়ির মোবারক হোসেন আবুলের মেয়ে উপজেলার কাঞ্চনপুর ইউপির পূর্ব বিঘা গ্রামের নিলাম বাড়ির সৌদি প্রবাসী তাজুল ইসলামের স্ত্রী সালমা আক্তার রুমানার প্রসব বেদনা দেখা দিলে তাকে ওই দিন সকাল ৭টার দিকে রামগঞ্জ সরকারী হাসপতালের ভিজিটর পারুল আক্তারের বাসা বিউটি ভবন সাবেক উপশম জেনারেল হাসপাতাল এন্ড ডায়াগণস্টিক কমপ্লেক্স (প্রাঃ) এ নিয়ে আসে। পরে পারুল আক্তারের মাধ্যমে রামগঞ্জ পৌর পরিষদ ভবন সংলগ্ন বাইপাস সড়কে বর্তমান উপশম জেনারেল হাসপাতালে এন্ড ডায়াগনস্টিক কমপ্লেক্স (প্রাঃ) এ সকাল ১১টায় ভর্তি করে। এর পর রাত ১০টার দিকে রামগঞ্জ সরকারী হাসপাতালের এক কনসালট্রেন্ট ডাক্তার ও রামগঞ্জ আল হেলাল হাসপাতালের ডাঃ আজাদ সহ কয়েকজন ডাক্তার মিলে প্রসুতি সালমা আক্তার রুমানাকে সিজার অপারেশন থিয়েটার রুমে নিয়ে যায়। পরে সালমা আক্তার রুমানার সিজার অপারেশনের মাধ্যমে পেট কেটে একটি পুত্র সন্তান বাহির করে। এ সময় ভুলবসত প্রসুতির জরায়ু কেটে পেলে। এতে প্রসুতির প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়। অবস্থা বেগতিক দেখে কর্তব্যরত ডাক্তার হাসপাতাল ছেড়ে পালিয়ে যায়। পরে সালমা আক্তার রুমানাকে তার স্বজনেরা মুমর্ষু অবস্থায় নোয়াখালির চৌমুহনির রাবেয়া (প্রাঃ) হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে ঢাকা নেওয়ার পরামর্শ দেয়। পরে ঢাকা নেওয়ার পথে পর দিন বৃহস্পতিবার ভোরে সে মারা যায়।
সুত্রে আরো জানা যায়, রামগঞ্জে নিয়ম অনিয়মের মাধ্যমে ব্যাঙের ছাতার মত কয়েকটি প্রাইভেট হাসপাতাল, কিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার গজিয়ে উঠছে। এ হাসপাতাল ও ডায়াগনস্টিক কমপ্লেক্স গুলো তদারকিতার যেন কেউ নেই। এ সব হাসপাতাল গুলো নামমাত্র কাগজপত্র নিয়ে সরকারী হাসপাতালের ডাক্তারদেরকে লোভনীয় অপার দিয়ে প্রাইভেট হাসপাতালের কার্যক্রম চালাছে।
রামগঞ্জের সুশিল সমাজ মনে করেন, ব্যাঙের ছাতার মত গজিয়ে উঠা এসব প্রাইভেট হাসপাতাল গুলোর কার্যক্রম সঠিক ভাবে তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ না করলে সাধারণ রোগীরা অর্থলোভী ডাক্তারদের কাছে গিয়ে সঠিক চিকিৎসা না পেয়ে অকালে প্রাণ হারাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বসতঘর-গবাদিপশু ও নগদ টাকাসহ আগুণে পুড়ে ছাই

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি : ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা নাসিরনগর উপজেলায় কয়েল থেকে আগুণে বসতঘর-গবাদিপশু ও নগদ টাকাসহ ...

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বিদ্যুৎস্পর্শে মহিলাসহ নিহত-২

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি : ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পৃথক ঘটনায় বিদ্যুৎস্পর্শে মহিলাসহ দুইজন নিহত হয়েছে। বৃহস্পতিবার ...