Home | ফটো সংবাদ | রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেওয়া হচ্ছে না:মির্জা ফখরুল

রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেওয়া হচ্ছে না:মির্জা ফখরুল

স্টাফ রির্পোটার : কারাবন্দি দলীয় প্রধান খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য আইনি লড়াইয়ের পাশাপাশি সংগঠন শক্তিশালী করে জনগণকে সঙ্গে নিয়ে দুর্বার আন্দোলন করার কথা বলেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

বুধবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সুচিকিৎসার দাবিতে বিএনপির মানববন্ধনে একথা বলেন তিনি।

ফখরুল অভিযোগ করেন, ‘রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেওয়া হচ্ছে না। অথচ দুর্নীতির এই ধরণের মামলায় অন্য লোকজন জামিনে মুক্তি পেয়েছেন।’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘বেগম খালেদা জিয়া কারাগারে অসুস্থ। অবৈধ দখলদারি সরকার বেআইনিভাবে এবং রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে তাকে কারাগারে রেখেছে। যেসব মিথ্যা মামলায় তাকে কারাগারে রাখা হয়েছে এই ধরণের মামলায় অন্যরা সবাই জামিন পেয়েছেন। তাকে রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে বন্দি রাখা হয়েছে। এই একটাই কারণ।’

ফখরুল বলেন, ‘সরকার একদলীয় শাসনের প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে। কিন্তু জনগণ ও বিশ্ববাসীর কাছে ধরা খেয়ে গেছে সরকার। গত নির্বাচনে মানুষ ভোট দেয়নি। ঢাকা সিটি করপোরেশন নির্বাচনেও মানুষ ভোট দেয়নি। তারা আগের রাতে ভোট চুরি করেছে।’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘এই দেশের মানুষ সরকারের প্রতি আস্থা হারিয়েছে, নির্বাচন কমিশনের প্রতি আস্থা হারিয়েছে। সুতরাং গণতন্ত্রকে পুনরুদ্ধার করতে প্রথম কাজটি করতে হবে বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে হবে। সেজন্য সংগঠনকে শক্তিশালী করে জনগণের ঐক্যপ্রতিষ্ঠা করে আমাদের দুর্বার আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে।’

বিএনপির স্থায়ী কমিটির এই সদস্য বলেন, ‘খালেদা জিয়ার মুক্তি আসবে রাজপথের আন্দোলনের মাধ্যমে। আন্দোলন ছাড়া তার মুক্তির সম্ভাবনা নেই। রাজপথে যদি সরকারে বিরুদ্ধে আন্দোলন করতে পারি, আমরা যদি রাজপথে সজাগ থাকি। জনগণকে ঐক্যবদ্ধ করতে পারি তাহলে ১৫ কোটি মানুষের নেত্রীকে মুক্ত করা সম্ভব।’

জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে দুপুর ১২টা থেকে মানববন্ধন শুরু হয়। শেষ হয় দেড়টায়।

মানববন্ধনে আরও বক্তব্য দেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, ড.আব্দুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী, ভাইস-চেয়ারম্যান বেগম সেলিমা রহমান, শামসুজ্জামান দুদু, এ জেড এম জাহিদ হোসেন, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমান, আব্দুস সালাম, যুগ্ম-মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, সাংগঠনিক সম্পাদক এমরান সালেহ প্রিন্স, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ, সহ-প্রচার সম্পাদক আমিরুল ইসলাম খান আলমী, যুবদলের সিনিয়র সহ-সভাপতি মোর্তাজুল করিম বাদরু, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলাম নয়ন প্রমুখ।

আরও উপস্থিত ছিলেন স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শফিউল বারী বাবু, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদির ভূইয়া জুয়েল, ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক আকরামুল হাসান মিন্টু। এছাড়াও গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, লেবার পার্টির চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান ইরান উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

জাতীয় নির্বাচনের ঘটনায় বিএনপি’র নেতাকর্মীরা হতভম্ব : মোশাররফ

স্টাফ রির্পোটার : একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মতো ভোট ডাকাতি আগে কখনো বাংলাদেশে ...

ঘূর্ণিঝড় ইদায়; মোজাম্বিকে ১ হাজার লোকের প্রাণহানির আশঙ্কা

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক : ঘূর্ণিঝড় ইদায়ের আঘাতে মোজাম্বিকে ১ হাজার লোকের প্রাণহানি ঘটতে পারে ...