ব্রেকিং নিউজ
Home | বিবিধ | আইন অপরাধ | মৌলভীবাজার বিসিক শিল্পনগরীতে অর্ধকোটি টাকার অবৈধ কাঠ বনবিভাগের মাধ্যমে বৈধ হলো যেভাবে

মৌলভীবাজার বিসিক শিল্পনগরীতে অর্ধকোটি টাকার অবৈধ কাঠ বনবিভাগের মাধ্যমে বৈধ হলো যেভাবে

Wood - 2জালাল আহমদ, মৌলভীবাজার জেলা প্রতিনিধি : মৌলভীবাজার বিসিক শিল্পনগরীতে গোপন আঁতাতের মাধ্যমে মাত্র দেড় ঘণ্টার ব্যবধানে বৈধ হলো প্রায় অর্ধকোটি টাকা মূল্যের অবৈধ কাঠ। বিপুল পরিমাণ এ অবৈধ কাঠ জব্দ করে বনবিভাগের শ্রীমঙ্গল অফিসে নিয়ে যাওয়ার জন্য দু’টি ট্রাক ভাড়া করে নেয়া হলেও শেষমেষ একটি ট্রাক ফেরত পাঠানো হয়। পরে উপস্থিত সাংবাদিকদের আইওয়াশের জন্য একটি ট্রাকে করে নামেমাত্র কিছু কাঠ জব্দ করে নিয়ে চলে যান বনবিভাগের কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা। ঘটনাস্থলে অভিযানে অংশগ্রহণকারী বনবিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারীরাই সম্পূর্ণ কাঠ অবৈধ বলে জানানোর মাত্র দেড় ঘণ্টার ব্যবধানে গোপন আঁতাতের মাধ্যমে সম্পূর্ণ কাঠ বৈধ হওয়ার এ ঘটনাটি ঘটেছে গত বুধবার (১১ সেপ্টেম্বর) দুপুর ২টায় মৌলভীবাজার বিসিক শিল্পনগরীর উর্মী ফার্ণিচার কারখানায়।
সূত্র জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মৌলভীবাজার ও শ্রীমঙ্গল বনবিভাগের দায়িত্বে নিয়োজিত সহকারী বন সংরক্ষক মো: সাজ্জাদুজ্জামান ও শ্রীমঙ্গল রেঞ্জ কর্মকর্তা মহসীন বিপুল পরিমাণ অবৈধ কাঠ উদ্ধারের জন্য ১১ সেপেটম্বর জনৈক জাহাঙ্গীর আলমের মালিকানাধীন উর্মী ফার্ণিচারের মৌলভীবাজার বিসিক শিল্পনগরীস্থ অবৈধ কারখানায় অভিযান পরিচালনা করেন। জাহাঙ্গীর আলম তার কারখানায় রক্ষিত বিপুল পরিমাণ কাঠের কোনো বৈধ কাগজপত্র দেখাতে না পারায় বন কর্মকর্তারা উক্ত সম্পূর্ণ কাঠ অবৈধ হিসেবে জব্দ করেন। পরে সেগুলো শ্রীমঙ্গল কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য দু’টি ট্রাক ভাড়া করেন। অবৈধ কাঠগুলো ট্রাক দু’টিতে তোলা শুরু হলে, কারখানার মালিকপক্ষ এবং ওই দু’জন বন কর্মকর্তার মধ্যে গোপন সমঝোতার মাধ্যমে একটি ট্রাকে নামেমাত্র কিছু কাঠ তোলা হয়। এ সময় উপস্থিত সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে রেঞ্জ কর্মকর্তা মহসীন জানান, গাড়িতে তোলা কাঠগুলো ছাড়া বাকি সব কাঠই বৈধ। একই বক্তব্য দেন সহকারী বন সংরক্ষক মো: সাজ্জাদুজ্জামানও। কারখানায় রক্ষিত কাঠের পরিমাণ এবং জব্দকৃত কাঠের পরিমাণ জানতে চাইলে তারা বলেন, কারখানায় রক্ষিত কাঠের পরিমাণ জানা নেই। তবে জব্দকৃত কাঠ অফিসে নিয়ে পরিমাপ করে পরিমাণ জানানো যাবে। আপনাদের ফোন নাম্বার দেন আমি জানিয়ে দেব। কারখানায় রক্ষিত কাঠের পরিমাণ এবং জব্দকৃত কাঠের পরিমাণ জানা না থাকা সত্ত্বেও কিভাবে বুঝলেন এখানে অবৈধ কাঠ রয়েছে এবং অবৈধ কাঠের পরিমাণ না জেনে কাঠ জব্দ করলেন কিভাবে-এমন প্রশ্নের জবাবে উভয় কর্মকর্তাই নীরব থাকেন। বিষয়টি সম্পর্কে জানার জন্য সিলেট বিভাগীয় বন কর্মকর্তা (ডিএফও) আবুল বাশারের সাথে কথা বলতে চাইলে, তার মুঠোফোনটি এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত (১৪ সেপ্টেম্বর, রাত ৯টা) বন্ধ ছিল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

আটোয়ারীতে বিধবা নারীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে অনৈতিক কার্যকলাপ

পঞ্চগড়ের আটোয়ারীতে বিধবা নারীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে অনৈতিক কাজে লিপ্ত থাকায় এক ...

রাণীশংকৈলে ইয়াবা সহ আটক ১

ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল উপজেলায় মাদকদ্রব্য ইয়াবা ট্যাবলেট সহ ১জনকে আটক করেছে থানা পুলিশ। ...