Home | আন্তর্জাতিক | মার্কিন নিষেধাজ্ঞায় ইরানের মানুষ অনাহারে নয় সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে যাবে

মার্কিন নিষেধাজ্ঞায় ইরানের মানুষ অনাহারে নয় সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে যাবে

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক : নিষেধাজ্ঞার ফলে ইরানি জনগণ অনাহারে মুখে পড়বে এবং বাধ্য হয়ে ইরান যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আলোচানায় আসতে বাধ্য হবে- বিবিসিকে দেয়া সাক্ষাৎকারে এমন মন্তব্য করেছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও। এমন কথার জবাবে ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাওয়াদ জারিফ বলেছেন, মার্কিন নিষেধাজ্ঞায় ইরানের মানুষ অনাহারে নয় বরং সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে যাবে। এক টুইট বার্তায় জারিফ বলেন, মার্কিন নিষেধাজ্ঞার মুখে ইসলামি ইরান শুধু টিকে থাকবে না সেইসঙ্গে সমৃদ্ধিও অর্জন করবে। ইরানি জাতির বিরুদ্ধে মাইক পম্পেওর হুমকি ‘মানবতা বিরোধী অপরাধ’ এবং ‘ইরানি জনগণের ওপর মার্কিন খামখেয়ালি চাপিয়ে দেয়ার বেপরোয়া প্রচেষ্টা’র উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত।

ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘মাইক পম্পেও তার পূর্বসুরিদের মতো একদিন একথা উপলব্ধি করবেন যে, আমেরিকার তীব্র প্রচেষ্টা সত্ত্বেও ইরান শুধু টিকেই থাকেনি সেইসঙ্গে নিজের সার্বভৌমত্ব বিসর্জন না দিয়েই উন্নতি ও সমৃদ্ধ অর্জন করেছে।’ খবর পার্সটুডের।

মার্কিন সরকার গত সোমবার থেকে ইরানের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় দফা নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে। এবারের নিষেধাজ্ঞায় ইরানের তেল রপ্তানি ও বহির্বিশ্বের সঙ্গে ইরানের ব্যাংকিং লেনদেনকে টার্গেট করা হয়েছে। তারা আশা করছে, নিষেধাজ্ঞার চাপে ইরান আমেরিকার দাবির কাছে নতি স্বীকার করবে। কিন্তু তেহরান বলেছে, আমেরিকার আশা দুরাশায় পরিণত হবে।

এ বিষয়ে ইরানের বিমান বাহিনীর কমান্ডার আজিজ নাসিরজাদেহ বলেন, ইসলামি বিপ্লব সফল হওয়ার পর থেকে তার দেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা ছিল এবং শক্তি অর্জনের ক্ষেত্রে এই নিষেধাজ্ঞা এক রকমের আশীর্বাদ হিসেবে কাজ করেছে।

তিনি বলেন, ‘ইসলামি বিপ্লব সফল হওয়ার পর থেকেই বিমান তৈরির ক্ষেত্রে ইরানের হাতে ভালো সক্ষমতা ছিল। এরই ধারাবাহিকতায় কাউসার বিমান তৈরি এবং ইরানের বিমান বাহিনীতে তা যুক্ত করা হয়েছে। অস্ত্র ও সামরিক সরঞ্জাম তৈরি এবং আধুনিয়াকনের ক্ষেত্রে আমাদের এসব সক্ষমতা আছে এবং বাইরে থেকে কোনো সামরিক সরঞ্জাম কেনার প্রয়োজন নেই।’

নাসিরজাদেহ বলেন, সাম্প্রতিক নিষেধাজ্ঞা ও ঘটনাবলীর কোনো প্রভাব ইরানের সামরিক বাহিনীর সক্ষমতার ওপর কোনো প্রভাব ফেলবে না এবং যেকোনো ধরনের হুমকি মোকাবেলার ক্ষেত্রে ইরান সম্পূর্ণ প্রস্তুত রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

মিস ইউনিভার্স ফিলিপাইনের ক্যাট্রিওনা গ্রে

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক : বিশ্বের ৯৩ প্রতিযোগীকে পেছনে ফেলে ২০১৮ সালের মিস ইউনিভার্সের মুকুট ...

ধানের শীষ নিয়ে ভোটের মাঠে নেমেও বাদ পড়লেন নাদিম মোস্তফা

স্টাফ রির্পোটার : ধানের শীষ নিয়ে ভোটের মাঠে নেমেও বাদ পড়লেন রাজশাহী ...