Home | ফটো সংবাদ | মাটির গহনা না হলে বৈশাখের সাজে সাজ অসম্পূর্ণ থেকে যায়

মাটির গহনা না হলে বৈশাখের সাজে সাজ অসম্পূর্ণ থেকে যায়

Matiস্টাফ রিপোর্টার: বৈশাখের সাজে মাটির গহনা না হলে যেন সাজ অসম্পূর্ণ থেকে যায়। তাঁতের শাড়ি, সঙ্গে বাহারি মাটির গহনা হোক তা জড়োয়া কিংবা এক লহরের লম্বা মাটির মালা। বৈশাখের চিরায়ত সাজে মাটির গহনা অন্যতম অনুষঙ্গ। তবে হাল ফ্যাশনে বৈশাখী গহনায় যুক্ত হয়েছে মেটাল ও নানা রকম বিডসের গহনা। টিনএজরা শাড়ি যেমন পরছেন, ইদানীং শাড়ির পাশাপাশি নানা রকম টপস পরছেন। আর টপসের সঙ্গে মিলিয়ে মেটালের মালা, বড় লকেট, কাঠ, বাঁশ, বেত ও নানা রকম বিডসের গহনা পরছেন। বৈশাখে প্রায় সব ফ্যাশন হাউস তৈরি করেছে নানা রকম গহনা। পোশাকের সঙ্গে মিলিয়ে পাওয়া যাচ্ছে এসব গহনা।এ ছাড়া ভিন্নধর্মী গহনার দোকান হিসেবে পরিচিত মাদুলি, পিরান, আইডিয়াল, আজিজ সুপার মার্কেটের ভার্টিক্যাল ও আইডিয়া ক্র্যাফট অন্যতম। বৈশাখ উপলক্ষে জুয়েলারি শপ মাদুলি মাটি ছাড়াও মেটাল, কড়ি ও বিডসের নানা রকম গহনা তৈরি করেছে। এখানকার প্রধান নির্বাহী তমিজ উদ্দিন জানান, বৈশাখে সবাই একটু ভিন্নধর্মী গহনা চান। সে কারণে আমরা মাটির লম্বা লহরি মালা তৈরি করেছি। সঙ্গে আছে মাটির বালা। মাটির গহনায় হরেক রঙের আলপনা করা হয়েছে। গহনাগুলো এমনভাবে তৈরি করা হয়েছে যা শাড়ি, টপস কিংবা সালোয়ার-কামিজের সঙ্গে মানিয়ে যাবে। এ ছাড়া সুতার টারসেলের সঙ্গে কড়ি ও বিডস দিয়ে তৈরি করা হয়েছে ভিন্নধর্মী গহনা। সেই ভালোলাগা থেকেই গড়ে ওঠে পিরান। এবার বৈশাখে পিরান তৈরি করেছে হালকা ও ভারী মেটালের গহনা। ডিজাইনার ছোটনা জানান, মেটালের গহনায় এন্টিক ও ট্রাইভাল লুকটা থাকে। সে কারণে এটি ফ্যাশন সচেতন তরুণীদের কাছে জনপ্রিয়তা পাচ্ছে। এসব গহনার দাম তুলনামূলক কম। এবার আমরা মেটালের সঙ্গে বিভিন্ন মিডিয়ার ব্যবহার করে গহনা তৈরি করেছি। এসব গহনায় পিতলের সোনালি রঙ, কখন এন্টিক, কপার রঙের প্রলেপ দেওয়া হয়েছে। বিভিন্ন পোশাকের সঙ্গে মিলিয়ে পরা যাবে এসব গহনা। ফ্যাশন হাউস অঞ্জনস এবারের বৈশাখে এনেছে গহনার অনেক সংগ্রহ। ডিজাইনার শাহিন আহমেদ জানান, বৈশাখে মাটির গহনার চাহিদা সব সময়ে, তাই আমরাও মাটির গহনা তৈরি করেছি। যেহেতু মেটালের গহনা সব পোশাকের সঙ্গে পরা যায়, তাই তরুণীরা বিভিন্ন উৎসবে মেটালের গহনা পরেন। এ বিষয়টি মাথায় রেখে ভিন্নধর্মী গহনার সংগ্রহ পাওয়া যাবে অঞ্জনসে। ফ্যাশন হাউসগুলো ছাড়াও সাধারণ মার্কেটে পাওয়া যাবে বৈশাখী গহনা। সাজ পোশাক যেমনই হোক না কেন একখানি নান্দনিক গহনা তুলে ধরতে পারে আপনাকে সবার মাঝে আলাদা করে। এক কিংবা দুই লহরের লম্বা মালা শাড়ি কিংবা টপসের সঙ্গে ভীষণ মানাবে। ইদানীং বিডস ও মেটালের গহনা বেশ চলছে। এবারের বৈশাখে আপনিও বেছে নিতে পারেন এমন গহনা। কিনতে পারেন বিভিন্ন ফলের বিচির গহনা, প্লাস্টিক, কাঁচ পুঁতি আর কাঠ পুঁতির গহনা। এবারের বৈশাখে পুঁতির সঙ্গে মেটাল মিলিয়ে করা হয়েছে হালকা ও ভারী নকশাদার গহনা। বৈশাখী সাজে অনায়াসে এসব গহনা মানিয়ে যাবে। মাটির গহনায় ব্যবহার করা হয়েছে নানা রকম ঝুনঝুনি, চুমকি, পুঁতি। এ ছাড়া বাহারি রঙ তো আছেই। এখন প্রয়োজন আপনার রুচি আর সাধ্যের সমন্বয় করে গহনা কেনার পালা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

পার্বত্য অঞ্চল হবে সম্পদ শান্তিতে সমৃদ্ধ: পরিকল্পনামন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার: পার্বত্য চট্টগ্রামের সম্প্রীতি, সম্ভাবনা ও উন্নয়নের বিষয়টি বেশ জটিল, তবে ...

অভিনয় ও মডেলিংয়ে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন নাসিক মাহি

বিনোদন ডেস্ক :নাসিক মাহি অভিনীত বেশ কয়েকটি নাটকে অভিনয়। ও মডিলিং নিয়ে ...