Home | খেলাধূলা | মঙ্গলবার থেকে বিপিএল উত্তাপ শুরু সিলেটে

মঙ্গলবার থেকে বিপিএল উত্তাপ শুরু সিলেটে

ক্রীড়া ডেস্ক : বিপিএল ঢাকা পর্বের প্রথম ধাপের খেলার শুরুটা অনেক ম্যাড়মেড়ে ছিল। শেষ হয়েছে বেশ উত্তাপ ছড়িয়ে। কাল মঙ্গলবার থেকে বিপিএলের সিলেট পর্বের খেলা শুরু হবে। বিপিএলের গত আসরটি শুরু হয়েছিল এখান থেকেই। আর ঘরের মাঠে প্রিয় খেলায়ারদের ব্যাট-বলের লড়াই দেখতে মুখিয়ে রয়েছে সিলেটের ক্রিকেটপ্রেমীরা। এমনকি ঘরের দল সিক্সার্সকে নিয়ে বিপিএল উত্তাপ ছড়াচ্ছে সর্বত্র। আর এবার ভিন্ন এক চ্যালেঞ্চ নিয়ে দ্বিতীয় পর্ব শুরু করতে যাচ্ছে ডেভিড ওয়ার্নারের দল।

ঢাকা পর্বের প্রথম ধাপে তিন ম্যাচে মাত্র একটি জয় নিয়ে সিলেট এসেছে সিক্সার্সরা। যদিও দলটি আগের চেয়ে এবার বেশি শক্তিশালী। অস্ট্রেলিয়ান ওপেনার ওয়ার্নারকে দলে ভিড়িয়ে চমক আনলেও মাঠের শুরুটা সেই তুলনায় ভালো করতে পারেনি।

সিলেটে বিপিএলের প্রচার তেমন চোখে না পড়লেও হোম টিম সিক্সার্সকে নিয়ে প্রচার কার্যক্রম তুঙ্গে রয়েছে। নগরের মোড়ে মোড়ে উড়ছে দলটির পতাকা। এমনকি বিভিন্ন জায়গায় দলটির নামের স্টিকারও লাগাতে দেখা যায়। আর ব্যানার, ফেস্টুন তো আছেই।

বিপিএলের দ্বিতীয় পর্বে নিজেদের মাঠে চারটি ম্যাচ পাবে সিলেট সিক্সার্স। আর এখান থেকেই ঘুরে দাঁড়ানোর আশায় রয়েছেন দলটির পেসার তাসকিন আহমদ। টানা দুই ম্যাচে তিনি দুর্দান্ত বোলিং করেছেন। ঢাকার বিপক্ষে ম্যাচ শেষে তিনি জানিয়েছেন ‘লোকাল’ ব্যাটসম্যানরা রান করতে পারলে ভিন্ন স্টোরি হবে। তিনি আশা করেন, সিলেটে স্বাগতিক সিক্সার্সের ‘লোকাল’ ব্যাটসম্যান নাসির, সাব্বির-লিটনরা রান পাবেন। ঘুরে দাঁড়াবেন তাঁরা। এমনকি সিলেট পর্বে জ¦লে উঠবেন দলের তারকারা। পাবেন রানের দেখাও।

তাসকিন বলেন, ‘আমাদের বিদেশিরা ভালো খেলছেন। সে তুলনায় দেশি ব্যাটসম্যান পারফর্ম করতে পারছেন না। নাসির, সাব্বির লিটনরা রানে ফিরলে স্টোরি হবে ভিন্ন। আমি আশা করি, সিলেটে উনারা রান পাবেন। আমরাও ঘুরে দাঁড়াবো।’

এদিকে, সবার আগে সিলেটে আসা সিক্সার্স অনুশীলনও করেছে সবার আগে। গতকাল সোমবার সকালে জেলা স্টেডিয়ামে ছিল তিন ঘণ্টার অনুশীলন পর্ব। পরে খুলনা টাইটানস ও রাজশাহী কিংস অনুশীলনে নামে। দুপুরে সিলেট পৌঁছায় কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ানস। সিলেট পর্বের প্রথম দিনে দুই ম্যাচে নামবে  ৪টি দল।

বিপিএলে ষষ্ঠ আসরের দ্বিতীয় পর্বে খেলতে ইতোমধ্যে সব দল সিলেট এসে পৌঁছেছেন। গত রোববার দিন-রাত মিলিয়ে সিলেটে পা রেখেছে সিলেট সিক্সার্স, খুলনা টাইটান্স ও রাজশাহী কিংস। সোমবার দিনে এসে পৌঁছেছে রংপুর রাইডার্স, কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স ও চিটাগাং ভাইকিংস। রাতে এসে পৌঁছেছে ঢাকা ডায়নামাইটস।

অন্যদিকে  টুর্নামান্টের আয়োজক সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম চূড়ান্ত প্রস্তুতি শেষ করেছে। বিপিএলের ঢাকা পর্বে স্পাইডার ক্যাম ও ড্রোন ক্যামেরার ব্যবহার করা হয়েছিল। তবে সিলেটে অনুষ্ঠিত ৮ টি ম্যাচে স্পাইডার ক্যাম ব্যবহার করা হবে না। আয়োজকরা সিলেটে স্পাইডার ক্যাম ব্যবহার করার মতো সুযোগ করতে পারেননি দেশের দৃষ্টিনন্দন এই স্টেডিয়ামে।

তবে ড্রোন ক্যামেরা ব্যবহার করা হবে সিলেট স্টেডিয়ামে। সেটিও নির্ভর করছে সংশ্লিষ্টদের অনুমতির উপর। দেশের কোথাও ড্রোন ক্যামেরা ব্যবহার করতে হলে গোয়েন্দা পরিদফতরসহ সরকারের সংশ্লিষ্টদের অনুমতি নিতে হয়। মিরপুরে ড্রোন ক্যামেরা আকাশে উড়ছে। সিলেটেও তাই ড্রোন ব্যবহার করা হতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

ঋণ খেলাপিদের আরও সুযোগ দিচ্ছে সরকার

স্টাফ রির্পোটার : কিছু ঋণগ্রহিতা বা ঋণখেলাপি থাকেন, যারা ব্যাংক থেকে ঋণ নেন ...

রাণীনগরে ৭৫ পিচ ইয়াবাসহ আটক ১

রাণীনগর (নওগাঁ) প্রতিনিধি : নওগাঁর রাণীনগর থানাপুলিশ অভিযান চালিয়ে ৭৫ পিচ ইয়াবাসহ ...