Home | সারা দেশ | ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে এক জঙ্গি নিহত

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে এক জঙ্গি নিহত

তৌহিদুল রহমান নিটল,ব্রাহ্মণবাড়িয়া : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার কুটি চৌমুহনীতে পুলিশের সাথে কথিত বন্দুকযুদ্ধে একজন নিহত হয়েছে। নিহতের নাম তাজুল ইসলাম আল মাহমুদ ওরফে মামা হুজুর (৪৫)। তার বাড়ি হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জের খাদুল্লাপুর গ্রামে। কসবা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মহিউদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন ও  জানান, বুধবার দিবাগত রাতে জঙ্গি কার্যক্রম পরিচলানার জন্য ৫/৬ জন জঙ্গি কুটি চৌমুহনী এলাকায় জড়ো হয়েছে এমন গোপন সংবাদ পেয়ে কসবা থানা পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে গেলে জঙ্গিরা পুলিশের উপর ককটেল হামলা এবং গুলি বর্ষণ শুরু করে। এসময় নিজেদের আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে জঙ্গি মামা হুজুরের মরদেহ উদ্ধার করে। তবে বাকি জঙ্গিরা ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যাওয়ায় তাদেরকে আটক করা সম্ভব হয়নি। এ ঘটনায় কসবা থানা পুলিশের তিন সদস্য আহত হয়েছেন।এছাড়া সে নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গী সংর্ঘটন “হরকাতুল জিহাদ “এর  আঞ্চলিক কমান্ডার ছিলেন। ওসি আরও জানান, ঘটনাস্থল থেকে ৩৫টি ককটেল, ৫টি ধারালো চাপাতি ও ১টি পাইপগান এবং ৯ রাউন্ড কার্তুজ উদ্ধার করা হয়েছে।উল্লেখ্য, গত ১৮ ফেব্রুয়ারি সকালে কসবা উপজেলার কাইয়ুমপুর ইউনিয়নের জগন্নাথপুর গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে কবিরাজ ফরিদ মিয়ার (৪৭) গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আদালতে দেয়া ১৬৪ ধারার স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে জহির মিয়া নামে এক ব্যক্তি জানান, ধর্ষণ, প্রতারণা ঠেকিয়ে বেহেস্তে যেতে কথিত মামা হুজুরের (নিহত ব্যক্তি) নির্দেশে ফরিদ মিয়াকে হত্যা করেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কমিটি গঠনে অনিয়মের তদন্ত, কালিয়াকৈরে সহকারী দুই শিক্ষা কর্মকর্তাকে অবরুদ্ধ

গাজীপুর প্রতিনিধি ॥ গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার সেওড়াতলী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটি ...

গাইবান্ধায় আমার বাংলা বিদ্যাপীঠে অগ্নিকান্ডে ৭ লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি

সুমন কুমার বর্মন, গাইবান্ধা প্রতিনিধি : গাইবান্ধার বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আমার বাংলা ...