ব্রেকিং নিউজ
Home | ফটো সংবাদ | বিএনপির মনোনয়ন পাওয়ার আশায় ফরম কিনেছেন তাবিথ আউয়াল ও রিপন

বিএনপির মনোনয়ন পাওয়ার আশায় ফরম কিনেছেন তাবিথ আউয়াল ও রিপন

স্টাফ রিপোর্টার : ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনে মেয়র পদে উপনির্বাচনে বিএনপির হয়ে মনোনয়ন পাওয়ার আশায় ফরম কিনেছেন সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে আলোচনায় আসা তাবিথ আউয়াল। অতি সম্প্রতি ভোটে দাঁড়ানোর আগ্রহ প্রকাশ করা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি আসাদুজ্জামান রিপন ফরম তুলেছেন।

তবে রবিবার সবার আগে নয়াপল্টনের দলীয় কার্যালয় থেকে মনোনয়ন ফরম তোলেন বিএনপির সহ-প্রকাশনা সম্পাদক শাকিল ওয়াহেদও।

শনিবার এই নির্বাচনে বিএনপির প্রার্থী ঘোষণার কথা থাকলেও ওই রাতে দলের স্থায়ী কমিটির বৈঠকে বরিবার সকাল ১০টা খেকে বিকাল পাঁচটা পর্যন্ত ফরম বিক্রির ঘোষণা দেয়া হয়। সোমবার পর্যন্ত এই ফরম জমা দেয়া যাবে এবং রাত সাড়ে আটটায় মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার নেবেন দলের চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া।

দুই আলোচিত নেতাই ফরম তুলে মনোনয়ন পাওয়ার বিষয়ে আত্মবিশ্বাসের কথা জানিয়েছেন গণমাধ্যমকর্মীদের।

২০১৫ সালের এপ্রিলের ভোটে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী তাবিথ আউয়াল বলেন, মনোনয়ন পাওয়ার বিষয়ে অবশ্যই আমি আশাবাদী। গতবারও দল থেকে প্রার্থী হয়েছিলাম। আমি মনে করি নির্বাচনী কর্মকাণ্ডের মধ্য দিয়ে দলকে আমি সন্তুষ্ট করতে পেরেছি। তবে দল যদি অন্য কাউকে মনোনয়ন দেয়, আমি অবশ্যই তার পক্ষে কাজ করব।

ওই নির্বাচনে ভোটের দিন মাঝপথে বর্জনের বিষয়ে জানতে চাইলে তাবিথ বলেন, ‘আগে মনোনয়ন পাই, এরপর এসব নিয়ে আপনাদের সঙ্গে কথা বলব।’

ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি আসাদুজ্জামান রিপন ফরম তুলে বলেছেন, তিনি আশা করছেন দল তাকেই বেছে নেবে।

২০১৫ সালের নির্বাচনে ঢাকা উত্তর থেকে মেয়র পদে প্রার্থী হয়েছিলেন রিপন। তবে বিএনপি শেষ পর্যন্ত মির্জা আব্বাসকে সমর্থন দেয়ায় রিপন আর প্রচারে নামেননি। তবে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারও করেননি তিনি।

আর বাসা পাল্টে রিপন এখন ঢাকা উত্তর সিটির ভোটার এবং ২৬ ফেব্রুয়ারির ভোটে তিনি ধানের শীষ প্রতীক পেতে বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখাও করেছেন।

রিপন বলেন, ‘নগর উন্নয়ন নিয়ে আমার দীর্ঘ দিনের স্বপ্ন, পরিকল্পা আছে। আমি অবিভক্ত ঢাকার মেয়র হওয়ার জন্য আগ্রহী ছিলাম। দলের সংকটকালে আমি দলের জন্য কাজ করেছি। সার্বিক বিবেচনায় আমি আশা করি দল আমাকে মনোনয়ন দেবে।’

মেজর আখতার ও কাইয়ুম চমক

ঢাকার উত্তর অংশে নির্বাচনে বিএনপির হয়ে প্রার্থী হতে পারেন, এমন কোনো সম্ভাবনার কথা এতদিন শোনা না গেলেও মনোনয়ন ফরম তুলেছেন সাবেক সংসদ সদস্য অবসরপ্রাপ্ত মেজর আখতারুজ্জামান এবং ঢাকা উত্তর বিএনপির সভাপতি এম এ কাইয়ুমও।

আকতারুজ্জামান ১৯৯১ ও ১৯৯৬ সালে কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। তবে সেনা সমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে তিনি খালেদা জিয়ার কঠোর সমালোচনা করেন এবং এ কারণে বিএনপির সঙ্গে তার সম্পর্কের অবনতি হয়।

মনোনয়ন ফরম কেনার পর আখতারুজ্জামান সাংবাদিকদের বলেন, ‘প্রথমে শুকরিয়া আদায় করছি পরম করুনাময় আল্লাহ তায়ালার নিকট তিনি আমাকে সুযোগ করে দিয়েছেন বিএনপির মনোনয়ন কেনার জন্য। ধন্যবাদ জানাচ্ছি দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে তিনি আমাকে অনুমতি দিয়েছেন মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার জন্য। আজকে পরিবর্তনের সময় আসছে। আমরা আগেও বলেছি ২০১৮ সাল পরিবর্তনের বছর। পরিবর্তন হবেই হতে হবে।’

গুলশানে ইতালীয় নাগরিক তাভেল্লা সিজার হত্যা হামলার আসামি কাইয়ুম এখন মালয়েশিয়ায় অবস্থান করছেন। তার হয়ে ফরম তুলেছেন ঢাকা উত্তর বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি বজলুল বাসিত আঞ্জু।

বিএনপির এই মনোনয়ন ফরম ১০ হাজার টাকায় বিক্রি হচ্ছে। আগামীকাল সোমবার বিকাল চারটার মধ্যে ২৫ হাজার টাকা জামানতসহ মনোনয়ন জমা দিতে হবে।

২৬ ফেব্রুয়ারির ভোটে অংশ নিতে হলে নির্বাচন কমিশনে প্রার্থিতা জমা দিতে হবে ১৮ জানুয়ারির মধ্যে।

বিএনপির প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগও মনোনয়ন ফরম বিক্রি করছে। সোমবার পর্যন্ত ফরম বিক্রি করে তারা প্রার্থী চূড়ান্ত করবে ১৬ জানুয়ারি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

নিলামে উঠছে পপ মহাতরকা মাইকেল জ্যাকসনের জুতা

বিনোদন ডেস্ক:  দীর্ঘ ৩৫ বছর পর নিলামে উঠছে পপ মহাতরকা মাইকেল জ্যাকসনের ...

‘আমার ছেলের জন্য সবাই দোয়া করবেন :মুশফিকুর রহিম

স্পোর্টস ডেস্ক : ছেলের জন্য দোয়া চেয়েছেন বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক ...