ব্রেকিং নিউজ
Home | আন্তর্জাতিক | বাস্তুহারা ৩ শতাধিক পরিবার টর্নেডোর আঘাতে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় প্রাণহানি বেড়ে ২৩

বাস্তুহারা ৩ শতাধিক পরিবার টর্নেডোর আঘাতে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় প্রাণহানি বেড়ে ২৩

স্টাফ রিপোর্টার, ২৩ মার্চ, বিডিটুডে ২৪ডটকম : গতকাল শুক্রবার বিকেলে বয়ে যাওয়া কয়েক মিনিটের টর্নেডোয় ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলা, বিজয়নগর উপজেলা এবং আখাউড়া উপজেলার অর্ধশতাধিক গ্রাম ধ্বংসস্তুপে পরিণত হয়েছে। সর্বশেষ শনিবার বিকেল পর্যন্ত প্রাণহানির সংখ্যা ২৩ বলে খবর পাওয়া গেছে। আহত হয়েছে পাঁচ শতাধিক লোক ।

শনিবার সকাল ৯টায় উদ্ধার কাজ সমাপ্ত করেছে জেলা প্রশাসন। জেলা প্রশাসক নুর মোহাম্মদ মজুমদার ২৩ জনের প্রাণহানির খবর নিশ্চিত করেন। বসতবাড়ি তছনছ হয়ে যাওয়ায় শুক্রবার দিনগত রাত থেকে খোলা আকাশের নিচে বসবাস করছে তিন শতাধিক পরিবার।

শনিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে আইন প্রতিমন্ত্রী কামরুল ইসলাম এবং পানি সম্পদ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবং ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর-৩ আসনের সংসদ সদস্য র আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী দূর্গত এলাকা পরিদর্শন করেন। দুর্গতদের সাহায্যে নগদ অর্থ ও খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেন তারা।

দুর্গত এলাকা পরিদর্শন শেষে আইন প্রতিমন্ত্রী এবং পানি সম্পদ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবং ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর-৩ আসনের সংসদ সদস্য জানান, সরকারের পক্ষ থেকে ক্ষতি গ্রস্তদেরকে পর্যাপ্ত পরিমান ত্রাণ সামগ্রী দেয়া হবে।

এদিকে ভয়াবহ এই টর্নেডোর আগাতের পর  ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার চিনাইর, বাসুদেব, মাছিহাতা, ফুলবাড়ীয়া, উরশিউড়া গ্রামের কয়েকশ পরিবার খোলা আকাশের নিচে মানবেতর জীবন যাপন করছে। অনেক কষ্টের বিনিময়ে গড়া সোনার সংসার কয়েক মিনিটের ব্যাবধানে লণ্ডভণ্ড হয়ে গেছে।

তবে দুপুর থেকে বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের পক্ষ থেকে ত্রাণ তৎপরতা শুরু হয়েছে।

টর্নেডো কবলিত এলাকার কয়েকহাজার ঘড়বাড়ি এবং অসংখ্য গাছপালা দুমড়ে মুচড়ে গেছে। আহতদের মধ্যে ১৪০ জনকে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ২৫০ শস্যা বিশিষ্ট অধুনিক সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় অন্তত ৫০ জনকে ঢাকা এবং কুমিল্লার বিভিন্ন হাসপাতালে নেয়া হয়েছে।

গতরাতে পানিসম্পদ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ীকমিটির সভাপতি এবং ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর-৩ আসনের সংসদ সদস্য র আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালসহ দুর্গত এলাকা পরিদর্শন করেন। এসময় তিনি ক্ষতিগ্রস্তদের হাতে কাপড় এবং নগদ টাকা তুলে দেন।

ঘূর্ণিঝড়ে ২০ জন নিহত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে তিনি জানান, কুমিল্লা সেনানিবাসের দুটি মেডিকেল টিম কাজ করছে। এছাড়া প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে সরকারের পক্ষ থেকে সবধরনের সহযোগিতা করা হচ্ছে এবং হবে বলে জানান তিনি।

ঘূর্ণিঝড়ের পরপরই ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেডক্রিসেন্ট ইউনিট, ব্রাহ্মণবাড়িয়া অওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীসহ সর্বস্তরের লোকজন ক্ষতিগ্রস্তদের সাহায্যার্থে ওষুধ, চিড়া, মুড়ি, গুড়, দিয়াশলাই, কাপড়, বালিশসহ বিভিন্ন ত্রাণসামগ্রী নিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালসহ দুর্গত এলাকার বিতরণ করে।

x

Check Also

‘গ্রেটার সিলেট এসোসিয়েশন ইন স্পেন’ নির্বাচনে মুজাক্কির – সেলিম প্যানেল বিজয়ী

জিয়াউল হক জুমন, স্পেন প্রতিনিধিঃ সিলেট বিভাগের চারটি জেলা নিয়ে গঠিত গ্রেটার ...

পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর সাথে পর্তুগাল আওয়ামী লীগের মতবিনিময় সভা

আনোয়ার এইচ খান ফাহিম ইউরোপীয় ব্যুরো প্রধান, পর্তুগালঃ পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মোঃ শাহরিয়ার ...