Home | জাতীয় | বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে যোগ দিতে ঢাকা আসছেন নরেন্দ্র মোদি

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে যোগ দিতে ঢাকা আসছেন নরেন্দ্র মোদি

স্টাফ রির্পোটার : জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীর মূল অনুষ্ঠানে যোগ দিতে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ঢাকা সফরে আসছেন। অনেক আগ থেকে ভারতের প্রধানমন্ত্রীর ঢাকা সফর নিয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বার্তা দিলেও সফরের বিষয়টি নিশ্চিত ছিল না। সম্প্রতি ভারতের প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তায় নিযুক্ত কর্মকর্তাদের ঢাকা সফর মোদির সফরের নিশ্চিত বার্তা দিচ্ছে। এছাড়া মোদির ঢাকায় সফর নিয়ে ভারতীয় গণমাধ্যম হিন্দুস্থান টাইমসও প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

১৭ মার্চ বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীর মূল অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত থাকছেন মোদি। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বেশ কয়েকটি সূত্র জানিয়েছে,  ভারতীয় প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তায় নিযুক্ত কর্মকর্তারা মোদির সফর নিয়ে গত রবিবার ঢাকা সফরে আসেন। দুই দিনের সফরে এসে কর্মকর্তারা ভিভিআইপিদের নিরাপত্তায় নিয়োজিত বাংলাদেশ সরকারের দায়িত্বশীল কর্মকর্তাদের সঙ্গে তাদের সিরিজ বৈঠক করেন।

মোদি যেসব স্থানে যাবেন সেসব স্থান সরেজমিনে ঘুরে দেখেছেন। বিশেষ করে সফরে যে সড়কগুলো ব্যবহৃত হবে এবং যে হোটেলে তিনি অবস্থান করবেন সব ভালোভাবেই পর্যবেক্ষণ করেছেন কর্মকর্তারা।

মোদির ঢাকা সফর নিয়ে ভারতীয় সংবাদপত্র হিন্দুস্তান টাইমসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এ সফর হবে বাংলাদেশের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কোন্নয়নে দিল্লির আগ্রহের বহিঃপ্রকাশ। এমন একসময়ে মোদি ঢাকা সফরে যাচ্ছেন, যার কিছুদিন আগেই ভারতে বিতর্কিত নাগরিকত্ব সংশোধন আইন (সিএএ) পাস হয়েছে।

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী ঘিরে ভারতীয় প্রধানমন্ত্রীর বাংলাদেশ সফর বেশ গুরত্ব বহন করছে। কারণ ভারতের বিতর্কিত নাগরিকত্ব সংশোধন বিল এবং এনআরসি নিয়ে ঢাকা-দিল্লির সোনালি অধ্যায়ের যে টানাপোড়ন তৈরি হয়েছে সেটা হয়তো দ্বিপক্ষীয় বৈঠকের মাধ্যমে অনেকটা প্রশমিত হবে।

ভারতের চূড়ান্ত নাগরিকপঞ্জি থেকে বাদ পড়েছেন আসামের ১৯ লাখ মানুষ। ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি)’র উত্তর-পূর্বাঞ্চলের রাজ্যটিতে ক্ষমতাসীন দলের নেতারা প্রায়ই এনআরসি থেকে বাদ পড়া ব্যক্তিদের বের করে দেওয়ার কথা বলছেন।

ঢাকা-দিল্লির টানাপোড়ন নিয়ে আলোচনা হয়েছে দুই দেশেরই গণমাধ্যমে। বিশেষ করে গত বছরের ডিসেম্বরে বাংলাদেশের গুরত্বপূর্ণ দুই মন্ত্রীর দিল্লি সফর বাতিলের মাধ্যমে বিষয়টি আলোচনার জন্ম দেয়। তবে ঢাকার পক্ষ থেকে বলা হচ্ছিল, দুই দেশের সম্পর্কে কোনো ভাটা পড়েনি।

২০২০ সালের ১৭ মার্চ শুরু হয়ে ২০২১ সালের ১৭ মার্চ পর্যন্ত বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী উদযাপিত হবে। এ উপলক্ষে বাংলাদেশের পাশাপাশি বিশ্বের নানা প্রান্তে বছরজুড়ে বিভিন্ন অনুষ্ঠান আয়োজনের প্রস্তুতি চলছে।

বঙ্গবন্ধুর এই জন্মশত বার্ষিকীতে মূল অনুষ্ঠানে আন্তর্জাতিক ব্যক্তিত্ব ও বিশ্বনেতাদের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।

২০২০ সালে পূর্ণ হবে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী এবং ২০২১ সাল হবে বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী। এ উপলক্ষ্যে বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী জাঁকজমকভাবে পালন করবে বাংলাদেশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

শুটিংয়ে ফিরলেন আলিয়া ভট্ট

বিনোদন ডেস্ক : বলিউডে একে একে সব বড় তারকাই শুটিং ফ্লোরে ফিরছেন। কেউ ...

বহু প্রশ্নের মধ্যেই জিজ্ঞাসাবাদ দীপিকা কে

বিনোদন ডেস্ক : সোশ্যাল মিডিয়া এবং নাগরিক সমাজে উঠে আসা বেশ কিছু প্রশ্নের ...