Home | অর্থনীতি | ব্যবসা ও বাণিজ্য | জমজমাট ঈদ বাজার

জমজমাট ঈদ বাজার

সুমন কর্মকার : ঈদকে সামনে রেখে বাগেরহাটের ফকিরহাটে জমে উঠেছে ঈদের কেনাকাটা। বিপণী বিতানে ক্রেতা-বিক্রেতারা ব্যাস্ত সময় পার করেছেন। তরুণ-তরুণীরা পছন্দের পোশাকের খোঁজে ছুটছেন অভিজাত মার্কেটগুলোতে। শিশু-কিশোর আর সাধারণ মানুষরাও বাদ যাচ্ছেন না এ থেকে।
এদিকে অভিজাত টেইলার্স থেকে শুরু করে দর্জি বাড়িগুলোরও দম ফেলবার সময় নেই। শেষ মুহূর্তে ব্যাস্ত সময় পার করছেন দর্জিরা। অধিকাংশ টেইলার্স ২০ রমজানের পর থেকে অর্ডার নেয়া বন্ধ করে দিয়েছে।
এবার তরুণীদের ঈদের পোশাকে ভারতীয় হিন্দি সিনেমা ও টিভি সিরিয়ালের নায়িকাদের ব্যবহৃত পোশাকের খুব একটা চাহিদা নেই। এবারের ঈদে তরুণীদের মনে সে জায়গাটি দখল করেছে দেশি ভ্যারাইটিসের পোশাক। এবারের ঈদে তরুণীদের পছন্দের তালিকায় রয়েছে লং থ্রিপিস জিনাম, গঙ্গা, বিনয় ফ্যাশন প্রভৃতি। এসব থ্রিপিস ৩ হাজার টাকা থেকে ৯ হাজার টাকা পর্যন্ত বিক্রি হচ্ছে।
অবশ্য ক্রেতাদের অভিযোগ, নিত্যনতুন ডিজাইনের সব ধরনের পোশাক মিললেও বিগত বছরের তুলনায় এ বছর পোশাকের দাম বেশি। এতে ক্রেতারা ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। তবে, ব্যবসায়ীদের দাবি এবার উচ্চবিত্তরা ঈদের বাজার করতে কলকাতায় যাচ্ছে। সে কারণ উচ্চবিত্তদের তুলনায় মার্কেটগুলোতে মধ্যবিত্ত ক্রেতারাদেরই ভিড় বেশি হচ্ছে।
সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, ক্রেতা-দর্শনার্থীদের পদভারে মুখরিত হয়ে উঠেছে উপজেলার প্রতিটি দোকান ও বিপণী বিতানে, ফকিরহাটের তালুকদার মার্কেট, হল মার্কেট, জিএম মার্কেট, মা-মনি মার্কেট, লিটন মার্কেট, রেলওয়ে মার্কেট, স্টাইল বাজার, প্রভৃতি। এগুলোর পাশাপাশি স্থানীয়ভাবে ডিজাইন করা বুটিক-বাটিকের দোকানগুলোতে ক্রেতাদের আগ্রহ বেশ।
ফ্যাশনপ্রিয়দের ঈদের পোশাকের চাহিদা মেটানোর লক্ষ্যে দোকানে শোভা পাচ্ছে মনকাড়া ডিজাইনের বাহারি নামের পোশাক। বিশেষ করে তরুণী ও বাচ্চাদের পোশাকের ক্ষেত্রে এ মার্কেটের দোকানগুলো ঈদকে সামনে রেখে নিত্যনতুন ডিজাইনের সমাহার ঘটাচ্ছে। দোকানীদের মতে ঈদের দু’-তিন আগেই তাদের সব পোশাক বিক্রি হয়ে যাবে। ঈদের হিট কালেকশন হিসাবে রয়েছে, জর্জেটের ওপর কাজ করা থ্রিপিস। এটি বিক্রি হচ্ছে ৩ হাজার টাকা থেকে ৫ হাজার টাকার মধ্যে। থ্রিপিস রাখি ৩ হাজার টাকা থেকে ৪ হাজার টাকা, বর্ষা ৩ হাজার টাকা থেকে সাড়ে ৪ হাজার টাকা, হিরার সিল্ক সাড়ে ৪ হাজার টাকা থেকে ৫ হাজার টাকা এবং ডাবল পার্ট থ্রিপিস সাড়ে ৩ হাজার টাকা থেকে ৬ হাজার টাকা দামে বিক্রি হচ্ছে।
ঈদ বাজারে নারীদের পছন্দের তালিকায় শীর্ষে রয়েছে ভারতীয় শাড়ি। এর মধ্যে আছে সাউথ বেনারশী, জর্জেট, সিল্ক বুটিক্স, ট্রাডিশনাল প্রভৃতি। এসব শাড়ি ৪ হাজার টাকা থেকে শুরু করে ২০ হাজার টাকা দামে বিক্রি হচ্ছে।
পছন্দের পোশাক কিনতে তরুণীদের পাশাপাশি তরুণরাও ঘুরপাক খাচ্ছে এক দোকান থেকে আরেক দোকানে। তরুণদের জন্য রয়েছে বিভিন্ন ধরনের পাঞ্জাবি, ফতুয়া, টি-শার্ট, গেঞ্জি, শার্ট-প্যান্টসহ দেশি-বিদেশি হরেক রকম পোশাক। ফুল হাতা শার্টের তুলনায় এবার চাহিদা বেড়েছে হাফ হাতার বিভিন্ন কাটিংয়ের শার্ট। ছেলেদের এসব পোশাকের দাম সাতশ’ টাকা থেকে শুরু করে ৬ হাজার টাকা দামে বিক্রি হচ্ছে।
উপজেলার তালুকদার মার্কেটের ড্রেস কর্ণারের স্বত্বাধীকারি বিপ্লব পাল এ প্রতিবেদককে জানান, এবার ঈদে বিক্রি ভালোই হচ্ছে, বেশি দামে কেনার কারনে একটু বেশি দামে বিক্রি করতে হচ্ছে, তবে দাম ক্রেতাদের নাগালের মধ্যেই রয়েছে বলে জানান তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

খালেদার জন্মদিনে কেকের বদলে দোয়া

বিশেষ প্রতিনিধি : এ বছর বিএনপি, অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠন দলীয় চেয়ারপারসন খালেদা ...

বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

বিশেষ প্রতিনিধি : জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেছেন ...