Home | টিপস | পেইন কিলারে কিডনি নষ্ট

পেইন কিলারে কিডনি নষ্ট

বিডিটুডে ডেস্ক : ব্যথা নিরাময়ের জন্য আমরা অনেকেই দীর্ঘদিন ধরে পেইন কিলার বা ব্যথার ওষুধ সেবন করে আসছি। আবার অনেকেই চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়াই প্রতিনিয়ত ব্যথার ওষুধ খেয়ে থাকেন। যারা কারণে বা অকারণে ব্যথার ওষুধ সেবন করেন তাদের জেনে রাখা ভালো, বেশিরভাগ ব্যথার ওষুধ শরীরকে কিছু সময়ের জন্য ব্যথামুক্ত করলেও এগুলো কিডনিসহ অন্য অঙ্গ-প্রত্যঙ্গের জন্য হুমকিস্বরূপ। ব্যথার ওষুধ সাধারণত দুই ধরনের হয়ে থাকে। একটি এসিটোএমিনোফেন (প্যানাডল, টাইলেনল) এবং অন্যটি নন-স্টেরয়ডেল এন্টি ইনফ্লামেটরি (ঘঝঅওউ) ড্রাগ। এ দুই গ্রুপের ওষুধই ব্যথা কমায়। আমাদের শরীরে দুইটি কিডনি থাকে। কিডনির কাজ হলো শরীরের বর্জ্য নিষ্কাশন করা এবং তরল ও ইলেকট্রোলাইটের ভারসাম্য রক্ষা করা। এক গবেষণায় দেখা গেছে, ব্যথার ওষুধ কিডনির কাজের ছন্দে বাধার সৃষ্টি করে এবং এসব ওষুধ নিয়মিত খেলে কিডনির সাময়িক ক্ষতিসহ বড় ধরনের যে কোনো ক্ষতিও হতে পারে। চিকিৎসা বিজ্ঞানীরা নানা গবেষণায় প্রকাশ করেছেন, কিডনি রোগের অন্যতম একটি কারণ ব্যথার ওষুধ। তাই আর অকারণে দীর্ঘদিন ব্যথার ওষুধ সেবন নয়। আর যাদের দীর্ঘদিন ব্যথার ওষুধ সেবন করতে হয় তাদের অবশ্যই নিয়মিত কিডনি ফাংশন টেস্ট করে চিকিৎসকের পরামর্শ মতো এটি সেবন করতে হবে।

লেখক : চেয়ারম্যান ও চিফ কনসালটেন্ট ঢাকা সিটি ফিজিওথেরাপি হাসপাতাল। ধানমন্ডি, ঢাকা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

ভারতের প্রথম রোবট পুলিশ

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক : প্রথমবারের মতো রোবট পুলিশ নিয়োগ দিয়েছে ভারত। শুধুমাত্র একটি যন্ত্র ...

চকবাজারে অগ্নিকাণ্ডে সমাবেদনা জানালেন মমতা

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক : রাজধানীর চকবাজারে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় সমবেদনা জানিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ...