ব্রেকিং নিউজ
Home | ব্রেকিং নিউজ | পার্বত্য চট্টগ্রামের বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব কঠিন চীবর দানোৎসব শুরু

পার্বত্য চট্টগ্রামের বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব কঠিন চীবর দানোৎসব শুরু

চাইথোয়াই মারমা, খাগড়াছড়ি : খাগড়াছড়ি, রাংগামাটি, বান্দরবান ও কক্্রবাজারসহ পার্বত্য জেলা ধর্মীয় রীতি-নীতির নানান আনুষ্ঠানিকতায় পার্বত্য চট্টগ্রামের বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের অন্যতম প্রধান ধর্মীয় উৎসব দানোত্তম কঠিন চীবর দানোৎসব শুরু হয়েছে। বৌদ্ধ ভিক্ষুদের তিন মাস বর্ষাবাসের পর প্রবারণা পূর্ণিমা পালনের মধ্য দিয়ে মাসব্যাপী এ ধর্মীয় উৎসব শুরু হয়।

মাত্র ২৪ঘণ্টার মধ্যে তুলা থেকে সুতা, সুতা থেকে কাপড় বুনে চীবর(বৌদ্ধ ভিক্ষুদের পরিধেয় কাপড়) তৈরি করা কঠিন চীবরের মূল আকর্ষণ। তবে এ বছর করোনার কারণে ২৪ঘণ্টার মধ্যে তুলা থেকে সুতা এবং সুতা থেকে কাপড় বুনার কার্যক্রম হচ্ছে না। স্বাভাবিকভাবে বাজার থেকে কাপড় কিনে চীবর বানিয়ে এবং তা সীমাঘরে ভান্তেদের মন্ত্র দ্বারা কঠিনে পরিণত করে ভান্তেদের চীবর দান করা হচ্ছে।

এ বছর করোনা কালিন স্বাস্থ্যবিধি মেনে চীবর দান অনুষ্ঠিত হচ্ছে বলে জানান বৌদ্ধ নর-নারীরা। রোববার(১লা নভেম্বর) খাগড়াছড়ি দীঘিনালা বনবিহারে কঠিন চীবর দান অনুষ্ঠিত হয়। উৎসবে বৌদ্ধ ধর্মীয় গুরু ও বিহার অধ্যক্ষ নন্দপাল মহাস্থবির ভান্তে সমবেত দায়ক-দায়িকাদের উদ্দেশে ধর্মীয় দেশনা দেন।

এদিকে প্রবারণা পূর্ণিমা উপলক্ষে শনিবার (৩১ অক্টোবর) সন্ধ্যায় শহরের শতবর্ষে ঐতিহ্যবাহী প্রাচীনতম য়ংড বৌদ্ধ বিহারে হাজার বাতি প্রজ্জ্বলনসহ বিভিন্ন ধর্মীয় আনুষ্ঠানিকতার দিনব্যাপী আয়োজন করা হয়। তবে এই বছর করোনাকালীন প্রশাসনে করা নির্দ্দেশনা থাকার কারনে ওয়াগ্যেই লাব্রে পুইয়ে(প্রবারণা পূর্নিমা) উপলক্ষে রিই ছিমি:(জল প্রদীপ) ময়ূরপঙ্খি কল্পতরু জাহাজ জলে ভাসানো হয়নি। যথাযথ দূরত্ব বজায় রেখে মহালছড়ি ও মাইসছড়িতে পৃথকভাবে মারমা, রাখাইন যুব সমাজের উদোগে ওয়াগ্যেই লাব্রে পুইয়ে(প্রবারণা পূর্নিমা) উপলক্ষে রিই ছিমি:(জল প্রদীপ) ময়ূরপঙ্খি কল্পতরু জাহাজ জলে ভাসানো অনুষ্ঠিত হয়েছে। জেলার মহালছড়ি মাইসছড়ি ইউনিয়ন ও সদর উপজেলায় শনিবার(৩১শে অক্টোবর) বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বীদের দ্বিতীয় বৃহত্তর ধর্মীয় উৎসব ওয়াগ্যেই লাব্রে পুইয়ে(প্রবারণা পূর্নিমা) উপলক্ষে রিই ছিমি:(জল প্রদীপ) ময়ূরপঙ্খি কল্পতরু জাহাজ চেংগী নদীর জলে ভাসানো অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার ভোর সকালে ওয়াগ্যেই লাব্রে পুইয়ে(প্রবারণা পূর্নিমা) দিন মাইসছড়ি শাক্যমনি বৌদ্ধ বিহারে ভান্তে ও শ্রমনরা পাড়ায় পাড়ায় লাইনে লম্বা হেতে দায়ক-দায়িকাদের পিন্ডিচরন গ্রহন করা হয়। মাইসছড়ি বুলি পাড়া থেকে নদী পথে ক্যায়াং ঘাট, বদনালা, লেমূছড়ি, খ্যংসা পাড়া, সিংগিনালা পর্যন্ত লম্বাভাবে পরিভ্রমনের পর রিই ছিমি: কল্পতরু জাহাজটি যাত্রা শুরু করে। পরবর্তীতে রিই ছিমি:(জল প্রদীপ) ময়ূরপঙ্খি কল্পতরু ১৫টি ইঞ্জিনচালিত নৌকায় করে এলাকার চেংগী নদীপথ প্রদক্ষিণ ও পরিক্রমা শেষে সম্পূর্ণ ধর্মীয় রীতি অনুসারে কল্পতরু ময়ূরপঙ্খি জাহাজটি কাপ্তাই হ্রদে ভাসানো হয়েছে।

মাইসছড়ি শাক্যমনি বৌদ্ধ বিহারে অধ্যক্ষ ও অনাথ আশ্রম পরিচালক প্রজ্ঞাবংশ(পঞাওয়েংশা) মহাথেরো জানান, করোনাকালীন দুরত্ব বজায় রেখে প্রতিবছর উপগুপ্ত মহাথেরোর এবং ছুলামনি উদ্দেশ্যে আকাশ বাতিসহ রিই ছিমি:(জল প্রদীপ) ভাসানো হয়। সকালে ভান্তে ও শ্রমনদের পিন্ডিচরন পর রিই ছিমি: ময়ূরপঙ্খি কল্পতরু উপগুপ্ত জাহাজটি ভাসানো হয়।

মহালছড়ি সদর উপজেলা প্রবারণা পূর্নিমা উদযাপন কমিটির রাখাইন যুব সমাজের উদোগে ও মহালছড়ি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক সুইহ্লাঅং রাখাইনের তত্তাবধানে ময়ূরপঙ্খি কল্প তরু জাহাজটি মহালছড়ি বাজার হতে ধর্মীয় র‍্যালী সহকারে চেঙ্গী নদীর তীরে নিয়ে যাওয়া হয়। পরবর্তীতে ইঞ্জিনচালিত নৌকায় করে এলাকার নদীপথ প্রদক্ষিণ ও পরিক্রমা শেষে সম্পূর্ণ ধর্মীয় রীতি অনুসারে কল্পতরু জাহাজটি চেঙ্গী নদীর জলে ভাসানো হয়।

করোনায় দুরত্ব বজায় রেখে ধর্মীয় অনুষ্ঠানাদি সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন হওয়ায় রাখাইন যুব সমাজের পক্ষ থেকে মহালছড়ি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক সুইহ্লাঅং রাখাইন এলাকাবাসীকে কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন ও সাধুবাদ জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য প্রতি বছরের ন্যায় মাইসছড়ি শাক্যমনি বৌদ্ধ বিহারে ৩৪তম রিই ছিমি:(জল প্রদীপ) ভাসানো হয় ময়ূরপঙ্খি নৌকাতে উপগুপ্ত মহাথেরো এবং ছুলামনি উদ্দেশ্যে করে আকাশ বাতিসহ রিই ছিমি:(জল প্রদীপ) কল্পতরু জাহাজ চেংগী নদীতে ভাসানো হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

বাংলাদেশ ও পর্তুগাল বর্ধিত আন্তঃ-সংসদীয় সহযোগিতায় সম্মত

আনোয়ার এইচ খান ফাহিম, ইউরোপীয় ব্যুরো প্রধান, পর্তুগাল: বাংলাদেশের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী জনাব ...

পর্তুগালে বঙ্গবন্ধু ক্রিকেট টুর্নামেন্ট২০২২ এ “লিসবন সিক্সার’স” বিজয়ী

আনোয়ার এইচ খান ফাহিম ইউরোপীয় ব্যুরো প্রধান, পর্তুগালঃ ২৪ মে বাংলাদেশ দূতাবাস ...