ব্রেকিং নিউজ
Home | ফটো সংবাদ | পাটখাতে উন্নয়নের টাকা নিয়ে আবারও বিতর্কে মন্ত্রী আবদুল লতিফ সিদ্দিকী

পাটখাতে উন্নয়নের টাকা নিয়ে আবারও বিতর্কে মন্ত্রী আবদুল লতিফ সিদ্দিকী

স্টাফ রিপোর্টার : পাটখাতে উন্নয়নের জন্য রক্ষিত টাকা ঋণের নামে গাড়ি, বাড়ি, ফ্ল্যাট কেনা ও ব্যবসা বাণিজ্যের জন্য প্রদান করা নিয়ে আবারও তুমুল বিতর্কে জড়িয়েছেন মন্ত্রী আবদুল লতিফ সিদ্দিকী। পাট মন্ত্রণালয়ের সচিব, একজন উপ-সচিব ও একজন নারী উদ্যোক্তা মন্ত্রীর এ বিশেষ কৃপা লাভ করেছেন। শুরুতে ঋণ হিসেবে টাকা প্রদানের কথা বলা হলেও ইদানীং সে ঋণ আবার তিনি নিজে মওকুফ করারও নজিরবিহীন দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। মহা হিসাব নিরীক্ষক ও নিয়ন্ত্রকের কার্যালয়ের নিরীক্ষা প্রতিবেদনে মন্ত্রীর সরকারি অর্থ নীতিমালার পরিপন্থী এ কর্মকাণ্ড ধরা পড়ে। ফলে মন্ত্রী আবদুল লতিফ সিদ্দিকীকে নিয়ে আবারও বিব্রতকর পরিস্থিতির মুখে পড়েছে সরকার।বর্তমান ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী আবদুল লতিফ সিদ্দিকী সরকারের গত মেয়াদে পাটমন্ত্রী থাকাকালে ‘আদমজী সন্স’ নামের সরকারি প্রতিষ্ঠানের তহবিল অবৈধভাবে ঋণদান কাজে ব্যবহার করেন। সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা বলেছেন, আদমজী সন্সের টাকা ঋণদানের কাজে ব্যবহারের কোনোরকম বৈধতা নেই। কিন্তু ২০১০ সাল থেকে মন্ত্রী ব্যক্তিগত প্রভাব খাটিয়ে আদমজী সন্স তহবিলের টাকা পছন্দসই ব্যক্তিদের হাতে তুলে দেন। মহা হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তার দফতর সূত্রে জানা যায়, মন্ত্রী নিজেই ঋণ সংক্রান্ত প্রস্তাবনায় সুপারিশ করেন, নিজেই তাতে অনুমোদন দেন। বিশেষ বিবেচনায় তিন জনকে ৭৫ লাখ টাকা ঋণদানের পর আবার তা মওকুফের সুযোগও দিয়েছেন মন্ত্রী নিজেই। আদমজী পাটকল বিলুপ্ত করার পর মতিঝিলে অবস্থিত এর তিনটি ভবন নিয়ে আদমজী সন্স প্রতিষ্ঠা করা হয়? সংস্থাটি ভবনগুলোর ভাড়া তুলে তা পাট খাতের উন্নয়নের জন্য ব্যয় করে। কোনো ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানকে ঋণ দেওয়ার নিয়ম সংস্থাটির নেই। তা সত্ত্বেও পাট মন্ত্রণালয়ের তৎকালীন সচিব আশরাফুল মকবুলকে গাড়ি ও ফ্ল্যাট কেনার জন্য ৫০ লাখ টাকা ঋণ দেন মন্ত্রী। সুদাসলে এখন তা ৬০ লাখ তিন হাজার ৩৯০ টাকায় দাঁড়িয়েছে। আশরাফুল মকবুল এখন জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সচিবের দায়িত্বে চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ পেয়েছেন। তিনি ঋণ নেওয়ার কথা স্বীকার করে জানান, মন্ত্রীর অনুমোদনের ভিত্তিতেই আমি ঋণটি পেয়েছি, শোধও করে দিব। অন্যদিকে নারী উদ্যোক্তা পরিচয়ে জনৈকা আসমা খাতুনকে ঋণ দেওয়া হয়েছে ২৫ লাখ টাকা। বর্তমানে তা সুদাসলে হয়েছে ৩২ লাখ ৮৯ হাজার ৫৫৫ টাকা।পাটজাত পণ্য উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান সূচিলীর মালিক আসমা খাতুন বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী লতিফ সিদ্দিকী বরাবর একটি আবেদন করেন। তাতে তিনি বলেন, ‘মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়ের নির্দেশে বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম সমাবর্তনে ভিআইপি অফিস জুট ব্যাগ সরবরাহ করার জন্য আমার অগ্রিম ১৫ লাখ টাকা প্রয়োজন। ব্যাগের মূল্য বাবদ ২৫ লাখ টাকা পাওয়ার পর আমি এই টাকা শোধ করব।’ পরে আরও ১০ লাখ টাকা ঋণের জন্য আবেদন করেন তিনি। মন্ত্রী লতিফ সিদ্দিকী অনুমোদন দিলে দুটি চেকের মাধ্যমে আসমা খাতুনকে মোট ২৫ লাখ টাকা দেয় আদমজী সন্স। কিন্তু ওই টাকাও শোধ না করে আসমা খাতুন বস্ত্র ও পাটমন্ত্রীর কাছে লেখা আরেকটি চিঠিতে ২৫ লাখ টাকার দায়মুক্তি কামনা করেন। গত বছরের ১৮ ডিসেম্বর লতিফ সিদ্দিকী আদমজী সন্সের প্রশাসক বরাবর দেওয়া এক নোটে বলেন, ‘মাননীয় মন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী সূচিলীকে দায়মুক্তি দেওয়ার স্বার্থে ঋণ চুক্তিটি বাতিল করে ওই অঙ্কের অর্থ আদমজী সন্স লি. এর অনুদান তহবিল থেকে সমন্বয় করা যেতে পারে।’একটার পর একটা কেলেঙ্কারির জন্ম দিয়ে মন্ত্রী আবদুল লতিফ সিদ্দিকী বারবার সরকারকে বিব্রতকর অবস্থায় ফেলছেন। কোনোভাবেই তার বেপরোয়া কর্মকাণ্ড থামানো যাচ্ছে না। সরকারি কর্মকর্তাদের মারধর করা, সভা সমাবেশে বেসামাল কথাবার্তা বলা, সরকারি সম্পত্তি পানির দরে বিক্রি করাসহ সরকারি নানা নোটে তুচ্ছ তাচ্ছিল্যকর নানা হাস্যকর মন্তব্য লিখে তিনি ব্যাপক সমালোচিত হন। এর আগে ২০০৯ সালে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোট সরকার তাকে পাট ও বস্ত্র মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দেওয়া হয়। ?ওই সময় ‘চট্টলা কন্যার পাণি গ্রহণ করেছি’ নোট লিখে চট্টগ্রাম সমিতিকে পানির দরে দিয়েছেন। তার স্ত্রী লায়লা সিদ্দিকী চট্টগ্রাম সমিতির সভাপতি? এছাড়া সরকারি সুতাকল ও পাটকল করপোরেশনের জমিও তিনি দরপত্র ছাড়াই নামমাত্র দামে বিক্রি করে দেন বলে অভিযোগ রয়েছে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাত ব্রিটেনের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ক্যামেরনের

স্টাফ রিপোর্টার : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাত করেছেন বাংলাদেশ সফররত ...

মে দিবস উপলক্ষে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে শ্রমিক সমাবেশ করার প্রস্তুতি বিএনপির

স্টাফ রিপোর্টার : মহান মে দিবস উপলক্ষে ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে শ্রমিক সমাবেশ ...