ব্রেকিং নিউজ
Home | বিনোদন | নন্দন পার্কসহ কালিয়াকৈরে বিনোদন পার্ক গুলোতে দর্শনার্থীদের উপচে পড়া ভীড়

নন্দন পার্কসহ কালিয়াকৈরে বিনোদন পার্ক গুলোতে দর্শনার্থীদের উপচে পড়া ভীড়

হুমায়ুন কবির,কালিয়াকৈর(গাজীপুর),
গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার বিভিন্ন স্থানে গড়ে উঠা বিনোদন পার্কগুলোতে ঈদের পরের দিন থেকে দর্শনার্থীদের উপচে পড়া ভীড় হচ্ছে। আধুনিক সব সুযোগ সুবিধা নিয়ে ব্যক্তি উদ্যোগে গড়ে ওঠেছে কালিয়াকৈরে অনেক বিনোদন পার্ক। ঈদের ছুটিতে দুর-দুরান্ত থেকে দর্শনার্থীরা ওই পার্কগুলোতে ভীড় জমায়। ঈদের ছুটিতে শিশু নারীসহ সব ধরনের লোকের সমাগম ঘটে ওই সব বিনোদন পার্কগুলোতে। যে সকল পার্কগুলোতে শিশুদের খেলাধুলার ব্যবস্থা রয়েছে সেগুলোতে ভীড় একটু বেশি। পার্কগুলোতে সারা রোজায় দর্শনার্থীদের দেখা না মিললেও ঈদের পরের দিন থেকে দর্শনার্থীদের পদভারে মুখরিত। তবে উপজেলার কয়েকটি এলাকায় বিলের পাশে গড়ে উঠা জলকুটিরেও বিনোদন পাগল দর্শনার্থীদের ভীড় লেগেই রয়েছে।ওই সব জলকুটিরে ঈদ আনন্দ উপভোগ করার জন্য ফুসকা, লুডুস, আইসক্রিম, কোমলপানীয়,কফি এবং একটু সতেজ নিশ^াস নেওয়ার জন্য স্ব-পরিবারে বেড়াতেও যেতে দেখা গেছে। শিল্পসমৃদ্ধ জেলা গাজীপুরে রয়েছে অসংখ্য বিনোদন কেন্দ্র।তাই আধুনিক ও দৃষ্টি নন্দন এই সব বিনোদন কেন্দ্র গুলো নতুন মাত্রা হিসাবে বিনোদনের ক্ষেত্র তৈরী হয়েছে শিল্পসমৃদ্ধ এই জেলার সাথে।
সোমবার সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত খোঁজ নিয়ে জানা গেছে,উপজেলার কালিয়াকৈর ও আশুলিয়ার সীমান্তবর্তী বাড়ইপাড়া এলাকার সবচেয়ে বড় বিনোদন কেন্দ্র নন্দন পার্কে দশর্নার্থীদের ভীড় লেগেই রয়েছে। ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের পাশে গড়ে উঠা ঢাকা শহরের কাছাকাছি কালিয়াকৈরের বাড়ইপাড়া এলাকার বহুল পরিচিত আরও অত্যাধুনিক ও দৃষ্টি জোরানো বিনোদন পার্ক নন্দন পার্কে এখন দর্শনার্থীদের উপচে পড়া ভিড় যেন চোখে পড়ার মতো।ছোট থেকে বড় সাবই যেন মেতে উঠেছে ঈদের আনন্দে। ঈদ উপলক্ষে আধুনিক সব রাইডস এর পাশাপাশি মনোরম প্রাকৃতিক পরিবেশে স্ব-পরিবারে সময় কাটাতে পার্কে এসেছে হাজারো বিনোদন পিয়াসু দর্শনার্থী।ঈদের আনন্দকে আরো বেশি স্মরণীয় করে রাখতে শিশুদের পাশাপাশি অভিভাবকরাও মেতে উঠেছে আনন্দের ভেলায়।ঈদ উপলক্ষে নন্দন পার্কে বাড়তি সুবিধা হিসাবে রয়েছে ওয়াটার পার্কে মর্ডান ড্যান্স,ক্লাসিক্যাল ও ডিজে ড্যান্স।এ ছাড়াও রয়েছে প্রতি টিকিটের সাথে ঈদ উপহার হিসাবে বিশেষ কুপন যাতে রয়েছে পরবর্তীতে ওই দর্শনার্থীদের জন্য বিশেষ ছাড়। অপর দিকে উপজেলার নাওলায় আশেক নগর পার্ক,কালামপুর এলাকায় গভীর বনের ভিতর সোহাগ পল্লী, চাবাগান এলাকার তুরাগ রিসোর্ট, তালতলী গ্রামের আনন্দপার্ক, রাঙামাটি গ্রামের রাঙামাটি রির্সোট, চন্দ্রা এলাকার শিল্পকুঞ্জ, রামচন্দ্রপুর এলাকার দ্বিপালি, চা-বাগান এলাকার গুলবাহার, বান্দাবাড়ী এলাকার ঢাকা রিসোর্ট, মুক্তা পার্ক, তুরাগ ওয়াটার ফ্রন্ট, মাঝুখান এলাকার নীলকমল, বড়ইবাড়ী এলাকার জলকুটির ছাড়াও সরকারী চন্দ্রা বীটের সরকারী রেষ্ট হাউজও অগনিত দর্শনার্থীরা ভীড় করছে ঈদের আনন্দ উপভোগ করার জন্য। এছাড়া সফিপুর আনসার ভিডিপি একাডেমী, মৌচাক স্কাউটস ক্যাম্প, বঙ্গবন্ধু ডিজিট্যাল হাইটেক পার্ক, আন্দার মানিক বঙ্গবন্ধু ফ্লিমসিটিতে দর্শনাথীরা দেখার জন্য দলে দলে আসছে। অনেক বিনোদন পার্কগুলোতে ঢাকা থেকে পূর্ব হতেই টিকেট সংগ্রহের ব্যবস্থা রয়েছে। স্ব-পরিবারে ভ্রমনে এসে অনেকে বিনোদন পার্কে স্বস্তি পাচ্ছেন। অনেকে বিখ্যাত মকস বিলেও সেলু মেলিশ চালিত নৌকায় উঠে পরিবার পরিজন নিয়ে বেড়াতেও দেখা গেছে।
বোয়ালী এলাকার মুক্তা বিনোদন পার্কের মালিক আজিজুর রহমান আজিজ জানান, ঈদের আনন্দ উপভোগ করার জন্য পার্কগুলোতে দর্শনার্থীদের ভীড় লক্ষনীয়। সকাল থেকে সারাদিনই আনন্দ উপভোগ করছে দুরদুরান্ত থেকে আসা দর্শনাথীরা। আমার পার্কে এখন তেমন ভাল ব্যবস্থা করতে পারিনি তবু লোকজন দেখার জন্য আসে । তবে আমার পার্কে বিনোদনের ব্যবস্থা করা হবে। যাতে দর্শনার্থীরা বিনোদনের সুযোগ পায়।
নন্দন পার্কের হেড অফ মার্কেটিং মোঃ মেজবাহ উদ্দিন প্রিন্স জানান,বিগত দিনের চেয়ে এবার ঈদে দর্শনার্থীদের উপস্থিতি সন্তোষ জনক রয়েছে। ঈদের সময় সকল দর্শনার্থীদের নিরাপত্তা বিবেচনা করে নিজস্ব ছাড়াও সরকারী আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য রাখা হয়েছে।
কালিয়াকৈর থানার ওসি মাসুদ আলম জানান, ঈদের আগে ও পরে কোথাও যেন কোন অপ্রতিকর ঘটনা না ঘটে তার জন্য পুলিশি তৎপরতা বাড়ানো হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

বাগেরহাটে মৎস্য কর্মকর্তার উদ্যোগে মাছের পোনা অবমুক্ত করণ

বাগেরহাট প্রতিনিধি : বাগেরহাটে সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তার দপ্তরের উদ্যেগে উন্মুক্ত জলাশয়ে ...

গোপালগঞ্জে বাস-মোটরসাইকেল সংঘর্ষে নিহত ১

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি : গোপালগঞ্জের মুকসুদপুরে বাস ও মোটরসাইকেলের সংঘর্ষে  ইয়াছিন (২৮) এক যুবক ...