ব্রেকিং নিউজ
Home | বিবিধ | স্বাস্থ্য | ধূমপায়ীদের ভয় দেখিয়ে লাভ নেই!

ধূমপায়ীদের ভয় দেখিয়ে লাভ নেই!

স্বাস্থ্য ডেস্ক : ‘ধূমপান স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর’ জেনেও অনেকে খুব একটা পাত্তা দেন না। ব্রিটেন একটা জরিপ চালিয়ে দেখেছে, সিগারেটের প্যাকেটে ধূমপানবিরোধী সতর্কতা-বার্তা লিখে খুব বেশি কাজ হয় না। বেশির ভাগ ধূমপায়ীই কিন্তু এগুলো পড়েই না।

 

ব্রিটেনে প্রতিটি সিগারেটের প্যাকেটের সামনে-পেছনে, এমনকি ভেতরেও ধূমপানে নিরুৎসাহিত করার মতো তথ্য, সতর্কতা-বার্তা এবং ধূমপান কত ভয়াবহ পরিণতি ডেকে আনতে পারে– তা বোঝানোর জন্য ছবি থাকে। সামনে লেখা থাকে ‘ধূমপান মৃত্যু ডেকে আনে’ বা ‘ধূমপান আপনার এবং আপনার আশেপাশের সবার ভয়ঙ্কর ক্ষতি করে’ জাতীয় কিছু সতর্কতামূলক বার্তা।

প্যাকেটের পেছনে লেখা থাকে ধূমপানের ক্ষতি বিষয়ক সুনির্দিষ্ট কিছু তথ্য। প্যাকেটের পেছনের কাগজের ভেতরের দিকে থাকে ধূমপানের কারণে পচে যাওয়া দাঁতের মাড়ি, ক্যানসারে আক্রান্ত ফুসফুস এবং ঘাড়ের ছবি। সব লেখা এবং ছবিরই উদ্দেশ্য কিন্তু মানুষকে ধূমপান থেকে বিরত রাখা।

 

অথচ ব্রিটেনের ‘টোব্যাকো কন্ট্রোল’ জার্নালে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, বিশেষ করে টিন-এজারদের মধ্যে এ ধরনের প্রয়াস যেভাবে যতটা প্রভাব বিস্তার করবে বলে আশা করা হচ্ছিল, ততটা ঠিক হচ্ছে না। তাদের কাছে যেটুকু মনোযোগ প্যাকেটের সামনের দিক পায়, পেছনের দিক পায় তার চেয়ে কম আর ভেতরের ছবিগুলো কেউ বলতে গেলে দেখেই না!

 

২০০৮ এবং ২০১১ – এই দুই বছরে দুবার চালানো হয়েছিল জরিপটি। ১১ থেকে ১৬ বছর বয়সী এক হাজারেরও বেশি কিশোর-কিশোরীর মধ্যে চালানো এই জরিপ থেকে বেরিয়ে এসেছে আজব কিছু তথ্য।

 

২০০৮ সালের ওই জরিপের সময় সিগারেটের প্যাকেটের সামনে আর পেছনের লেখাগুলোই শুধু ছিল। ২০১১ সালে প্যাকেটের ভেতরেও ছবি দেয়া শুরু হয়। দেখা গেছে, জরিপে অংশ নেয়া দুই তৃতীয়াংশ থেকে তিন চতুর্থাংশ কিশোর-কিশোরী কখনো ধূমপান করেনি। ১৭ থেকে ২২ ভাগ কিশোর-কিশোরী শুধু অভিজ্ঞতা নেয়ার জন্য দু-একবার ধূমপান করেছে। আর শতকরা দশজন নাকি সপ্তাহে অন্তত একবার ধূমপান করে।

 

তবে সতর্কতামূলক বার্তা এবং ছবির দিকে তাদের মনোযোগের বাহার দেখে জরিপ পরিচালনাকারীরা অবাক। ২০০৮ সালে শতকরা ৫৮ জন ‘ধূমপান মৃত্যু ডেকে আনে’ সতর্কতা-বার্তাটি মনে করে বলতে পেরেছিল। ‘ধূমপান আপনার এবং আপনার আশেপাশের সবার ভয়ঙ্কর ক্ষতি করে’ মনে ছিল শতকরা ৪১ জনের। ২০১১ সালে ওই কিশোর-কিশোরীদের অনেকের মন থেকে সেইটুকুও মুছে যায়। ‘ধূমপান মৃত্যু ডেকে আনে’ কথাটি তখন মনে ছিল শতকরা ৪৭ জনের, আর ‘ধূমপান আপনার এবং আপনার আশেপাশের সবার ভয়ংঙ্কর ক্ষতি করে’ মনে ছিল শতকরা মাত্র ২৫ জনের।

 

স্বাভাবিকভাবেই, সিগারেটের প্যাকেটের পেছনের দিকে নজর তাদের গেছে কম। ভেতরের ছবিগুলো দেখেছে মাত্র শতকরা ১০ জন। নিয়মিত ধূমপায়ীদের অবস্থা আরো ভয়াবহ। তাদের কেউ কেউ তো এই সতর্কতামূলক বার্তা পড়েই না, ভেতরের ছবিগুলো ঢেকে রাখার ব্যবস্থা করে বাড়তি খরচ করে।

 

এক ধরনের প্যাকেট কিনতে পাওয়া যায়, সেগুলোর সহায়তা নিয়ে মৃত্যুর কথা মনে করিয়ে দেয়া ছবিগুলো তারা যে দেখেই না! সূত্র: ডয়চে ভেলে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

দেশে ৬ জনের শরীরে মিললো করোনার নতুন ধরন

ডেস্ক রিপোর্ট : বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত ছয়জনের শরীরে মিলেছে ব্রিটেনে শনাক্ত হওয়া ...

মদন উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তার বিরুদ্ধে নানা অনিয়মের অভিযোগে

মদন (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি : নেত্রকোনার মদন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্মচারিগণ অভিযোগ করেছেন ...