Home | বিবিধ | আইন অপরাধ | ধর্ষন মামলার আসামী ১৮ মাস পর ঢাকায় আটক

ধর্ষন মামলার আসামী ১৮ মাস পর ঢাকায় আটক

ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধি : দীর্ঘ ১৮ মাস পর ধর্ষণ মামলার আসামী আকাশ চৌধুরী (৩৫) কে ফুলবাড়ী থানার পুলিশ ঢাকা থেকে আটক করেন। দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলার শীবনগর ইউপি’র চককবির (তেলিপাড়া) গ্রামের মোঃ জাহিদুল ইসলাম এর স্ত্রী মোছাঃ সয়েদা বেগম মুক্তা (৩৫) ফুলবাড়ী থানায় গত ১ জুলাই ২০১৮ ইং তারিখে দায়ের করা মামলার অভিযোগ সূত্রে জানা যায় বেতদিঘী ইউপি’র বেতদিঘী গ্রামের সেলিম চৌধুরী ও মাতা বাপ্পি চৌধুরীর পুত্র মোঃ আকাশ চৌধুরী (৩৫), মোছাঃ সয়েদা বেগম মুক্তা (৩৫) এর সাথে তার বিবাহ হয় এবং তার বিবাহিত স্ত্রী।

উক্ত মহিলার পূর্বের স্বামীর গর্তজাত কন্যা মোছাঃ জেবা পারভীন (১৪) নামে তার একটি মেয়ে রয়েছে। উক্ত প্রতারক মোঃ আকাশ চৌধুরীর একটি পুত্র সন্তান রয়েছে যার নাম মোঃ সিয়াম (১০) কে গত ২২/০৪/২০১৮ ইং তারিখে সকাল ৯টায় ফুলবাড়ী উপজেলার লক্ষীপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পৌছে দেওয়ার পর প্রতারক মোঃ আকাশ চৌধুরী পূর্বের স্বামীর মেয়ে মোছাঃ জেবা পারভীন কে অতি কৌসলে অপহরন করে ঢাকায় নিয়ে যান। সেখানে একাধিক ভাড়া বাসায় রেখে ইচ্ছার বিরুদ্ধে ঘরে তালাবদ্ধ করে রেখে ১৮ মাস শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন এবং যৌনমিলনে বাধ্য করে। এছাড়া অর্থের বিনিময়ে অন্যের সাথে দেহ মিলনে বাধ্য করে। গত ১৪/১০/২০১৮ ইং তারিখে মোছাঃ জেবা পারভীন অতি কৌশলে ঐ বদ্ধ ঘর থেকে পালিয়ে ফুলবাড়ীতে আসে। সেখান থেকে ফুলবাড়ী থানার পুলিশ তাকে উদ্ধার করে। উদ্ধার করে ফুলবাড়ী উপজেলা সমাজ সেবা অফিসে এনে ২০১৩ সালে শিশু আইনের ৪৭(১), ধারা মোতাবেক তার জবানবন্ধি নেওয়া হয় এবং নির্যতনের বর্ণনা দেয়। বিভাগীয় পরিচালক, ফরেনসিক মেডিসিন বিভাগ, এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল দিনাজপুরে মোছাঃ জেবা পারভীন কে পাঠিয়ে দেন। সেখানে ধর্ষন এবং বয়স জনিত পরীক্ষা করা হয়। ফরেনসিক রিপোটে ধর্ষণের আলামত পাওয়া যায়।

অপরদিকে গত ২৩/১০/২০১৮ ইং তারিখ রাত্রীতে ফুলবাড়ী থানার পুলিশ ঐ মামলার বাদীনির কথা মতো ধর্ষণ মামলার আসামী মোঃ আকাশ চৌধুরী মোবাইল ফোন ট্রাকিং করে স্থান যাচাই করে ঢাকার মালিবাগ চৌধুরী পাড়া থেকে অনেক কষ্টে ও অক্লান্ত পরিশ্রম করে ফুলবাড়ী থানার এস আই আব্দুর রহমান, এ এস আই মোঃ মাহাফুজ রামপুরা থানার সহযোগীতায় তাকে আটক করে। ফুলবাড়ী থানার পুলিশ মোঃ আকাশ চৌধুরী গত ২৪ অক্টোবর বুধবার দিনাজপুর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করলে ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ১৮ মাস আটক ও ধর্ষণের ঘটনা স্বীকার করেন।

উল্লেখ্য যে, মোঃ আকাশ চৌধুরী একজন প্রতারক সে ভোটার আইডি কার্ড জালিয়াতি করে আকাশ চৌধুলী, পিতা- সেলিম চৌধুরী, মাতা- বাপ্পি চৌধুরী, সাং- বেতদিঘী, উপজেল- ফুলবাড়ী, দিনাজপুর দেখিয়েছেন। ফুলবাড়ী থানার পুলিশ তার সঠিক ঠিকানা জানার জন্য ইউপি চেয়াম্যান মোঃ শাহ আব্দুল কুদ্দুস কে বিষয়টি জানালে তিনি থানাকে একটি প্রত্যয়ন পত্র দেন এবং জানান এই নামে ঐ গ্রামে কোন ব্যক্তি নাই। ফুলবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ নাসিম হাবীব আসামী আকাশ চৌধুরী কে একাধিকবার সঠিক তথ্য দিতে বললে সে একেক সময় একেক ঠিকানা বলেন। সে বিভিন্ন এলাকায় ভাসমান ভাড়িটিয়া হিসেবে বসবাস করে অপরাধমূলক কর্মকান্ড ঘটিয়ে থাকে।

এ বিষয়ে মোছাঃ জেবা পারভীন এর মাতা মোছাঃ সয়েদা বেগম মুক্তা এর সাথে কথা বললে তিনি জানান, আমি ঐ প্রতারকের বিরুদ্ধে গত ০১/০৭/২০১৮ ইং তারিখে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন (সং/০৩) এর ৭/৯ (১) ধারায় মামলা করি যার মামলা নং- ০২, তার ঢাকায় গডফাদারদের সাথে বিশাল নেওয়ার্ক রয়েছে। সে বিভিন্ন এলাকা থেকে মেয়েদের কে প্রেমের ছলনা করে ঢাকায় নিয়ে গিয়ে তাদের সর্বনাস করায় কাজ। আমি তার বিচার চাই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

বিভিন্ন অঞ্চলে বৃষ্টির সম্ভাবনা

স্টাফ রিপোর্টার : দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে বৃষ্টির সম্ভাবনা থাকলেও কয়েক অঞ্চলে তাপপ্রবাহ অব্যাহত ...

লুটপাটের উন্নয়নের কথা শুনতে শুনতে জনগণ অতিষ্ঠ: রিজভী

ডেস্ক রিপোর্ট : লুটপাটের উন্নয়নের কথা শুনতে শুনতে জনগণ অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে বলে মন্তব্য ...