ব্রেকিং নিউজ
Home | জাতীয় | দীপনকে হত্যার প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার কফিন মিছিল গণজাগরন মঞ্চের

দীপনকে হত্যার প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার কফিন মিছিল গণজাগরন মঞ্চের

স্টাফ রিপোর্টার : জাগৃতি প্রকাশনীর স্বত্ত্বাধিকারী ফয়সল আরেফিন দীপনকে হত্যার প্রতিবাদে আগামী বৃহস্পতিবার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় অভিমুখে কফিন মিছিল করবে গণজাগরণ মঞ্চ।এছাড়া শুক্রবার বিকাল ৩টায় সকল পেশাজীবীর অংশগ্রহণে বিপ্লবী চিন্তার সংহতি সমাবেশের ঘোষণা দেয়া হয়।এসময় স্বতস্ফূর্ত হরতাল পালনের জন্য দেশবাসীকে ধন্যবাদ জানান গণজাগরন মঞ্চের নেতা ইমরান  এইচ সরকার।
রাজধানীর শাহবাগে মঙ্গলবার বেলা সোয়া ১১টার দিকে সাংবাদিকদের ইমরান এইচ সরকার বলেন, ‘সারাদেশের মানুষ হরতাল পালন করেছে। বরিশাল ও রাজবাড়ীতে আমাদের কর্মীদের বাধা দিয়েছে পুলিশ। সে বাধা অতিক্রম করে তারা হরতাল পালন করেছে। সারাদেশে গণজাগরণ মঞ্চের কর্মীরা শান্তিপূর্ণভাবে হরতাল পালন করেছে।
তিনি বলেন, ‘শুধু ব্লগাররা নয়, পীর ও ধর্ম যারা প্রচার করেন তারাও উগ্রপন্থীদের টার্গেট হচ্ছেন। তাদের মতাদর্শের সঙ্গে যাদের মিলছে না তাদের ওপরই হামলা করা হচ্ছে। আমাদের লড়াই শুভ-অশুভর লড়াই। এ লড়াইয়ে আমাদের জয়ী হতেই হবে।পরে ইমরান এইচ সরকারের নেতৃত্বে শাহবাগ মোড় থেকে বাংলামোটর হয়ে শাহবাগ পর্যন্ত মিছিল করেন গণজাগরণ মঞ্চের কর্মীরা। দুপুর ১২টার দিকে শাহবাগের মোড় ছেড়ে দেন গণজাগরণ মঞ্চের কর্মীরা। পরে যানবাহন চলাচল শুরু করে।এর আড়ে প্রকাশককে হত্যার প্রতিবাদে মঙ্গলবার গণজাগরণ মঞ্চের ডাকা আধাবেলা হরতাল ঢিলেঢালাভাবে পালিত হয়। শাহবাগ মোড়ে গণজাগরণ মঞ্চের কর্মীদের অবস্থানের কারণে ওই মোড় দিয়ে সব ধরণের যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।
পুলিশও রুপসী বাংলা মোড়, শিশুপার্কের সামনের সড়ক এবং আজিজ  সুপার মার্কেট সংলগ্ন কাটাবন মোড় বন্ধ করে দেয়। ফলে শহবাগ মোড় হয়ে কোনো যানবাহন চলাচল করে নি। গণজাগরণ মঞ্চের কর্মীরা শহাবাগ মোড়ে অবস্থান নিয়ে স্লোগানে স্লোগানে মুখর করে তুলে ওই এলাকা।রাজধানীর অন্যান্য এলাকায় যান চলাচল মোটামুটি স্বাভাবিক ছিল। তবে অফিস সময়েও রাজধানীর কোথাও যানজট তৈরি হতে দেখা যায়নি। স্কুল কলেজসহ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ ছিল।
আজকের সকালের জেএসসি এবং জেডিসি পরীক্ষা পিছিয়ে দুপুর ২টায় করা হয়। রাজধানীর সড়কে প্রাইভেট কার দেখা গেলেও সংখ্যায় ছিল কম। তবে রিকশা দেখা গেছে ব্যাপক সংখ্যায়। বাস চলাচল ছিল স্বাভাবিক। বেশিরভাগ স্টেশন থেকে দূরপাল্লার বাস ছেড়ে গেছে যথারীতি। লঞ্চ ও বিমান চলাচল স্বাভাবিক ছিল। ট্রেনও যাত্রী নিয়ে সময়মতো ছেড়ে যায়।
রাজধানী ছাড়াও, চট্টগ্রাম, সিলেট, রাজশাহী, খুলনা, বরিশালসহ বিভিন্ন বিভাগীয় শহরের প্রধান প্রধান পয়েন্টে অবস্থান নেয় গণজাগরণ মঞ্চের কর্মীরা। এসময় তারা হরতালের সমর্থনে শ্লোগান দেয়।গত শনিবার জাগৃতি প্রকাশনীর স্বত্ত্বাধিকারী ফয়সল আরেফিন দীপনকে নিজ কার্যালয়ে কুপিয়ে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। একইদিন কবি তারেক রহিম, শুদ্ধস্বর প্রকাশনীর স্বত্ত্বাধিকারী আহমেদুর রশীদ টুটুল ও লেখক-গবেষক রণদীপম বসুকে হত্যা চেষ্টা করে দুর্বৃত্তরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাত ব্রিটেনের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ক্যামেরনের

স্টাফ রিপোর্টার : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাত করেছেন বাংলাদেশ সফররত ...

মে দিবস উপলক্ষে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে শ্রমিক সমাবেশ করার প্রস্তুতি বিএনপির

স্টাফ রিপোর্টার : মহান মে দিবস উপলক্ষে ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে শ্রমিক সমাবেশ ...