ব্রেকিং নিউজ
Home | বিবিধ | কৃষি | দিনাজপুরে বাড়ছে লাইভ পার্চিং ব্যবহার

দিনাজপুরে বাড়ছে লাইভ পার্চিং ব্যবহার

দিনাজপুর প্রতিনিধি : দিনাজপুরে ধান ক্ষেতে ফসলের মাঠে লাইভ পার্চিং এর ব্যবহার বাড়ছে। এই লাইভ পার্চিং ব্যবহারের ফলে ক্ষেতে প্রকৃতিকভাবে ক্ষতিকারক পোকা-বালাই দমনের সাথে মাটি’র নাইট্রোজেন ঘাটতি পূরণ হচ্ছে। এতে ফসলে কীটনাশক স্প্রে’র বাড়তি খরচের প্রভাব পড়ছে না যেমন, তেমনি সারের অপচয়ও কমছে। এতে,পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষার পাশাপাশি বাড়ছে ফসলের উৎপাদন। এ কারণে এ অঞ্চলে কৃষকের কাছে বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে লাইভ পার্চিং ব্যবহার।

আগের বছর গুলোতে উপকার পাওয়ায় এবারও দিনাজপুরের বিরল উপজেলার পুরিয়া গ্রামের কৃষক মতিউর রহমান তার ফসলের ক্ষেতে ব্যাপক হারে ব্যবহার করছেন লাইভ পার্চিং। রাষ্ট্রীয় পুরস্কারপ্রাপ্ক কৃষক মতিয়ার জানান,এই লাইভ পার্চিং জমিতে ব্যবহার করে তার যেমন সার ও কীট নাশকের অপচয় কমেছে,তেমনি আর্থিক সাশ্রয়ের পাশাপাশি প্রকৃতিকভাবে ক্ষতিকারক পোকা-বালাই দমনের সাথে পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় বেড়েছে ফসলের উৎপাদন।

শুধু কৃষক মতিউর রহমান নয়, দিনাজপুরের অসংখ্য কৃষক এখন ব্যবহার করছে লাইভ পার্চিং।

দিনাজপুরে এবার ২ লাখ ৬০ হাজার হেক্টর জমিতে আমন ধান রোপণ করা হয়েছে,তার অধিকাংশ বিস্তৃর্ণ এলাকার ফসলের মাঠ জুড়ে এখন শুধুই চোখে পড়ছে এই লাইভ পার্চিং। আফ্রিকান জাতের এই ধনচে গাছ ফসলের ক্ষেতে রোপণ করেছে কৃষক।

সরজমিনে দেখা গেছে,ফসলের মাঠে এই গাছ লাগানোর ফলে পাখি এসে বসছে তাতে। অভাণ্যে এই গাছে বসে পাখি ধরছে ,ক্ষেতের পোকা। তা আহারের মাধ্যমে ক্ষেতের ক্ষতিকারক পোকা দমনে সহায়তা করছে,পাখি।

বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশন-বিএডিসি দিনাজপুর অঞ্চলের কন্ট্রাক্ট গ্রোয়ার্স এর উপ-পরিচালক মো.কামরুজ্জামান সরকার জানালেন,লাইভ পার্চিং ব্যবহারে শুধু ক্ষতিকারক পোকা দমনেই চচ্ছে না, মাটি এ গাছের মাধ্যমে পূরণ করছে ঘাটতি নাইট্রোজেন।এই লাইভ পার্চিং এর ব্যবহারের ফলে ফসল কাটার পর কৃষক পাচ্ছে,বাড়তি জ্বালানী খড়ি। সেই সাথে বাড়ছে, ফসলের উৎপাদন। রক্ষা পাচ্ছে,পরিবেশের ভারসাম্য।

লাইফ পার্চিং এর ব্যবহার বাড়াতে ও কৃষকদের উদ্ভুদ্ধ করতে,কৃষি বিভাগসহ কাজ করছে বিএডিসি।পদ্ধতি অনুসরণ করে ইতোমধ্যে বেশ সুফলও পেয়েছেন তারা। ্এমনটাই জানালেন,দিনাজপুর জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক কৃষিবিদ মো.তৌহিদুল ইকবাল। তিনি জানান,দিন দিন কমে আসছে সার ও কীটনাশকের ব্যবহার। সাশ্রয় হচ্ছে অর্থের; পাচ্ছেন ফসলের ভালো ফলন। ভারসাম্য রক্ষা হচ্ছে পরিবেশের। ফলে দিনদিন এ পদ্ধতি ব্যাবহারে আকৃষ্ট হচ্ছে কৃষক।

জেলার বিস্তৃর্ণ এলাকায় ক্ষেতের আইলে সারিবদ্ধ ধনছে গাছেই জানান দিচ্ছে,এ অঞ্চলে লাইভ পারচিং এর ব্যবহার বাড়ছে।এতে যেমন সার ও কিটনাশকের আপচয় কমছে। প্রাকৃতিক ভাবে পোকা ও বালাই দমনের পাশাপাশি বাড়ছে ফসল উৎপাদন। সংশ্লিষ্ট বিভাগের সহযোগিতা অব্যাহত থাকলে এ অঞ্চলে লাইভ পার্চিং এর ব্যবহার আরো বৃদ্ধি পাবে এমনটাই মন্তব্য করছেন কৃষিবিদরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

মদনে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাদ্য তৈরি ও লাইসেন্স না থাকায় ভ্রাম্যমান আদালতে ৬ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা

সুদর্শন আচার্য্য, মদন (নেত্রকোনা) ঃ নেত্রকোনার মদন পৌর সদরের ৬টি দোকানে অভিযান ...

সিলেটের বন্যায় কবলিতদের পাশে “পর্তুগাল বাংলা প্রেসক্লাব”

আনোয়ার এইচ খান ফাহিম ইউরোপীয় ব্যুরো প্রধান, পর্তুগালঃ বাংলাদেশের সিলেটে স্মরণকালের সবচেয়ে ...