ব্রেকিং নিউজ
Home | সারা দেশ | দলিল লেখকদের ঘুষের টাকা ভাগবাটোয়ারা নিয়ে দু’সপ্তাহ ধরে দলিল লেখালেখি বন্ধ দূর্ভোগ চরমে

দলিল লেখকদের ঘুষের টাকা ভাগবাটোয়ারা নিয়ে দু’সপ্তাহ ধরে দলিল লেখালেখি বন্ধ দূর্ভোগ চরমে

চঞ্চল বাবু,কালাই(জয়পুরহাট): জয়পুরহাটের কালাইয়ে সাব-রেজিষ্ট্রারের সাথে দলিল লেখকদের ঘুষের টাকা ভাগবাটোয়ারা নিয়ে বনিবনা না হওয়ায় গত দু’সপ্তাহ ধরে দলিল লেখাখেলি বন্ধ হওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ফলে চরম দূর্ভোগে পড়েছে এলাকার জমি ক্রেতা-বিক্রেতা ও ব্যাংকের ঋণ গ্রহিতারা। সংকট নিরসন করতে দলিল লেখক ও সাব-রেজিষ্ট্রার দফায় দফায় বৈঠক করলেও গতকাল রোববার বিকেল পর্যন্ত সমাধানে আসতে পারেনি উভয় পক্ষ।
দলিল লেখক সমিতির সভাপতি সুজাউল ইসলাম অভিযোগ করে বলেন, জমি রেজিষ্ট্রি করতে দলিল লেখকরা ক্রেতা-বিক্রেতার উপস্থিতিতে সরকারি ফি পে-অর্ডারের মাধ্যমে ব্যাংকে জমা দিয়ে অফিসিয়াল যাবতীয় কাজ-কর্ম শেষে যখন সাব-রেজিষ্ট্রারের নিকট যায়, তখন তিনি অযাচিতভাবে সবাইকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন এবং দলিল ছুড়ে ফেলে দেন। আবার অনেক সময় তিনি বিভিন্ন অযুহাত দেখিয়ে দলিলে স্বাক্ষর না করে টেবিলে ফেলে রেখে উঠে যান। এসব বিষয়ে সমাধান করতে সাব-রেজিষ্ট্রারের সাথে কয়েক দিন ধরে দফায় দফায় বৈঠক করেও কোন লাভ হয়নি। বাধ্য হয়ে আমরা গত দু’সপ্তাহ থেকে কাজকর্ম বন্ধ রেখেছি। সমাধান না হওয়া পর্যন্ত আমাদের কলম বিরতি অব্যাহত থাকবে।
তবে কালাইয়ের সাব-রেজিষ্ট্রার নিলুফার ইয়াসমিন দলিল লেখকদের সাথে বৈঠকের কথা স্বীকার করে বলেন, আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ এনে দলিল লেখকরা লেখালেখির কাজ বন্ধ রেখেছে। কেন তারা কাজকর্ম বন্ধ রেখেছে, সে বিষয়ে আমার জানা নেই। দলিল সম্পাদনের জন্য আমি সবসময় প্রস্তুত আছি। অফিসিয়াল কাজকর্ম স্বাভাবিকভাবে চলছে। এমনকি ব্যাংকের ঋণ গ্রহিতাদের মর্গেজ দলিলও সম্পাদন হচ্ছে। শুধুমাত্র সাধারণের জমি ক্রয়-বিক্রয়ের দলিল সম্পাদন বন্ধ আছে।
ভূক্তভুগী দলিল করতে আসা জমি বিক্রেতা ও ক্রেতা তালোড়া বাইগুনি গ্রামের আব্দুল মান্নান মন্ডল ও আব্দুল মোত্তালিবের সাথে কথা বলে জানা গেছে, এমনিতেই সপ্তাহে দুই দিন (রোববার ও সোমবার) চলে কালাই সাব-রেজিষ্ট্রি অফিসের দলিল সম্পাদনের কাজ। এর উপর দলিল লেখক ও সাব-রেজিষ্ট্রারের দ্বন্দের কারণে গত ১৫ দিন ধরে দলিল সম্পাদন বন্ধ আছে। আমরা দলিল করতে এসে চরম হয়রানির স্বীকার,“এ যেন মরার উপর খাড়ার ঘাঁ”।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দলিল লেখক সমিতির অনেকেই বলেন, অনিয়ম ও দুর্নীতির সাথে সরাসরি সাব-রেজিষ্ট্রার জড়িত, তা বলার আর অবকাশ নেই। এ অফিসে অনিয়ম যে হারে বৃদ্ধি পেয়েছে, এখন অনিয়ম যেন নিয়মে পরিনত হয়েছে। যেখানে ঘুষের জন্য একজন সাব-রেজিষ্ট্রার দলিল অনুমোদন বন্ধ করে দিতে পারে, সেখানে আর বলার কিছুই থাকে না।
এ বিষয়ে কালাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আফাজ উদ্দিন বলেন, কয়েক দিন থেকে দলিল সম্পাদনের কাজ বন্ধ রয়েছে তা আমি জানি। তবে ভিতরে কি বিষয় লুকিয়ে আছে তা আমার জানা নেই।
কালাই উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মিনফুজুর রহমান মিলন বলেন, বিষয়টি আমিও জানি। সাব-রেজিষ্ট্রার নিজেই তার সার্থে এই অবস্থার সৃষ্টি করেছে। তাকেই সমাধান করতে হবে। সাব-রেজিষ্ট্রি অফিস দুনীতির আখঁড়ায় পরিনত হয়েছে। যদি অচিরে উভয় পক্ষ মিলে সমাধান না করতে পারে, আগামী সমন্বয় মিটিংএ আলোচনা করে উক্ত বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

কালিয়াকৈর থেকে অপহৃত শিশু টাঙ্গাইল থেকে উদ্ধার

হুমায়ুন কবির,কালিয়াকৈর(গাজীপুর)প্রতিনিধি।গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার ভাতারিয়া এলাকার একটি বাড়ী থেকে ৬ মাস বয়সী ...

ফকিরহাটে বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস পালিত

সুমন কর্মকার : বাগেরহাটের ফকিরহাট উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কার্যালয়ের উদ্যোগে গতকাল বুধবার ...