Home | জাতীয় | ঢাকা উত্তর মেয়র পদে আগামী ২৬ ফেব্রুয়ারি ভোট

ঢাকা উত্তর মেয়র পদে আগামী ২৬ ফেব্রুয়ারি ভোট

স্টাফ রিপোর্টার : ২০১৫ সালের মতো ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ভোটের দিন মাঝপথে কোনো প্রার্থীর নির্বাচন থেকে সরে যাওয়ার ঘটনা এবার ঘটবে না বলে আশাবাদী প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদা। তিনি বলেন, শেষ পর্যন্ত সবাই এই ভোটে থাকবে বলে আশা করছেন তিনি।

মঙ্গলবার নির্বাচন কমিশনে ঢাকা উত্তরের মেয়র পদে উপনির্বাচন এবং ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণে কিছু ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার। এরপর তিনি সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন।

২০১৫ সালের ১৮ এপ্রিলের ভোটে বেলা ১২টার দিকেই কারচুপির অভিযোগে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী তাবিথ আউয়াল নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দেন। সিইসি আশা করছেন, তাদের তত্ত্বাবধানে এবারের নির্বাচনে সে পরিস্থিতি তৈরি হবে না।

সুষ্ঠু নির্বাচনের ব্যাপারে ইসি আপসহীন মন্তব্য করে সিইসি বলেন, ‘আমাদের পক্ষ থেকে নির্বাচন অনুষ্ঠানের ব্যাপারে কোনো কিছুর সঙ্গে সমঝোতা হবে না। অবশ্যই আমরা আশা করব সব দলই নির্বাচনে অংশ নেবে এবং শেষ পর্যন্ত থাকবে।’

আনিসুল হকের মৃত্যুতে ফাঁকা হওয়া ঢাকা উত্তর সিটির মেয়র পদ পূরণে আগামী ২৬ ফেব্রুয়ারি ভোট হবে সেখানে। পাশাপাশি ২০১৫ সালের পর বিভিন্ন ইউনিয়ন বিলুপ্ত করে সিটি করপোরেশনের ওয়ার্ড হিসেবে যুক্ত হওয়া এলাকায় হবে কাউন্সিলর নির্বাচন। ঢাকা দক্ষিণ সিটিতেও যেসব এলাকা সিটি করপোরেশনের অধীনে এসেছে, সেগুলোতেও এই ভোট হবে।

সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য কিছু শর্ত আছে জানিয়ে সিইসি বলেন, ‘একটা ভালো নির্বাচনের জন্য ভোটারদের থাকতে হবে, রাজনৈতির দল যারা অংশ নেবে তাদের থাকতে হবে, প্রার্থীদের থাকতে হবে, সকলের থাকতে হবে। সকলে মিলেই একটা ভালো নির্বাচন করা সম্ভব। আমি মনে করি তাদের সকলেই সহযোগিতা থাকবে।’

বর্তমান নির্বাচন কমিশন গত ফেব্রুয়ারিতে দায়িত্ব নেয়ার পর তারা কুমিল্লা ও রংপুর সিটি করপোরেশনে ভোট করেছে। এই ভোট নিয়ে কোনো কারচুপি বা কেন্দ্র দখলের অভিযোগ উঠেনি। আর আওয়ামী লীগের প্রার্থী দুই ভোটেই হেরেছেন।

তবে ভোটের আগে প্রতিবারই, বিশেষ করে বিএনপির পক্ষ থেকে তাদের প্রার্থীকে প্রচারে বাঁধা দেয়ার অভিযোগ আনা হয়েছে। দলটি বরাবরই সমান সুযোগ না পাওয়ার দাবিও করেছে।

এসব বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, ‘নির্বাচন কমিশনারের পক্ষ থেকে কারও জন্য প্রচারে বাধা নেই। সবার জন্য সমান সুযোগ থাকবে। আমাদের পক্ষ থেকে কারো জন্য কোন প্রতিবন্ধকতার প্রশ্নই ওঠে না।’

নির্বাচনী প্রচারণায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া অংশ নেয়ার ব্যাপারে প্রশ্ন করা হলে সিইসি বলেন, খালেদা জিয়ার প্রচারণায় অংশ নিলে কোনো প্রতিবন্ধকতা তৈরি করা হবে না।

খালেদা জিয়ার প্রচারে কোনো বাধা আসবে কি না- জানতে চাইলে সিইসি বলেন, ‘প্রতিবন্ধকতার প্রশ্নই উঠে না; উনি (খালেদা জিয়া) বা উনার মতো কেউ প্রচারে গেলে কোনো বাধা দেওয়া হবে না। আমাদের পক্ষ থেকে কোনো বাধা নেই।’

রাজধানীতে নির্বাচনকে কমিশন আমরা আলাদাভাবে দেখছে জানিয়ে সিইসি বলেন, ‘এ নির্বাচন অবশ্যই গুরুত্বপূর্ণভাবে। রাজধানীতে এ নির্বাচন করা ইসির জন্য চ্যালেঞ্জ।’

ভোটকেন্দ্রের ভেতর থেকে গণমাধ্যমকে সরাসরি সম্প্রচারে বাধা দেওয়া ও ভেতরে ঢুকতে বাধা দেওয়ার ব্যাপারে সিইসি বলেন, ‘আমাদের পক্ষ থেকে কোন প্রতিবন্ধকতা নেই। নির্বাচন কেন্দ্রের নিয়ম অনুযায়ী সেটা চলবে। এটা প্রিজাইডিং অফিসার দেখেবে। তার এখতিয়ারে যা আছে সে অনুযায়ী তিনি কাজ করবেন, তার বেশি নয়।’

তফসিল ঘোষণার আগেই ঢাকা উত্তরে জনসংযোগ করছেন বিভিন্ন প্রার্থী। এ বিষয়ে জানতে চাইলে সিইসি বলেন, ‘আজ তো তফসিল ঘোষণা করা হলো। আমরা এই ব্যাপারে দেখব। সিরিয়াসলি এটা দেখব। তারা (সম্ভাব্য প্রার্থী) যদি সেটা (প্রচার উপকরণ) না সরায় আমরা প্রার্থিতার সময় আমরা সেটা তুলব। কারও ব্যাপারে শিথিল থাকব না।’

অন্য এক প্রশ্নের জবাবে সিইসি জানান, উত্তর সিটিতে একটি এবং দক্ষিণ সিটিতে ওয়ার্ডে ভোট নিতে।

আনিসুল হকের মৃত্যুর পর থেকেই ঢাকা উত্তরে ভোট নিয়ে আইনি জটিলতার কথা উঠেছে। নির্বাচন কমিশন অবশ্য কোনো জটিলতার কথা উড়িয়ে দিচ্ছে শুরু থেকেই। এই জটিলতার কারণে কেউ মামলা করে তাহলে নির্বাচন কমিশনের কিছু করার আছে কি না- এমন প্রশ্নে সিইসি বলেন, ‘কে মামলা করবে না করবে সেটা কি আমাদের নিয়ন্ত্রণে আছে?’

‘আমাদের দায়িত্ব হলো নির্বাচন পরিচালনা করা। এ সিটি নির্বাচন করার ক্ষেত্রে আইনি কোনো বাধা নেই।’

এ সময় চার নির্বাচন কমিশনার ও সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

ফের দলের হয়ে লড়তে চান বিএনপির তিন মেয়র

স্টাফ রিপোর্টার : সিলেট, রাজশাহী ও বরিশাল সিটি করপোরেশনে মেয়র পদটি পাঁচ ...

নির্বাচনকালীন সরকার অক্টোবরেই গঠিত হতে পারে: ওবায়দুল কাদের

স্টাফ রিপোর্টার : আগামী সংসদ নির্বাচনের সময় দায়িত্ব পালনের জন্য নির্বাচনকালীন সরকার ...