ব্রেকিং নিউজ
Home | জাতীয় | ঢাকাকে টাইম বোমা বানাতে দেবো না : র‌্যাব

ঢাকাকে টাইম বোমা বানাতে দেবো না : র‌্যাব

স্টাফ রির্পোটার : পুরান ঢাকার দাহ্য কেমিক্যাল গোডাউনগুলো টাইম বোমা ছিল। চুড়িহাট্টার অগ্নিকাণ্ডের ঘটনার পর সরকারের নির্দেশে সব কেমিক্যাল গোডাউন অপসারণ করে অন্যত্র সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে।

কিন্তু এতো কেমিকেল গেলো কই?

র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) মহাপরিচালক (ডিজি) বেনজীর আহমেদ বললেন, টাস্কফোর্সের অভিযানের পর পুরান ঢাকার কেমিক্যাল ব্যবসায়ীরা কেমিক্যাল সরিয়ে রাজধানীর বিভিন্ন আবাসিক এলাকায় নিয়ে রেখেছেন বলে আমার কাছে গোয়েন্দা তথ্য রয়েছে।
শনিবার (২৩ মার্চ) দুপুরে র‍্যাব-১০ এর উদ্যোগে রাজধানীর পুরান ঢাকার বকশীবাজারে এক বিশেষ মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন র‍্যাব মহাপরিচালক।

তিনি বলেন, কারো অসতর্কতার জন্য ঢাকাকে টাইম বোমায় পরিণত হতে দেবো না। কেমিক্যাল সরিয়ে সেগুলো আপনারা সতর্কভাবে রাখবেন। অসতর্কতার জন্য ঢাকা যেন টাইম বোমায় পরিণত না হয়, এ বিষয়টি ব্যবসায়ীদের খেলায় রাখতে হবে।
গত ২০ ফেব্রুয়ারি রাজধানীর চকবাজার এলাকার নন্দকুমার দত্ত সড়কের চুড়িহাট্টা মসজিদ গলিতে ভয়াবহ আগুন লাগে। এতে অন্তত ৭১ জন নিহত হন।কেমিক্যাল থেকে এ আগুনের সূত্রপাত হয় বলে প্রাথমিকভাবে জানানো হয়।

ঘটনার পর সরকারের পক্ষ থেকে দ্রুত ওই এলাকা থেকে কেমিক্যালের গোডাউন সরিয়ে নেয়ার নির্দেশ দেয়ার হয়।
বেনজীর আহমেদ বলেন, চকবাজারের চুড়িহাট্টার দুর্ঘটনায় নিহত সবাই টাইম বোমার পাশে বসবাস করতেন। আমরা এভাবে আর একটি মানুষেরও মৃত্যু দেখতে চাই না।
কেমিক্যাল গোডাউন অপসারণে দেড়শ’ কোটি টাকার একটি প্রকল্পের কথা উল্লেখ করে র‌্যাব ডিজি বলেন, ‘প্রকল্পটি সম্পন্ন করতে প্রায় দুই বছর সময়ের প্রয়োজন। কিন্তু আমাদের হাতে এতো সময় নেই। আমরা চাই দুমাসের মধ্যে এর সমাধান হোক। এজন্য ব্যবসায়ীদের প্রথাগত চিন্তার বাইরে গিয়ে সাহসীকতার সাথে কাজ করতে হবে।

তিনি বলেন, টাস্কফোর্সের অভিযানের পর পুরান ঢাকার কেমিক্যাল ব্যবসায়ীরা ক্যামিকেল সরিয়ে রাজধানীর বিভিন্ন আবাসিক এলাকায় নিয়ে রেখেছেন বলে আমার কাছে গোয়েন্দা তথ্য রয়েছে। অভিযানের ভয়ে কেউ নিজ বাসায় আবার কেউ তার আত্মীয়ের বাসায় রাখছেন। আগে পুরান ঢাকা ছিল টাইম বোমা। এখন সারা ঢাকা যেন টাইম বোমায় পরিণত না হয় এ বিষয়টি খেয়াল রাখতে হবে।

মেয়াদ উত্তীর্ণ কেমিক্যালের বিষয়ে র‌্যাব ডিজি বলেন, ‘আপনারা টাকা দিয়ে পণ্য কিনে আনেন, এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সকল কিছু লিখিত দিতে হবে। উৎপাদনের মেয়াদ, কোম্পানির নাম, সব কিছুই। টাকা দিয়ে কেন আপনারা মেয়াদ উত্তীর্ণ জিনিস কিনবেন? মেয়াদ উত্তীর্ণ কেমিক্যাল রাখলে সেটা মেনে নেয়া যাবে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

সক্রিয় সেই নেত্রীরা এখন নীরব

স্টাফ রির্পোটার : নবম সংসদ নির্বাচনে বিএনপির সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য ছিলেন ...

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বাংলাদেশে প্রথম একজনের মৃত্যু

স্টাফ রির্পোটার : বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে বাংলাদেশে প্রথম ...