Home | বিনোদন | টালিগঞ্জের খবর | জিৎ-শাকিবের লড়াই হচ্ছে না

জিৎ-শাকিবের লড়াই হচ্ছে না

বিনোদন ডেস্ক :  রোজার ঈদের পর আবারও একটি জমজমাট লড়াই দেখার অপেক্ষায় ছিলেন দর্শক। সেটা হল বাংলাদেশি সুপারস্টার শাকিব খান ও কলকাতার সুপারস্টার জিতের খ্যাতির লড়াই। কিন্তু সেটা আর হচ্ছে না। ২০ জুলাই বাংলাদেশের প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল শাকিবের ‘ভাইজান এলো রে’ এবং জিতের ‘সুলতান: দ্য সেভিয়ার’ ছবি দুটি।

কিন্তু নতুন খবর হচ্ছে, ২০ জুলাই জিতের ‘সুলতান’ প্রেক্ষাগৃহে প্রদর্শিত হলেও পিছিয়ে দেয়া হয়েছে শাকিব খানের ‘ভাইজান এলো রে’ ছবির মুক্তির তারিখ। ২০ জুলাইয়ের পরিবর্তে আগামী ২৭ জুলাই, শুক্রবার মুক্তি পাবে ‘ভাইজান এলো রে’। বুধবার ছবিটির আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান এন ইউ ট্রেডার্স এই তথ্য জানায়।

মুক্তির তারিখে পেছানোর ব্যাপারে প্রতিষ্ঠানটির পক্ষে পরিচালক অনন্য মামুন গণমাধ্যমকে বলেন, ‘ছবি মুক্তি দেয়ার ক্ষেত্রে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র প্রযোজক সমিতির অনুমতি নেয়ার প্রয়োজন হয়। আমরা ছবিটি ২৭ জুলাই মুক্তি দেয়ার জন্য অনুমতি পেয়েছি। তাই ইচ্ছা থাকা সত্ত্বেও ছবিটি ২০ জুলাই মুক্তি দেয়া সম্ভব হচ্ছে না।’

শাকিব খানসহ বেশ কয়েকজন বাংলাদেশি শিল্পী ‘ভাইজান এলো রে’-তে অভিনয় করলেও এটি সম্পূর্ণই কলকাতার ছবি। সেদেশের এসকে ফিল্মস-এর প্রযোজনায় ছবিটি পরিচালনা করেছেন জয়দীপ মুখার্জী। যেখানে দ্বৈত ভূমিকায় অভিনয় করেছেন শাকিব খান। তার বিপরীতে রয়েছেন কলকাতার দুই নায়িকা শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায় ও পায়েল সরকার।

অন্যদিকে, ওপার বাংলার অ্যাকশন আইকন জিৎ অভিনীত ‘সুলতান: দ্য সেভিয়ার’ পরিচালনা করেছেন বাবা যাদব। প্রযোজনা করেছে গ্রাসরুট এন্টারটেইনমেন্ট লিমিটেড। পুরোপুরি কলকাতার এ ছবিতে জিতের বিপরীতে নায়িকা বাংলাদেশের বিদ্যা সিনহা মিম। এটি জিৎ-মিম জুটির প্রথম ছবি। বাংলাদেশে ‘সুলতান’-এর আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান জাজ মাল্টিমিডিয়া।

২০ জুলাই বাংলাদেশের শতাধিক হলে জিতের ‘সুলতান’ মুক্তি দেয়া হবে জাজের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। অন্যদিকে, ২৭ জুলাই ৫০টি হলে দেখা যাবে শাকিবের ভাইজান এলো রে’। এর আগে রোজার ঈদে কলকাতার প্রেক্ষাগৃহে একসঙ্গে মুক্তি পেয়েছিল ছবি দুটি। সে যুদ্ধে জিতের চেয়ে এগিয়ে ছিলেন শাকিব। ‘সুলতান’-এর চেয়ে ভালো ব্যবসা করেছিল তার ‘ভাইজান এলো রে’।

পরে বাংলাদেশের প্রেক্ষাগৃহগুলোতেও ছবি দুটি একসঙ্গে মুক্তি পাচ্ছে শুনে আবারও একটি জমজমাট লড়াই দেখার অপেক্ষায় ছিলেন দর্শক। কিন্তু সবকিছুই ভেস্তে গেল। তবে একটা সুবিধা হয়েছে। আলাদা করে দুটি ছবিই হলে বসে উপভোগ করতে পারবেন এদেশের সিনেপ্রেমীরা। সিদ্ধান্তহীনতায় পড়তে হবে না যে, ‘কোনটা রেখে কোনটা দেখব’।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

সহিংস প্রতিবাদের পর মজুরি বৃদ্ধি ও কর হ্রাসের প্রতিশ্রুতি ম্যাকরোঁর

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক : কয়েক সপ্তাহ ধরে দেশ জুড়ে সহিংস প্রতিবাদের পর সর্বনিম্ন ...

খালেদা জিয়ার প্রার্থিতা নিয়ে করা রিটের ওপর বিভক্ত আদেশ হাইকোর্টের

স্টাফ রির্পোটার : কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার  মনোনয়নপত্র ইসিতে অবৈধ ...