Home | ফটো সংবাদ | জনসংযোগ শুরু করলেও আতিকুলের মনোনয়ন চূড়ান্ত নয় :ওবায়দুল কাদের

জনসংযোগ শুরু করলেও আতিকুলের মনোনয়ন চূড়ান্ত নয় :ওবায়দুল কাদের

স্টাফ রিপোর্টার : ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে আতিকুল ইসলাম জনসংযোগ শুরু করলেও তার মনোনয়ন চূড়ান্ত নয় বলে জানিয়েছেন ক্ষমতাসীন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

আওয়ামী লীগের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ নেতা বলেন, প্রধানমন্ত্রী আতিকুলকে কাজ করে যেতে বলেছেন, সিদ্ধান্ত জানাননি।

বৃহস্পতিবার ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের সম্পাদকমণ্ডলীর বৈঠক শেষে সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন কাদের।

আগামী ২৬ ফেব্রুয়ারি ঢাকা উত্তরে মেয়র পদে উপনির্বাচনের ভোটে অংশ নিতে হলে প্রার্থীদেরকে মনোনয়নপত্র জমা দিতে হবে ১৮ জানুয়ারির মধ্যে। ৯ জানুয়ারি এই তফসিল ঘোষণার পর বিএনপি আগামী শনিবার তাদের প্রার্থী ঘোষণার কথা জানিয়েছে। আর আওয়ামী লীগ প্রার্থী চূড়ান্ত করতে দলের স্থানীয় সরকার মনোনয়ন বোর্ডের বৈঠক ডেকেছে ১৬ জানুয়ারি।

কাদের বলেন, “প্রার্থী ঘোষণার আগে কেউ প্রার্থী নন। অনেকে নিজের মতো করে দলের সভাপতি, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করেছেন, করছেন। এতে প্রমাণিত হয় না যে, প্রার্থী নির্বাচন হয়ে গেছে। তবে আতিকুল ইসলাম দলের সভাপতি শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করেছেন। সে সময় শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘কাজ কর। সিদ্ধান্ত পরে’।”

তবে পোশাক শিল্প মালিকদের সংগঠন বিজিএমইএর সাবেক সভাপতি আতিকুল ইসলাম গত ২৫ ডিসেম্বর গণমাধ্যমকর্মীদের কাছে তার প্রার্থিতার বিষয়ে কথা বলেন। আওয়ামী লীগের উচ্চ পর্যায় থেকে সংকেত পেয়ে মেয়র পদে ভোটে অংশ নেয়ার প্রস্তুতি নেয়ার কথাও জানান তিনি।

এরপরদিন ওবায়দুল কাদের রাজধানীতে এক অনুষ্ঠানে ভোটের আগে বাজার যাচাইয়ের কৌশলের কথা বলেন। আর প্রধানমন্ত্রী কাউকে প্রার্থী হিসেবে নিশ্চয়তা দিয়েছেন বলে তার কাছে তথ্য নেই বলেও সেদিন জানান কাদের।

এর পরদিন আবার মুন্সিগঞ্জে এক অনুষ্ঠানে কাদের বলেন, ঢাকা উত্তরে প্রার্থী হওয়ার বিষয়ে একজনের সঙ্গে কথা বলেছেন প্রধানমন্ত্রী। দলীয় বৈঠকেও তার বিষয়ে আলোচনা হয়েছে।

এর মধ্যে ৩০ ডিসেম্বর গণভবনে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করেন আতিকুল ইসলাম। সেখান থেকে বের হয়ে তিনি গণমাধ্যমকর্মীদেরকে বলেন, প্রধানমন্ত্রী তাকে কাজ চালিয়ে যেতে বলেছেন।

সেদিন থেকে আতিকুল প্রায় প্রতিদিনই বিভিন্ন এলাকায় জনসংযোগ করেছেন। নগরবাসীকে শুভেচ্ছা জানিয়ে তার পোস্টারও চোখে পড়ছে নির্বাচনী এলাকায়।

২০১৫ সালে মেয়র নির্বাচনে আনিসুল হককে সমর্থন দেয়ার বিষয়টিও সংবাদ সস্মেলনে তুলে ধরেন কাদের। এবারও আতিকুলকে ঘিরে আলোচনা ক্ষমতাসীন দলে। রাজনীতিবিদের বদলে ব্যবসায়ী নেতাদেরকে আওয়ামী লীগ কেন বেঝে নিচ্ছে-এমন প্রশ্ন ছিল দলের সাধারণ সম্পাদকের কাছে।

জবাবে কাদের বলেন, ‘দলের প্রার্থী, দলীয় নেতা আর নির্বাচন- এটার মধ্যে পার্থক্য আছে। এটা রাজনৈতিক স্ট্র্যাটেজি। স্ট্র্যাটেজিক এলায়েন্স। নির্বাচনে স্ট্র্যাটেজিক এলায়েন্স হয়।’

‘আর একজন রাজনীতিবিদ কি ব্যবসা করতে পারেন না? তারা চাঁদাবাজি করে খাবেন?’- সাংবাদিকদের কাছেই পাল্টা প্রশ্ন রাখেন কাদের।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

খুলনায় নারী শ্রমিককে নির্যাতন

স্টাফ রিপোর্টার , খুলনা// ইটভাটায় তরকারি রান্না খারাপ হওয়ায় লিপিকা (২৪) নামে ...

কাজে ফিরলেন খুলনার রাষ্ট্রায়ত্ত দুই পাটকলের শ্রমিকরা

স্টাফ রিপোর্টার , খুলনা// অবশেষ বকেয়া মজুরির আংশিক হাতে পাওয়ায় কাজে ফিরলেন ...