ব্রেকিং নিউজ
Home | খেলাধূলা | ছুটির দিনেও অনুশীলনে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ
Bangladesh's captain Mahmudullah plays a shot during the first Twenty20 international cricket match against Sri Lanka in Dhaka, Bangladesh, Thursday, Feb. 15, 2018. (AP Photo/A.M. Ahad)

ছুটির দিনেও অনুশীলনে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ

ক্রীড়া ডেস্ক : ঘরের মাঠে আসন্ন টেস্ট ও ত্রিদেশীয় সিরিজে ভালো খেলতে মুখিয়ে আছে টাইগাররা। তাই টানা ৭ দিনের কঠোর অনুশীলনের পর গতকাল ছুটি পেয়েছেন সাকিব-মুশফিকরা। টানা এক সপ্তাহ কঠোর পরিশ্রমের পর ছুটি পেয়ে বেশ ফুরফুরে আমেজে ছিল টাইগার ক্রিকেটাররা। আজ আবার নতুন উদ্যমে মাঠে অনুশীলনে যোগ দেবেন সাকিব, মুশফিক, রিয়াদ, সৌম্য, মোস্তাফিজ ও মিরাজরা। তবে গতকাল ছুটির দিনেও সরব ছিলেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। তিনি নেটে ব্যাটিং অনুশীলন করেছেন পুরোদমে। এমন নজির এই প্রথম নয়। এর আগে এমনি করে অনুশীলন করেছেন সাকিব, তামিম, মুশফিকরাও। ভালো ফলাফল পেতে অনুশীলনের বিকল্প নেই। অনেক সময় অনুশীলন শেষে একা একা অনুশীলনের নজির স্থাপন করেছেন পঞ্চ পাণ্ডব।
মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে কোনো ম্যাচ না থাকলেও সাকিব, সৌম্য ও মোস্তাফিজদের অনুশীলন দেখতে ছুটে আসেন ক্রিকেট ভক্তরা। গতকাল যেহেতেু ছুটি তাই দর্শক উপস্থিতি নেই এবং থাকার কথাও না। কিন্তু হঠাৎ ব্যাট-বলের শব্দে বাইরে থেকে বোঝার উপায় নেই আসলে ভেতরে কী হচ্ছে?
মাঠের ভেতরে তাকাতেই দেখা গেল প্রচণ্ড রোদেও ব্যাটিং অনুশীলনে ব্যাস্ত মাহমুদউল্লাহ। কন্ডিশন ক্যাম্পের সময় বেঁধে দেয়া আছে বিসিবি থেকে। কিন্তু এর বাইরেও খেলোয়াড় চাইলে অনুশীলন করতে পারবে। ভাদ্রের প্রচণ্ড গরম, খোলা আকাশের নিচে ১০ মিনিট দাঁড়িয়ে থাকাই দায়। শরীর থেকে ঝরঝর করে ঘাম পড়তে থাকে। গলা শুকিয়ে কাঠ হয়ে যায়। এ রকম প্রতিক‚ল আবহাওয়ার মধ্যেও হয়তো নিজেকে চাঙ্গা রাখতে দলের অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান মাহমুদউল্লাহ মাঠ থেকে দূরে থাকতে পারেননি।
এবার আফগানিস্তানের সঙ্গে একমাত্র টেস্টে প্রস্তুতির জন্য প্রথমে ৪-৫ দিন টাইগারদের কন্ডিশনিং ক্যাম্প হয়েছে। তারপর শুরু হয়েছে ব্যাটিং, বোলিং আর ফিল্ডিং অনুশীলন তথা স্কিল ট্রেনিং। আগের মতো সব একটু একটু করে নয়। গত এক সপ্তাহ অনুশীলন হচ্ছে একেক দিন একেক আইটেমের। আজ ব্যাটিং, কাল বোলিং আর পরশু ফিল্ডিং-ক্যাচিং। এভাবেই দীর্ঘ সময় নেটে কাটাচ্ছেন ক্রিকেটাররা। ব্যাটসম্যানরা অনেক লম্বা সময় নিয়ে ব্যাটিং প্র্যাকটিস করছেন। বোলাররাও আগের চেয়ে লম্বা স্পেলে নেটে বল করছেন। আর ফিল্ডিং-ক্যাচিং হচ্ছে দুই থেকে আড়াই ঘণ্টার। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে গড়পড়তা দুপুর ১-২টা এবং কদিন বিকেল ৫টা অবধি প্রায় টানা অনুশীলন হয়েছে। নতুন হেড কোচ রাসেল ডমিঙ্গো, পেস বোলিং কোচ চার্লস ল্যাঙ্গাভেল্ট, ফিল্ডিং কোচ রায়ান কুকসহ ৩ প্রোটিয়া স্পেশালিস্ট কোচের অধীনে চলছে নিবিড় ও কঠোর অনুশীলন। আফগানিস্তানের বিপক্ষে একমাত্র টেস্টের জন্য আগামী শুক্র শনিবার দল ঘোষণার সম্ভাবনা রয়েছে।
টাইগার স্কোয়াডে জায়গা পেলে নিজের সেরাটা দেয়ার কথা জানিয়েছেন পেসার শফিউল। তিনি বলেন, ভালো জায়গায় বল করলে যে কোনো জায়গায় সফল হওয়ায় সম্ভব। বিশ্বের সব বোলাররাই এভাবে সফল হয়েছে। জায়গাটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। আমাদের কোচ এগুলো নিয়ে কাজ করছেন। উইকেট যে রকমই হোক আমি যদি সুযোগ পাই, আমি চাইব যে উইকেটের সাহায্য থাকুক। এটা হলে নিজের কাছেই ভালো লাগবে। উইকেটের আচরণ এবং কন্ডিশন অনুযায়ী বল করার চেষ্টা করব। পেস বোলিং কোচ চার্ল ল্যাঙ্গাভেল্ট বোলারদের সুইংয়ের ওপর জোর দিচ্ছেন।
শফিউল সুইংয়ের ক্ষেত্রে ভালো হলেও লাইন-লেন্থ ঠিক রাখার ব্যাপারে বেশি মনোযোগী। শফিউল বলেন, আমি অ্যাকুরেসি বা এসব নিয়ে কাজ করার চেষ্টা করছি। যদি এলোমেলো বল হয় তাহলে তো সুইং হয়ে লাভ নেই। তো অ্যাকুরেসিটা ঠিক করার চেষ্টা করব যেন এক জায়গায় বার বার বল করতে পারি। সুইংয়ের সঙ্গে সঙ্গে যেন এটাও যেন করতে পারি সেই চেষ্টা করছি। তাহলে আমার জন্য ভালো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

পাকিস্তানি ক্রিকেটারদের খাবারের উপরে নিষেধাজ্ঞা জারি

ক্রীড়া ডেস্ক : ফিটনেসে জোর দিতে হবে। তাই পাকিস্তানের কোচ হয়ে এসে ...

এবারও নেতানিয়াহুর পক্ষে ক্ষমতায় টিকে থাকা কঠিন

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক :  ইসরায়েলের নির্বাচনের ফলাফল এখনো প্রকাশিত না হলেও সমীক্ষা অনুযায়ী ...