Home | ফটো সংবাদ | ছাত্রলীগের সম্মেলনের দাবিতে সংবাদ সম্মেলনের ঘোষণা দিয়েও পিছু হটেছেন সরব নেতারা

ছাত্রলীগের সম্মেলনের দাবিতে সংবাদ সম্মেলনের ঘোষণা দিয়েও পিছু হটেছেন সরব নেতারা

স্টাফ রিপোর্টার :ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের ছাত্র সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ৭০তম সম্মেলনের দাবিতে সরব নেতারা সংবাদ সম্মেলনের ঘোষণা দিয়েও পিছু হটেছেন। তারা ছাত্রলীগের অভিভাবক পর্যায়ের নেতাদের সঙ্গে কথা বলে আশ্বস্ত হয়েছেন। তারা আশা করছেন আগামীকাল বুধবার এ ব্যাপারে ইতিবাচক কোনো সংবাদ আসবে। এক্ষেত্রে ঐতিহ্যবাহী ছাত্র সংগঠনটির নেতৃত্ব বাছাইয়ে সম্মেলনের ঘোষণা আসতে পারে শিগগির।

মঙ্গলবার সকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রের (টিএসসি) শিক্ষক মিলনায়তনে তাদের সংবাদ সম্মেলনের কথা ছিল। তবে তা শেষ মুহূর্তে স্থগিত করা হয়।

গত সোমবার রাতে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির শীর্ষ কয়েকজন নেতা সংগঠনের গঠনতন্ত্র মেনে সম্মেলন ঘোষণার লক্ষ্যে ‘সম্মেলন প্রত্যাশী নেতাকর্মীবৃন্দ’ ব্যানারে একটি সংবাদ সম্মেলনের ডাক দেন। এ ব্যাপারে প্রেস বিজ্ঞপ্তি পাঠান বিভিন্ন গণমাধ্যমেও। তবে পরে তারা তা স্থগিত করেন।

আজ টিএসসিতে উপস্থিত ছিলেন ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি মেহেদী হাসান রনি, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সায়েম খান, শিক্ষা ও পাঠচক্র বিষয়ক সম্পাদক গোলাম রাব্বানীসহ বেশ কয়েকজন নেতা।

সংবাদ সম্মেলন স্থগিতের কারণ হিসেবে তারা বলেন, আমরা ছাত্রলীগের সাবেক নেতাদের কাছ থেকে ইতিবাচক সাড়া পেয়েছি। তারা আমাদের আশ্বাস দিয়েছেন আলোচনার মাধ্যমে এই বিষয়ের একটি সুরাহা করবেন। তাই তাদের এই আশ্বাসের প্রতি সম্মান প্রদর্শন করে আমরা আজকের সংবাদ সম্মেলন প্রত্যাহার করছি।

তবে তারা বলেন, ‘আমরা কখনো আমাদের নৈতিক অবস্থান থেকে বিচ্যুত হবো না এবং কখনো সংগঠনের গঠনতন্ত্রের ব্যত্যয় ঘটতে দেব না।’

নেতারা বলেন, আমরা আগামীকাল (বুধবার) কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের ও সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক শামীম ভাইয়ের সাথে সম্মেলনের বিষয় নিয়ে আলোচনা করব। দেখি তারা কী নির্দেশনা দেন। তবে ভালো কিছু আশা করি, কারণ তারাও দলের মধ্যে ট্রাফিক জ্যাম কমাতে চান।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তারা বলেন, কমিটির মেয়াদ উত্তীর্ণ হলে নির্বাচনের মাধ্যমে নতুন নেতৃত্ব ক্ষমতায় আসবেন। এটা হলো সংগঠনের গঠনতন্ত্রের বাধ্যবাধকতা। তাছাড়া দেশনেত্রী বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা নিজেও চান নির্ধারিত সময়ে সম্মেলন হোক। কারণ নির্ধারিত সময়ে সম্মেলন না হলে দলের নেতাদের মধ্যে আস্থার ঘাটতির পাশাপাশি দল স্থবির হয়ে পড়ে।

বর্তমান কমিটিকে বেআইনি হিসেবে আখ্যায়িত করে নেতারা বলেন, ‘নৈতিক দিক দিয়ে চিন্তা করলে এটা অবৈধ কমিটি। কারণ এই কমিটির মেয়াদ শেষ হয়েছে গেল বছরের জুলাই মাসে।’

২০১৫ সালের ২৬-২৭ জুলাই সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সম্মেলনের মাধ্যমে দুই বছরের জন্য সাইফুর রহমান সোহাগকে সভাপতি ও এস এম জাকির হোসাইনকে সাধারণ সম্পাদক করে নতুন কমিটি গঠন করা হয়। যার মেয়াদ শেষ হয় ২০১৭ সালের ২৭ জুলাই।

গঠনতন্ত্র অনুযায়ী, কমিটির মেয়াদ শেষ হওয়ার তিন মাসের মধ্যে সম্মেলনের মাধ্যমে নতুন কমিটি নির্বাচন করার কথা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

আশাশুনি প্রতিবন্ধী মেয়েকে বিষ খাইয়ে হত্যার পর মায়ের আত্মহত্যা

আবু সাঈদ, সাতক্ষীরা : সাতক্ষীরার আশাশুনিতে শারিরীক ও মানসিক প্রতিবন্ধী মেয়ের যন্ত্রনা ...

টুঙ্গিপাড়ায় জাতীয় ইঁদুর নিধন অভিযান উপলক্ষে র‌্যালী ও আলোচনা সভা

টুঙ্গিপাড়া (গোপালগঞ্জ) প্রতিনিধি : গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় জাতীয় ইঁদুর নিধন উপলক্ষে “ঘরের ইঁদুর, ...