ব্রেকিং নিউজ
Home | ব্রেকিং নিউজ | চিকিৎসা না দিয়ে রোগীকে বের করে দিলেন চিকিৎসক

চিকিৎসা না দিয়ে রোগীকে বের করে দিলেন চিকিৎসক

লালমনিরহাট প্রতিনিধি : লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায় চিকিৎসাপত্র না দিয়ে অশোভন আচরন করে হাসপাতাল থেকে রোগীকে বের করে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে ডা. মিনতিয়াজ কবিরের বিরুদ্ধে।

বুধবার (১৭ ফেব্রুয়ারী) রাতে এ ঘটনায় বিচার দাবি করে ওই চিকিৎসকের বিরুদ্ধে হাতীবান্ধা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা বরাবরে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন রোগীর জামাতা সাংবাদিক কাজী আলতাব হোসেন।

অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে, হাতীবান্ধা প্রেস ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক সাংবাদিক কাজী আলতাব হোসেন বুধবার (১৭ ফেব্রুয়ারী) দুপুরে তার অসুস্থ্য শাশুড়ি সামিনা বেগমকে নিয়ে হাতীবান্ধা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যান। নিয়ম অনুযায়ী টিকেট সংগ্রহ করে রোগীকে নিয়ে হাসপাতালটির বহির্বিভাগে মেডিক্যাল অফিসার ডা. মিনতিয়াজ কবিরের রুমে যান। ওই চিকিৎসক সাংবাদিক কাজী আলতাব হোসেনকে দেখে রেগে গিয়ে রুম থেকে বেড়িয়ে যেতে বলেন। রোগীর অবস্থা ভাল না বলে চিকিৎসা দিতে চিকিৎসককে অনুনয় বিনয় করেন কাজী আলতাব হোসেন। কিন্তু এতেও মন গলেনি চিকিৎসকের।

চিকিৎসা না দেয়ার কারন জানতে চাইলে চিকিৎসক ডা. মিনতিয়াজ কবির সাংবাদিককে বলেন, “সাংবাদিকের কোন চিকিৎসা হবে না”। এ সময় সাংবাদিক কাজি আলতাব হোসেন ও তার রোগীর উপর উত্তেজিত হন চিকিৎসক। চিকিৎসকের উচ্চ চিৎকারে পাশের রোগীরা ওই রুমের সামনে ভিড় জমায় এবং রোগীর চিকিৎসা দিতে চিকিৎসককে অনুরোধ করেন। এক পর্যায়ে সাংবাদিকতা পেশাকে হেয় করে গালমন্দ করে রোগীর চিকিৎসা না দিয়ে রুম থেকে বেড়িয়ে যান চিকিৎসক ডা. মিনতিয়াজ কবির। এসময় অন্য রোগীদেরও ওই চিকিৎসক চিকিৎসা দেননি বলেও অভিযোগে উল্লেখ করা হয়।

এ ঘটনার বিচার ও চিকিৎসা না দেয়ার কারন জানতে চেয়ে সাংবাদিক কাজী আলতাব হোসেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা বরাবরে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগকারী সাংবাদিক কাজী আলতাব হোসেন বলেন, কোন সাংবাদিক বা তার পরিবারের কারো চিকিৎসা দিবেন না বলে সাফ জানিয়ে দেন ডা. মিনতিয়াজ কবির। এর কারন জানতে চাইলে আমাদেরকে দ্রুত রুম থেকে বেড়িয়ে যেতে বলেন। এ সময় সাংবাদিকতা পেশাকে হেয় করে গালমন্দ করে গোটা সাংবাদিক সমাজ ও তাদের পরিবারকে হেয় করা হয়েছে। এর সুষ্ঠ বিচার চেয়ে লিখিত অভিযোগ দেয়া হয়েছে। এ ঘটনার ন্যায় বিচার দাবি করেন তিনি।

হাতীবান্ধা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. নাঈম হাসান নয়ন বলেন, একটু হট্টগোল হয়েছিল। যা তাৎক্ষণিক সমোঝোতা করা হয়েছে। তবুও যেহেতু অভিযোগ এসেছে। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

বাংলাদেশের উন্নয়নে ভরতের যথেষ্ট ভূমিকা রয়েছে : তথ্যমন্ত্রী

নওগাঁ প্রতিনিধি : স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে ২৬ মার্চ ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ...

তালায় জাতীয় পার্টি ও আ.লীগের কর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষ, আহত-৮

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি : সাতক্ষীরার তালায় ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণাকে কেন্দ্র করে জাতীয় ...