Home | ফটো সংবাদ | চলতি মাসেই ইসি গঠনের রূপরেখা দেবেন খালেদা

চলতি মাসেই ইসি গঠনের রূপরেখা দেবেন খালেদা

স্টাফ রিপোর্টার :  নতুন নির্বাচন কমিশন (ইসি) গঠন নিয়ে রূপরেখা তৈরি করছে বিএনপি। ইতোমধ্যে দলের কয়েক সিনিয়র নেতা ও সমমনা দুজন বুদ্ধিজীবীকে এ রূপরেখা প্রস্তুত করতে দায়িত্ব দিয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। এ নিয়ে ভেতরে ভেতরে ব্যস্ততা চলছে বিএনপিতে। রূপরেখা প্রস্তুত করে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব দলের চেয়ারপারসনের কাছে জমা দেবেন দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতারা। রূপরেখা চূড়ান্তের পর চলতি মাসের মাঝামাঝি বা এ মাসের শেষে খালেদা জিয়া তুলে ধরবেন বলে জানা গেছে।

দলীয় সূত্র জানায়, ইসি নিয়ে বিএনপির অবস্থান পরিষ্কার করা এবং তা নিয়ে সরকারের মনোভাব বোঝার জন্যই মূলত এই রূপরেখা তৈরি করা হচ্ছে। সরকার আমলে নেবে না জেনেও এই রূপরেখা করছে বিএনপি। সরকার তাতেও যদি পাত্তা না দেয় তাহলে ইসি ইস্যুতে রাজপথে আন্দোলনে নামারও চিন্তা করছে দলটি। এই রূপরেখার একটি কপি রাষ্ট্রপতির কাছেও দেওয়া হতে পারে।

সূত্রমতে, গত সপ্তাহে খালেদা জিয়া বিএনপির সিনিয়র নেতাদের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করে একটি রূপরেখা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন। দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী, ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন ছাড়াও আরও তিনজন যারা সরাসরি বিএনপির রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত নন তারাও রূপরেখা নিয়ে কাজ করছেন।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে বিএনপির স্থায়ী কমিটির এক সদস্য জানান, নতুন ইসি গঠনের মাধ্যমেই আগামী সংসদ নির্বাচন কেমন হতে পারে তা অনেকটা পরিষ্কার হবে। এ জন্য তারা নির্বাচন কমিশন গঠনকে গুরুত্বের সঙ্গে নিয়েছেন। ইসিতে সরকার নিজেদের পছন্দমতো লোক নিয়োগ না দিয়ে সবার মতামতের ভিত্তিতে কাজটি করলে তা ইতিবাচকভাবে নেবে বিএনপি। তাতে আগামী নির্বাচনে দলটির অংশ নেওয়াটাও প্রবল হবে। এ কারণে বিএনপির দাবি, সবার মতামতের ভিত্তিতে গ্রহণযোগ্য ব্যক্তিদের নিয়ে ইসি গঠন করা হোক। এ েেত্র নাগরিক সমাজের প্রতিনিধি, বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্যদের ব্যাপারেও বিএনপির আপত্তি নেই বলে জানা গেছে।

ইসি পুনর্গঠন নিয়ে বিএনপির রূপরেখার বিষয়ে দলটির ভাইস চেয়ারম্যান খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেন, আমরা এটা নিয়ে কাজ শুরু করছি। যারা কাজ করছি চেয়ারপারসন তাদের কথাবার্তা শুনেছেন। যত তাড়াতাড়ি সম্ভব রূপরেখা চূড়ান্ত করে জানানো হবে। তিনি বলেন, ইসি কেমন হওয়া উচিত, তার একটি রূপরেখা তৈরি করা হবে।

উল্লেখ্য, আগামী বছরের ফেব্রুয়ারিতে বর্তমান ইসির মেয়াদ শেষ হবে। নতুন ইসি গঠন নিয়ে এখনো আলাদা কোনো আইন নেই। সংবিধানে বলা আছে, রাষ্ট্রপতি প্রধানমন্ত্রীর পরামর্শক্রমে নির্বাচন কমিশন গঠন করবেন। এর আগে প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমান নিজ উদ্যোগে একটি ‘সার্চ কমিটির’ মাধ্যমে বর্তমান ইসি গঠন করেন। বর্তমান ইসির মেয়াদ যখন শেষ পর্যায়ে তখন আবারও ইসি পুনর্গঠন নিয়ে আলোচনা শুরু হয়েছে। বিএনপি বারবার সব রাজনৈতিক দল, সুশীলসমাজের প্রতিনিধিসহ সবার সঙ্গে আলোচনা করে গ্রহণযোগ্য একটি ইসি গঠনের দাবি জানিয়ে আসছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

ওয়ার্ল্ডটেল’র তরঙ্গ বাতিল

প্রযুক্তি ডেস্ক :  বেসরকারি ল্যান্ডফোন বা পাবলিক সুইচড টেলিফোন নেটওয়ার্ক-পিএসটিএন অপারেটর ওয়ার্ল্ডটেল ...

ছাত্রদলের ৭ ইউনিটের নতুন কমিটি ঘোষণা

স্টাফ রিপোর্টার :  বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের গুরুত্বপূর্ণ সাতটি ইউনিটের আংশিক কমিটি গঠন করা ...