Home | সারা দেশ | চট্টগ্রামের সাতকানিয়ায় ১৩ বসতবাড়ি পুড়ে ছাই

চট্টগ্রামের সাতকানিয়ায় ১৩ বসতবাড়ি পুড়ে ছাই

Satkania Fireaccident Pic 8.3

নেওয়াজ হোছাইন নিষাদ, সাতকানিয়া (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি : চট্টগ্রামের সাতকানিয়া উপজেলার নলুয়া দক্ষিণ মরফলা পূর্ব মরিচ্চ্যা পাড়া এলাকায় গত শুক্রবার রাত ৩টায় এক ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে ১৩ বসতবাড়ি সম্পূর্ণরূপে ভস্মিভূত হয়ে যায়। আগুনে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারগুলো হল মো. মুছা, আবদুস ছবুর, ফরিদুল আলম, ওসমান গনি, নুরুল ইসলাম, আবদুস ছালাম, জাগির হোসেন, নূর হোসেন, আমির হোসেন, মজলিস খাতুন, মো. সোলায়মান, মোজাহের আহমদ ও মো. সেলিম উদ্দিন। খবর পেয়ে সাতকানিয়া ফায়ার সার্ভিস এসে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনে। সাতকানিয়া ফায়ার সার্ভিসের ষ্টেশন অফিসার সাদাত হোসেন জানান, খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে আশপাশের বাড়ি ঘরে আগুন যাতে ছাড়িয়ে না পড়ে সেজন্য দ্রুত আগুন নিয়ন্ত্রনে আনার চেষ্টা করি। তিনি আরো বলেন, প্রায় দুই ঘন্টা চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রনে আসে। ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের সদস্য মোক্তার হোসেন ও নলুয়া ৯নং ওয়ার্ডে ইউপি সদস্য নুরুল ইসলাম অভিযোগ করে বলেন, কে বা কারা রাতের আঁধারে আগুন দিয়েছে। এ ধারণা করার কারণ জানতে চাইলে তাঁরা কোন উত্তর দিতে পারেননি। ক্ষতিগ্রস্থ অন্যান্য পরিবারের সদস্যরাও একই ধারণা পোষন করছেন। তাঁরা বলছেন, ফরিদের রান্না ঘর থেকে আগুনের সূত্রপাত অথচ তাঁর পরিবারে ঘটনার দিন কেউ ছিলেন না। একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে গিয়েছিলেন। ক্ষতিগ্রস্থরা বলছেন সকালে ফরিদের রান্না ঘরে রান্না করা হয়েছিল। তাছাড়া অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্তরা কোন রাজনীতির সাথে সংশ্লিষ্ট নয় বলেও জানান। এলাকায় অন্যকোন বিষয় নিয়ে তাদের সাথে কারো বিরোধও নেই। খবর পেয়ে বেলা সাড়ে ১২টায় সাতকানিয়া সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার একেএম এমরান ভূঁইয়া, সাতকানিয়া থানা অফিসার ইনচার্জ মো. খালেদ হোসেন ও পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) শেখ মোহাম্মদ নেয়ামত উল্লাহ্ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। সহকারী পুলিশ সুপার একেএম এমরান ভূঁইয়া বলেন, আপাত দৃষ্টিতে মনে হচ্ছে রানা ঘরের চুলা থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে। তবে নাশকতার বিষয়টি মাথায় রেখে খতিয়ে দেখছি। বিকাল সাড়ে ৩টার সময় সাতকানিয়া উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. লুৎফর রহমান ও র‌্যাবের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। ক্ষতিগ্রস্থ মজলিস খাতুন জানান, গভীর রাত হওয়ার কারনে ঘুমের ঘোরে প্রাণ নিয়ে বেরিয়ে এসেছি। কোন কিছু বের করতে পারিনি। ক্ষতিগ্রস্থরা জানান, ঘরের নগদ টাকা, ¯¦র্ণালঙ্কার, আসবাব পত্র ইলেকট্রনিক্স মালামাল সবকিছু মিলে ১৩ পরিবারের আনুমানিক অর্ধকোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। বর্তমানে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের সদস্যরা খোলা আকাশের নিচে মানবেতর জীবন যাপন করছেন। উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) লুৎফর রহমানের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমি আপাতত ২ হাজার টাকা প্রদান করেছি। ইউপি চেয়ারম্যানকে তালিকা প্রস্তুত করতে বলা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

শেরপুরে ১৪৩ মুক্তিযোদ্ধা-শহীদ পরিবারকে সংবর্ধনা

জাহিদুল হক মনির,শেরপুর প্রতিনিধি: মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উদযাপন উপলক্ষে শেরপুর ...

মাদারীপুরে রেস্টুরেন্টে আগুন। অর্ধকোটি টাকার ক্ষতি, গুরুতর আহত-২

মোঃ আরিফুর রহমান মাদারীপুর প্রতিনিধি : মাদারীপুর শহরের পুরানবাজার এলাকার কেএফসি রেস্টুরেন্টে ...